শ্রীলংকায় বোমা হামলায় কারা মারা গেছে?

  মোশাররফ হোসেন মুসা ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

শ্রীলংকায় বোমা হামলায় কারা মারা গেছে?

মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকসেনারা আমাদের ঘৃণা করে বলত- বাঙালি ছোটা আদমি হ্যায়, মাছলি খাতা হ্যায়, পানিকা পোকা খাতা হ্যায়। কিন্তু তারা নিজেরাও (আফগানিস্তান, ইরান, অ্যারাবিয়ানসহ) জানে না, তাদের পূর্বপুরুষ কারা?

তাদের গর্বের বিষয়- তারা গৌরবর্ণের, নাক উঁচু, ঘাড় লম্বা, লম্বাটে মাথা, দীর্ঘদেহী অর্থাৎ তারা আর্যদের খাঁটি রক্ত বহন করছে। বিপরীতে বাঙালিদের শরীর খাটো, নাক চ্যাপ্টা, গোলাকার মুখ, ঘাড় ছোট, রঙ কালো; ঠিক যেন আদিবাসী সাঁওতালদের মতো (উল্লেখ্য, সাঁওতালদের বিয়েশাদি নিজেদের মধ্যে হওয়ায় তারা নৃতাত্ত্বিক প্রধান বৈশিষ্ট্যগুলো ধরে রাখতে পেরেছে)।

আমাদের নৃ-তাত্ত্বিক বৈশিষ্ট্য তামিলদের (দ্রাবিড়দের) মতোই। ইতিহাসবিদদের মতে, আর্যরা ছিল পোল্যান্ড তথা মধ্য এশিয়ার অধিবাসী। তারা ছিল পশুচারী। তাদের গোত্রের একটি শাখা পশ্চিমে জার্মান ও গ্রিকের দিকে চলে যায়। আরেকটি শাখা পারস্য দিয়ে কাবুল হয়ে পাকিস্তানের মধ্য দিয়ে ইন্দুশ পর্বতমালা দিয়ে ভারতে প্রবেশ করে। লক্ষণীয় বিষয় হল- ইরান, আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও পাঞ্জাবের মানুষের চেহারা কাছাকাছি (যারা এটা বিশ্বাস করবেন না, তাদের ঈশ্বরদী আসার অনুরোধ করছি; এখানে পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে প্রায় ২ হাজার রাশিয়ান কাজ করছেন। তাদের চেহারা নিবিড়ভাবে দেখলে এর প্রমাণ পাওয়া যাবে)।

আর্যদের আক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য স্থানীয়রা দক্ষিণে গহিন জঙ্গলের দিকে পালাতে থাকে। সে কারণে তামিল ও শ্রীলংকার মানুষদের চেহারা একইরকম। তবে যারা সমুদ্র পার হয়ে শ্রীলংকা পালাতে পেরেছিল, তারা ধর্ম ও বর্ণ (নৃ- বৈশিষ্ট্য) উভয়ই রক্ষা করতে সক্ষম হয়েছে।

সেদিক থেকে শ্রীলংকানরা আমাদের পূর্বপুরুষ (লক্ষণীয়, সন্দেহভাজন সন্ত্রাসী জাহারান হাশিমের চেহারাও আমাদের মতো)। উল্লেখ্য, সাবেক প্রধানমন্ত্রী প্রেমাদাসা বাংলাদেশ সফরে এসে আমাদের তাদের পূর্বপুরুষ বলেছিলেন। জ্ঞাতি ভাইদের নৃশংস হত্যাকাণ্ডে গভীর শোক প্রকাশ করছি। সেই সঙ্গে এ হত্যাকাণ্ডের জন্য দায়ী সন্ত্রাসীদের ধ্বংস কামনা করছি।

ঈশ্বরদী, পাবনা

[email protected]

ঘটনাপ্রবাহ : শ্রীলংকায় গির্জা ও হোটেলে সিরিজ হামলা

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×