বিনিয়োগের অপার সম্ভাবনা কাজে লাগান

  মো. রাশেদ আহমেদ ২৬ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিনিয়োগের অপার সম্ভাবনা কাজে লাগান

একটি দেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক তথা সার্বিক উন্নয়নে বিনিয়োগ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কিছু কিছু দেশে আয়ের সিংহভাগ আসে বিনিয়োগ থেকে।

বাংলাদেশে বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগে অপার সম্ভাবনা থাকা সত্ত্বেও আমরা অনকে পেছনে পড়ে আছি, যা সার্বিক উন্নয়নের পথে বড় অন্তরায়।

আশার কথা হল, সাম্প্রতিক বছরগুলোয় বিদেশি বিনিয়োগের পরিমাণ বাড়তে শুরু করেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যমতে, ২০১৮ সালে বিদেশি বিনিয়োগের পরিমাণ ৩৬১ কোটি ৩৩ লাখ মার্কিন ডলার, যা ২০১৭ সালে ছিল ২১৫ কোটি ডলার। অর্থনীতিবিদদের মতে, চলতি বছর বিদেশি বিনিয়োগের পরিমাণ অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে, যা বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়নে ইতিবাচক দিক।

গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা, রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ও সস্তা শ্রমের কারণে বাংলাদেশে বিনিয়োগের উপযুক্ত স্থান। তারপরও বিভিন্ন ধরনের প্রতিবন্ধকতার কারণে আজও সার্বিক বিনিয়োগ পরিস্থিতি কাঙ্ক্ষিত পর্যায়ে পৌঁছায়নি। সীমাহীন দুর্নীতি, অবকাঠামোগত অনুন্নয়ন, সুষ্ঠু নীতিমালার অভাব, স্বজনপ্রীতি, হয়রানি, আমলাতান্ত্রিক জটিলতা, কর্পোরেট ট্যাক্সের হার বেশিসহ ঘন ঘন বিনিয়োগ নীতির পরিবর্তন ইত্যাদি কারণে সুফল মিলছে না।

এ ছাড়া চাহিদা অনুযায়ী গ্যাস ও বিদ্যুতের অভাব, শ্রমিক অসন্তোষ, অপ্রতুল যোগাযোগ ব্যবস্থা ইত্যাদির মতো সমস্যা তো লেগেই আছে।

বাংলাদেশের বিনিয়োগ সম্ভাবনা কাজে লাগানোর জন্য ভারত, চীন, জাপান, ভিয়েতনামের মতো রাষ্ট্রগুলো মুখিয়ে আছে। কারণ এ দেশের মতো সস্তা শ্রম আর বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা অন্য কোথাও পাওয়া দুষ্কর। এ বিনিয়োগ সম্ভাবনা কাজে লাগাতে উপরোক্ত সমস্যাগুলোর সমাধান করা জরুরি।

সেই সঙ্গে বিনিয়োগ নীতি আরও সহজ করা উচিত, যাতে প্রবাসী থেকে শুরু করে দেশের সব স্তরের উদ্যোক্তা বিনিয়োগ করতে পারে। বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আমদানি-রফতানি, ভারি যন্ত্রপাতি ক্রয়সহ যে রকম শুল্কসহ বিভিন্ন সুবিধা দেয়া হয়, ঠিক একই সুবিধা দেশি বিনিয়োগকারীদের জন্যও নিশ্চিত করা উচিত।

বাংলাদেশে বিনিয়োগ সম্ভাবনা সম্পর্কে IMF প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- দেশটি অচিরেই দক্ষিণ এশিয়ার উৎপাদন কেন্দ্রে পরিণত হবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ অনেক দেশ বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে প্রবল আগ্রহী।

আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান BMI-এর গবেষণায় উল্লেখ করা হয়েছে, আগামী ১০ বছরে বাংলাদেশ হয়ে উঠবে বিশ্বের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির চালিকাশক্তি।

বিনিয়োগ শুধু অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জন করে তা নয়; উৎপাদনশীলতা ও কর্মসংস্থান বাড়াতে ব্যাপক অবদান রাখে। বাংলাদেশে যে হারে বেকারত্ব বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাতে বিনিয়োগ সম্ভাবনা যথাযথভাবে কাজে লাগিয়ে এর লাঘব করা যেতে পারে। আমাদের দেশ যে বিনিয়োগের উপযুক্ত স্থান- এ কথা দেশি-বিদেশি বিশ্বাস ও আস্থায় আনতে হবে।

একটু ভিন্ন প্রসঙ্গে আসা যাক; কোনো দেশের বিনিয়োগ পরিস্থিতি মূলত নির্ভর করে রাজনৈতিক অবস্থার ওপর, আমাদের এখানে বর্তমানে যা তুলনামূলকভাবে অনেক ভালো। তবে রাজনৈতিক কারণে রাজপথ কখন যে উত্তাল হয়ে যাবে, সেটা বলা যায় না। বস্তুত প্রতিটি রাজনৈতিক দলের দেশি-বিদেশি বিনিয়োগের কথা মাথায় রাজপথে কর্মসূচি পালন করা উচিত, যাতে কোনো অবস্থাতেই বিনিয়োগ বাধাগ্রস্ত না হয়।

শিক্ষার্থী, ব্যবস্থাপনা বিভাগ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×