ক্যাপিটাল মার্কেট চাঙ্গা করার কৌশল

  আশারাফ হোসেন ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ক্যাপিটাল মার্কেট চাঙ্গা করার কৌশল

দেশের ক্যাপিটাল মার্কেট চাঙ্গা করতে হলে বাংলাদেশ-অরিজিন কোম্পানির পরিচালকদের উৎসাহিত করতে হবে, যেন তারা শেয়ারহোল্ডারদের অর্জিত মুনাফায় সর্বোচ্চ অংশ লভ্যাংশ হিসেবে বিতরণ করেন।

বর্তমানে যেসব কোম্পানি স্টক মার্কেটে তালিকাভুক্ত রয়েছে, তাদের মুনাফার ওপর সরকার হ্রাসকৃত হারে কর্পোরেট ট্যাক্স ও আয়কর এমনভাবে ধার্য করতে পারেন, যাতে পরিচালকরা সব শেয়ারহোল্ডারকে সম্ভাব্য সর্বোচ্চ লভ্যাংশ প্রদানে উৎসাহিত হন। অর্জিত লভ্যাংশের যে অংশ কোম্পানি শেয়ারহোল্ডারদের নগদ প্রদান করে, তার ওপর নিুহারে কর্পোরেট ট্যাক্স ধার্য করতে হবে। মুনাফার যে অংশ রিটেন আর্নিং হিসেবে রিজার্ভে রাখা হবে, সে অর্থের ওপর উচ্চহারে কর্পোরেট ট্যাক্স ধার্য করতে হবে।

দৃষ্টান্তস্বরূপ বলা যায়, বর্তমানে স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত কোম্পানির ক্ষেত্রে মুনাফার ওপর ২৫% হারে কর্পোরেট ট্যাক্স ধার্য রয়েছে এবং স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত নয় এমন কোম্পানির ক্ষেত্রে ৩৫% হারে কর্পোরেট ট্যাক্স ধার্য রয়েছে।

এ পদ্ধতি বাংলাদেশ-অরিজিন লিস্টেড কোম্পানির পরিচালকদের শেয়ারহোল্ডারকে সর্বোচ্চ সম্ভাব্য হারে লভ্যাংশ প্রদানে উৎসাহিত করে না। যদি লিস্টেড কোম্পানির মুনাফার যে অর্থ শেয়ারহোল্ডারদের লভ্যাংশ হিসেবে প্রদান করা হয়, তার ওপর ২০% হারে কর্পোরেট ট্যাক্স ধার্য করা হয় এবং যে মুনাফার অংশ রিটেন আর্নিং হিসেবে রিজার্ভে রাখা হয়, তার ওপর ৩০% কর্পোরেট ট্যাক্স ধার্য করা হয়, তাহলে পরিচালকরা অর্জিত মুনাফার উল্লেখযোগ্য অংশ শেয়ারহোল্ডারদের লভ্যাংশ হিসেবে বিতরণে উৎসাহিত হবে।

বর্তমানে লিস্টেড কোম্পানি থেকে কোনো ব্যক্তি লভ্যাংশ পেলে উৎসে ১০% হারে কর কেটে রাখা হয় (যদি উক্ত ব্যক্তির ১২ ডিজিটের টিআইএন থাকে), অন্যথায় ১৫% হারে উৎসে কর কাটা হয়। আবার লিস্টেড কোম্পানি হতে কোনো প্রতিষ্ঠান লভ্যাংশ পেলে উৎসে ২৫% হারে উৎসে কর কেটে রাখা হয়। লিস্টেড কোম্পানির লভ্যাংশ ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের আয়কর ধার্যের ক্ষেত্রে যোগ করার বিধান রহিত করা প্রয়োজন।

এসব বিষয় কার্যকর করলে লিস্টেড কোম্পানির পরিচালকরা মুনাফার সম্ভাব্য সর্বোচ্চ অংশ লভ্যাংশ হিসেবে শেয়ারহোল্ডারদের প্রদানে উৎসাহিত হবে। ফলে ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান লিস্টেড কোম্পানির শেয়ার ক্রয়ে আগ্রহী হবে। এতে দেশের ক্যাপিটাল মার্কেট চাঙ্গা হবে।

উদ্যোক্তারা দীর্ঘমেয়াদি অর্থায়নে ক্যাপিটাল মার্কেট হতে তা সংগ্রহ করতে পারবে। এ প্রক্রিয়ায় দেশে ব্যবসায়-বাণিজ্যের প্রসার ঘটবে ও কর্মসংস্থান বৃদ্ধি পাবে এবং এটি এসডিজি অর্জনে সহায়ক হবে।

সেন্ট্রাল বাসাবো, ঢাকা

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×