নীতিহীন মানুষ রাষ্ট্রের বোঝা
jugantor
নীতিহীন মানুষ রাষ্ট্রের বোঝা

  মো. ইসমাইল হোসেন মোল্লা  

০৭ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রবাদে বলে, নীতিহীন মানুষের কোনো ধর্ম নেই। বস্তুত মানবিক বৈশিষ্ট্য ও গুণাগুণ, ন্যায়নীতি, আদর্শ, সততা ও মানবতাবোধ যাদের মধ্যে নেই, তাদের কোনো ধর্ম নেই। ন্যায়নীতি, আদর্শ, সততা ও মানবতাবোধই ধর্ম। ধর্মের মূলবাণী হচ্ছে ন্যায়নীতি, আদর্শ, সততা ও মানবতাবোধ জাগ্রত করা। নীতিহীন মানুষ পশুর চেয়ে অধম। পশুরা যা করতে পারে না, নীতিহীন মানুষ তা করতে পারে। অসৎ উপায়ে অর্থ উপার্জন করা অর্থাৎ ঘুষ ও দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত হওয়া কেবল নীতিহীন মানুষের পক্ষেই সম্ভব। নীতিবান ও সৎ মানুষের পক্ষে অসৎ কাজ ও অবৈধ উপায়ে অর্থ উপার্জন করা সম্ভব নয়। বর্তমানে সমাজ ও রাষ্ট্রে অনেকেই অসৎ পথে রোজগার করছে। বস্তুত তাদের কোনো ধর্ম নেই। এসব নীতিহীন মানুষ সমাজ ও রাষ্ট্রের বোঝাস্বরূপ; তারা মানুষের জন্য কোনো মঙ্গল বয়ে আনে না।

উত্তরখান, ঢাকা

নীতিহীন মানুষ রাষ্ট্রের বোঝা

 মো. ইসমাইল হোসেন মোল্লা 
০৭ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রবাদে বলে, নীতিহীন মানুষের কোনো ধর্ম নেই। বস্তুত মানবিক বৈশিষ্ট্য ও গুণাগুণ, ন্যায়নীতি, আদর্শ, সততা ও মানবতাবোধ যাদের মধ্যে নেই, তাদের কোনো ধর্ম নেই। ন্যায়নীতি, আদর্শ, সততা ও মানবতাবোধই ধর্ম। ধর্মের মূলবাণী হচ্ছে ন্যায়নীতি, আদর্শ, সততা ও মানবতাবোধ জাগ্রত করা। নীতিহীন মানুষ পশুর চেয়ে অধম। পশুরা যা করতে পারে না, নীতিহীন মানুষ তা করতে পারে। অসৎ উপায়ে অর্থ উপার্জন করা অর্থাৎ ঘুষ ও দুর্নীতির সঙ্গে যুক্ত হওয়া কেবল নীতিহীন মানুষের পক্ষেই সম্ভব। নীতিবান ও সৎ মানুষের পক্ষে অসৎ কাজ ও অবৈধ উপায়ে অর্থ উপার্জন করা সম্ভব নয়। বর্তমানে সমাজ ও রাষ্ট্রে অনেকেই অসৎ পথে রোজগার করছে। বস্তুত তাদের কোনো ধর্ম নেই। এসব নীতিহীন মানুষ সমাজ ও রাষ্ট্রের বোঝাস্বরূপ; তারা মানুষের জন্য কোনো মঙ্গল বয়ে আনে না।

উত্তরখান, ঢাকা

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন