শিক্ষার্থীদের সুদমুক্ত দীর্ঘমেয়াদি ঋণ দিন ও ইন্টারনেটের দাম কমান

  মুহাম্মদ মিজানুর রহমান ০১ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

করোনার প্রকোপের মাঝে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে যাওয়া থেমে আছে। প্রাক-প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের জন্য সরকার সংসদ টেলিভিশনে সীমিত পরিসরে শিক্ষা-কার্যক্রম শুরু করলেও কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়াদের জন্য যথোপযুক্ত কোনো পদক্ষেপ নেই।

শিক্ষার্থীদের সেশনজটের কথা চিন্তা করে কেউ কেউ অনলাইন ক্লাসের কথা বলছেন। নানাবিধ প্রতিবন্ধকতা থাকলেও আদতে অনলাইন ক্লাসের বিকল্প এ মুহূর্তে নেই। তা ছাড়া প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়গুলো দেখিয়েছে, সদিচ্ছা থাকলে অনলাইন ক্লাস অসম্ভব কিছু নয়। কাজেই, এ ক্ষেত্রে সরকার সুদৃষ্টি দিলে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেও দ্রুত এ শিক্ষা কার্যক্রম চালু করা সম্ভব এবং বর্তমানে তা সময়ের দাবি।

অনলাইন ক্লাস চালু করার ক্ষেত্রে প্রধান দুটি প্রতিবন্ধকতা হল, শিক্ষার্থীদের ডিজিটাল ডিভাইসের অপ্রতুলতা ও ইন্টারনেট প্যাকেজের আকাশচুম্বী দাম। এ ক্ষেত্রে ডিজিটাল ডিভাইস ও ইন্টারনেট প্যাকেজ ক্রয় বাবদ শিক্ষার্থীদের সুদমুক্ত দীর্ঘমেয়াদি ঋণ দেয়া যায়।

এ ছাড়া চলমান অর্থবাজেটে মোবাইল কলরেট ও ইন্টারনেট প্যাকেজের ক্ষেত্রে বাড়তি যে ৫ শতাংশ ভ্যাট কার্যকর হয়েছে, তা অনতিবিলম্বে বাতিল করতে হবে। তা ছাড়া সদ্য স্নাতক ও স্নাতকোত্তর যেসব শিক্ষার্থী চাকরিবঞ্চিত আছেন এবং সহসা যাদের চাকরি পাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই, তাদের সংকটাপন্ন বেকার জীবনের অবসানকল্পে তাদেরও ঋণ সুবিধার আওতায় আনা যেতে পারে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এ ধরনের দৃষ্টান্ত অনেক।

শিক্ষাকে জাতির মেরুদণ্ড বলা হয়। মেরুদণ্ডহীন জাতি যে কোনো সময় মুখ থুবড়ে পড়তে পারে। শিক্ষার্থী বাঁচলে বাঁচবে শিক্ষা। শিক্ষা বাঁচাতে যথোপযুক্ত এসব পদক্ষেপ দ্রুত কার্যকর করা উচিত।

বৈলতলী, চন্দনাইশ, চট্টগ্রাম

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত