প্রকৃতি : ক্ষুদ্রতম পাখি হামিংবার্ড
jugantor
প্রকৃতি : ক্ষুদ্রতম পাখি হামিংবার্ড

   

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রকৃতিতে সবচেয়ে ছোট পাখিটির নাম হামিংবার্ড। হামিংবার্ডের ওজন মাত্র ১.৫ থেকে ২ গ্রাম। এরা এতই দ্রুত চলাফেরা করে যে উড়ন্ত অবস্থায় এদের ঝাপসা দেখায়। আধুনিক ক্যামেরা ধীরগতিতে দেখলে এদের জীবন সম্পর্কে সঠিক ধারণা পাওয়া যায়। লম্বা ফুল থেকে মধু খাওয়ার জন্য লম্বা ঠোঁটের সঙ্গে লম্বা জিহ্বা রয়েছে। এর বৈজ্ঞানিক নাম মেলিসুজা হেলেনি। মৌপায়ী বলে এদেরকে মৌ হামিংবার্ডও বলা হয়। আকৃতিতে ছোট হলেও প্রকৃতিতে প্রায় ৪০০ প্রজাতির হামিংবার্ড রয়েছে। দেহে থাকে প্রায় ৯০০ পালক। এদের চলার গতি ৩০ থেকে ৪৫ কিলোমিটার। মধুপায়ী হলেও এরা ফুলের ভেতরের ছোট ছোট পোকাও খেয়ে থাকে। ওড়ার সময় এদের পাখা থেকে গুনগুন শব্দ হয়। গুনগুন করাকে ইংরেজিতে হামিং বলে। আর এ কারণেই এর নাম দেওয়া হয়েছে হামিংবার্ড।

প্রকৃতি : ক্ষুদ্রতম পাখি হামিংবার্ড

  
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রকৃতিতে সবচেয়ে ছোট পাখিটির নাম হামিংবার্ড। হামিংবার্ডের ওজন মাত্র ১.৫ থেকে ২ গ্রাম। এরা এতই দ্রুত চলাফেরা করে যে উড়ন্ত অবস্থায় এদের ঝাপসা দেখায়। আধুনিক ক্যামেরা ধীরগতিতে দেখলে এদের জীবন সম্পর্কে সঠিক ধারণা পাওয়া যায়। লম্বা ফুল থেকে মধু খাওয়ার জন্য লম্বা ঠোঁটের সঙ্গে লম্বা জিহ্বা রয়েছে। এর বৈজ্ঞানিক নাম মেলিসুজা হেলেনি। মৌপায়ী বলে এদেরকে মৌ হামিংবার্ডও বলা হয়। আকৃতিতে ছোট হলেও প্রকৃতিতে প্রায় ৪০০ প্রজাতির হামিংবার্ড রয়েছে। দেহে থাকে প্রায় ৯০০ পালক। এদের চলার গতি ৩০ থেকে ৪৫ কিলোমিটার। মধুপায়ী হলেও এরা ফুলের ভেতরের ছোট ছোট পোকাও খেয়ে থাকে। ওড়ার সময় এদের পাখা থেকে গুনগুন শব্দ হয়। গুনগুন করাকে ইংরেজিতে হামিং বলে। আর এ কারণেই এর নাম দেওয়া হয়েছে হামিংবার্ড।