পেঁয়াজ নিয়ে সিন্ডিকেট প্রথার শেষ কবে?
jugantor
পেঁয়াজ নিয়ে সিন্ডিকেট প্রথার শেষ কবে?

  মোহম্মদ শাহিন  

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গত বছরের মতো সুযোগ বুঝে অসাধু ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধের ঘোষণা দেয়ার আগে যেখানে বাজারে প্রতি কেজি ৪০-৪৫ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে, সেখানে হঠাৎ করেই এ নিত্যপণ্যটির দাম ঊর্ধ্বমুখী হয়ে প্রতি কেজি ৮০ থেকে ১০০ টাকা দরে বিক্রি হতে পারে।

দেশে পেঁয়াজের বার্ষিক চাহিদা কমপক্ষে ২৫ লাখ টন। এ চাহিদার প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ দেশে উৎপন্ন হয় এবং বাকি পেঁয়াজ আমদানি করা হয়। ২০১৯-২০ অর্থবছরে দেশে যে পরিমাণ পেঁয়াজ উৎপন্ন হয়েছে এবং আমদানি করা হয়েছে, তাতে কোনো দেশ পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করলেও বাজার অস্থিতিশীল হবার কথা নয়। অথচ ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করা মাত্রই দেশের অসাধু ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজ মজুদ ও সিন্ডিকেট করে চড়া দামে তা বিক্রি করতে শুরু করেছে।

এর ফলে জনসাধারণ, বিশেষ করে মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষ অপ্রত্যাশিত দুর্ভোগের সম্মুখীন হয়েছেন। পেঁয়াজের বাজার ঘিরে যে অস্থিরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে, এ বিষয়ে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ না নিলে গত বছরের পুনরাবৃত্তি ঘটতে পারে। পেঁয়াজের বাজার স্বাভাবিক করতে হলে সবার আগে অবৈধ সিন্ডিকেটের দুষ্টচক্র ভাঙতে হবে।

শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

[email protected]

পেঁয়াজ নিয়ে সিন্ডিকেট প্রথার শেষ কবে?

 মোহম্মদ শাহিন 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গত বছরের মতো সুযোগ বুঝে অসাধু ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধের ঘোষণা দেয়ার আগে যেখানে বাজারে প্রতি কেজি ৪০-৪৫ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে, সেখানে হঠাৎ করেই এ নিত্যপণ্যটির দাম ঊর্ধ্বমুখী হয়ে প্রতি কেজি ৮০ থেকে ১০০ টাকা দরে বিক্রি হতে পারে।

দেশে পেঁয়াজের বার্ষিক চাহিদা কমপক্ষে ২৫ লাখ টন। এ চাহিদার প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ দেশে উৎপন্ন হয় এবং বাকি পেঁয়াজ আমদানি করা হয়। ২০১৯-২০ অর্থবছরে দেশে যে পরিমাণ পেঁয়াজ উৎপন্ন হয়েছে এবং আমদানি করা হয়েছে, তাতে কোনো দেশ পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করলেও বাজার অস্থিতিশীল হবার কথা নয়। অথচ ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করা মাত্রই দেশের অসাধু ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজ মজুদ ও সিন্ডিকেট করে চড়া দামে তা বিক্রি করতে শুরু করেছে।

এর ফলে জনসাধারণ, বিশেষ করে মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষ অপ্রত্যাশিত দুর্ভোগের সম্মুখীন হয়েছেন। পেঁয়াজের বাজার ঘিরে যে অস্থিরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে, এ বিষয়ে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ না নিলে গত বছরের পুনরাবৃত্তি ঘটতে পারে। পেঁয়াজের বাজার স্বাভাবিক করতে হলে সবার আগে অবৈধ সিন্ডিকেটের দুষ্টচক্র ভাঙতে হবে।

শিক্ষার্থী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

[email protected]