বরেণ্য: আবেদ চৌধুরী
jugantor
বরেণ্য: আবেদ চৌধুরী

   

৩০ নভেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আবেদ চৌধুরী একজন বাঙালি জিনবিজ্ঞানী, বিজ্ঞান লেখক এবং কবি। তিনি ১৯৫৬ সালের ১ ফেব্রুয়ারি মৌলভীবাজারের কুলাউড় উপজেলার কানিহাটি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। আধুনিক জীববিজ্ঞানের প্রথম সারির এই গবেষক পড়াশোনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগে, যুক্তরাষ্ট্রের অরিগন স্টেট ইন্সটিটিউট অব মলিকুলার বায়োলজি এবং ওয়াশিংটন স্টেটের ফ্রেড হাচিনসন ক্যান্সার রিসার্চ ইন্সটিটিউটে। ১৯৮৩ সালে পিএইচডি গবেষণাকালে তিনি রেকডি নামক জেনেটিক রি-কম্বিনেশনের একটি নতুন জিন আবিষ্কার করেন- যা নিয়ে আশির দশকে আমেরিকা ও ইউরোপে ব্যাপক গবেষণা হয়। বর্তমানে তিনি অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় বিজ্ঞান সংস্থায় একদল বিজ্ঞানীর সমন্বয়ে গঠিত গবেষক দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তার লেখা বইগুলোর মধ্যে রয়েছে- মানুষের জিন জিনের মানুষ, অনুভবের নীলনকশা, শৈবাল ও অন্তরীক্ষ, দুর্বাশিশির ও পর্বতমালা, নির্বাচিত কবিতা, স্বপ্ন সত্তা নদী ও অন্যান্য কবিতা।

বরেণ্য: আবেদ চৌধুরী

  
৩০ নভেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আবেদ চৌধুরী একজন বাঙালি জিনবিজ্ঞানী, বিজ্ঞান লেখক এবং কবি। তিনি ১৯৫৬ সালের ১ ফেব্রুয়ারি মৌলভীবাজারের কুলাউড় উপজেলার কানিহাটি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। আধুনিক জীববিজ্ঞানের প্রথম সারির এই গবেষক পড়াশোনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগে, যুক্তরাষ্ট্রের অরিগন স্টেট ইন্সটিটিউট অব মলিকুলার বায়োলজি এবং ওয়াশিংটন স্টেটের ফ্রেড হাচিনসন ক্যান্সার রিসার্চ ইন্সটিটিউটে। ১৯৮৩ সালে পিএইচডি গবেষণাকালে তিনি রেকডি নামক জেনেটিক রি-কম্বিনেশনের একটি নতুন জিন আবিষ্কার করেন- যা নিয়ে আশির দশকে আমেরিকা ও ইউরোপে ব্যাপক গবেষণা হয়। বর্তমানে তিনি অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় বিজ্ঞান সংস্থায় একদল বিজ্ঞানীর সমন্বয়ে গঠিত গবেষক দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তার লেখা বইগুলোর মধ্যে রয়েছে- মানুষের জিন জিনের মানুষ, অনুভবের নীলনকশা, শৈবাল ও অন্তরীক্ষ, দুর্বাশিশির ও পর্বতমালা, নির্বাচিত কবিতা, স্বপ্ন সত্তা নদী ও অন্যান্য কবিতা।