দুর্নীতির শৃঙ্খলে বন্দি স্বদেশ
jugantor
দুর্নীতির শৃঙ্খলে বন্দি স্বদেশ

  আবির মাহমুদ খবির  

১৯ জুন ২০১৯, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

দুর্নীতির শৃঙ্খলে বন্দি স্বদেশ
প্রতীকী ছবি

দুর্নীতি ও বাংলাদেশের সম্পর্ক খুবই নিবিড়; যেন বিনিসুতার মালায় গাঁথা। দুর্নীতির কবলে পড়েই বাংলাদেশ স্বকীয়তা হারাচ্ছে। দেশের উন্নয়নে বড় বাধা হয়ে আছে দুর্নীতি। বস্তুত দুর্নীতির শৃঙ্খলে দেশ আজ বন্দি।

সরকার দেশকে এগিয়ে নিচ্ছে; কিন্তু কিছু দুর্নীতিপরায়ণ মানুষের স্বার্থের কবলে পড়ে বাংলাদেশ উন্নত বিশ্বের কাতার থেকে ছিটকে পড়ছে। বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটি সেক্টরে দুর্নীতি হচ্ছে। সরকারি চাকরিজীবীরা অহরহ দুর্নীতি করেই যাচ্ছে। কেউ তাদের বাধা দিতে পারছে না।

কোনো দেশে দুর্নীতি থাকলে সেই দেশ কখনই উন্নয়নের পথচলা অব্যাহত রাখতে পারে না। দেশের যোগ্য ব্যক্তিদের সরকারের বড় চাকরিতে স্থান না দিয়ে অযোগ্য ব্যক্তিদের স্থান দেয়া হচ্ছে।

অযোগ্য ব্যক্তিরা দেশের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় বসে নিজেদের দায়িত্ব-কর্তব্য সঠিকভাবে পালন করতে পারে না। এতে উন্নয়নের গতি মন্থর হয়ে পড়ে। বাংলাদেশকে নিয়ে আমরা অনেক স্বপ্ন দেখি; বিশ্বাস করি, একদিন বাংলাদেশ পৃথিবীর সবচেয়ে উন্নত দেশে পরিণত হবে। উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলার সক্ষমতা বাংলাদেশের আছে। কিন্তু দুর্নীতির কবলে পড়ে সেই সক্ষমতাটুকু আমরা কাজে লাগাতে পারছি না।

সরকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিলে দুর্নীতি রোধ করা সম্ভব হবে, তা বলাই বাহুল্য। তবে সরকারের পাশাপাশি দেশের প্রতিটি মানুষকে হতে হবে সচেতন। হতে হবে ন্যায়পরায়ণ, সৎ ও দেশপ্রেমিক।

মানুষ তার নিজের অবস্থান থেকে সৎ থাকলে দুর্নীতি বাংলাদেশকে কখনই গ্রাস করতে পারবে না। সরকারের প্রতি অনুরোধ- প্রতিটি ক্ষেত্রে দুর্নীতি বন্ধের কঠোর ব্যবস্থা নিন। দুর্নীতি পুরোপুরি রোধ করা গেলে বাংলাদেশ সত্যিকার অর্থেই হয়ে উঠবে সোনার দেশ।

শিক্ষার্থী, ইতিহাস বিভাগ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

দুর্নীতির শৃঙ্খলে বন্দি স্বদেশ

 আবির মাহমুদ খবির 
১৯ জুন ২০১৯, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
দুর্নীতির শৃঙ্খলে বন্দি স্বদেশ
প্রতীকী ছবি

দুর্নীতি ও বাংলাদেশের সম্পর্ক খুবই নিবিড়; যেন বিনিসুতার মালায় গাঁথা। দুর্নীতির কবলে পড়েই বাংলাদেশ স্বকীয়তা হারাচ্ছে। দেশের উন্নয়নে বড় বাধা হয়ে আছে দুর্নীতি। বস্তুত দুর্নীতির শৃঙ্খলে দেশ আজ বন্দি।

সরকার দেশকে এগিয়ে নিচ্ছে; কিন্তু কিছু দুর্নীতিপরায়ণ মানুষের স্বার্থের কবলে পড়ে বাংলাদেশ উন্নত বিশ্বের কাতার থেকে ছিটকে পড়ছে। বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটি সেক্টরে দুর্নীতি হচ্ছে। সরকারি চাকরিজীবীরা অহরহ দুর্নীতি করেই যাচ্ছে। কেউ তাদের বাধা দিতে পারছে না।

কোনো দেশে দুর্নীতি থাকলে সেই দেশ কখনই উন্নয়নের পথচলা অব্যাহত রাখতে পারে না। দেশের যোগ্য ব্যক্তিদের সরকারের বড় চাকরিতে স্থান না দিয়ে অযোগ্য ব্যক্তিদের স্থান দেয়া হচ্ছে।

অযোগ্য ব্যক্তিরা দেশের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় বসে নিজেদের দায়িত্ব-কর্তব্য সঠিকভাবে পালন করতে পারে না। এতে উন্নয়নের গতি মন্থর হয়ে পড়ে। বাংলাদেশকে নিয়ে আমরা অনেক স্বপ্ন দেখি; বিশ্বাস করি, একদিন বাংলাদেশ পৃথিবীর সবচেয়ে উন্নত দেশে পরিণত হবে। উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলার সক্ষমতা বাংলাদেশের আছে। কিন্তু দুর্নীতির কবলে পড়ে সেই সক্ষমতাটুকু আমরা কাজে লাগাতে পারছি না।

সরকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিলে দুর্নীতি রোধ করা সম্ভব হবে, তা বলাই বাহুল্য। তবে সরকারের পাশাপাশি দেশের প্রতিটি মানুষকে হতে হবে সচেতন। হতে হবে ন্যায়পরায়ণ, সৎ ও দেশপ্রেমিক।

মানুষ তার নিজের অবস্থান থেকে সৎ থাকলে দুর্নীতি বাংলাদেশকে কখনই গ্রাস করতে পারবে না। সরকারের প্রতি অনুরোধ- প্রতিটি ক্ষেত্রে দুর্নীতি বন্ধের কঠোর ব্যবস্থা নিন। দুর্নীতি পুরোপুরি রোধ করা গেলে বাংলাদেশ সত্যিকার অর্থেই হয়ে উঠবে সোনার দেশ।

শিক্ষার্থী, ইতিহাস বিভাগ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়