শিবপুর পৌরবাসীর নাগরিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করুন
jugantor
শিবপুর পৌরবাসীর নাগরিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করুন

  নূরুল ইসলাম নূরচান  

১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নরসিংদীর শিবপুর পৌরসভাটি ২০০৬ সালে গঠিত হয়। এরপর প্রায় ১৫ বছরেও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। সীমানা নির্ধারণ সংক্রান্ত একটি মামলার কারণে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। ফলে পৌরবাসী তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারছেন না। পৌরসভা গঠিত হওয়ার পর থেকে প্রশাসক দিয়ে চলছে পৌরসভার কার্যক্রম। তাই নাগরিক সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন পৌরবাসী। পৌরবাসী তাদের কষ্টের কথা প্রায়ই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখেন। ফেসবুকে কষ্টের কথা লেখালেখি করলেও তারা কোনো সুফল পাচ্ছেন না। কয়েকজন পৌরবাসী বললেন, আমরা নিয়মিত ট্যাক্স দিয়ে যাচ্ছি, তারপরও নাগরিক সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। শিবপুর পৌরসভার প্রধান রাস্তা হলো শিবপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে কলেজগেট পর্যন্ত। আরসিসি এ রাস্তাটিসহ আরও দু-একটি রাস্তার বিভিন্ন জায়গায় ড্রেনের ওপরের ঢাকনা অধিকাংশ জায়গায় ভেঙে পড়ে আছে অনেকদিন ধরে। কিন্তু এগুলো মেরামতের কোনো উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে না। কোনো কোনো স্থানে নতুন ঢাকনা দিলেও সেগুলো অল্প সময়ের মধ্যেই আবার ভেঙে যাচ্ছে। ফলে পথচারীরা চলাচলের সময় অনেক সময় ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটছে।

এ ছাড়া শিবপুর মডেল থানার সামনে থেকে শুরু করে পূর্বপাশে অনেক জায়গাজুড়ে রাস্তার ওপরে রয়েছে বেশকিছু দোকানপাট। এসব দোকানপাট থাকার কারণে যানবাহন চলাচলে দুর্ভোগের পাশাপাশি মানুষজন হাঁটাচলাও করতে পারেন না অনেক সময়। অপরদিকে বাজারে ঢোকার রাস্তার দুপাশে সারি সারি দোকান থাকার কারণে মানুষ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। শুধু তাই নয়, পুলিশও জরুরি কাজে এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে গেলে অসুবিধার সম্মুখীন হয়ে থাকেন। অপরদিকে শিবপুর ডিসি রাস্তা নামে পরিচিত সড়কের পুনর্নির্মাণ কাজের কার্যাদেশ দেওয়া হয় প্রায় দেড় বছর আগে। অথচ এ দেড় বছরেও রাস্তাটির পুনর্নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়নি। ফলে প্রতিনিয়ত শত শত মানুষ দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। তাছাড়া এ রাস্তার একাংশের ওপরে একটি বিদ্যুতের খুঁটি রয়েছে। এ খুঁটি রাস্তার মধ্যে রেখেই ঢালাইয়ের কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। অন্যদিকে শিবপুর বাজারে ঢোকার আরসিসি রাস্তাটির মধ্যে একটি টিউবওয়েল ও একটি বৈদ্যুতিক খুঁটি রয়েছে। এজন্য এ সড়ক দিয়ে চলাচলরত মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। শিবপুর সদর রোড এবং বাজারের ব্যবসায়ীরা পাবলিক টয়লেটের অভাবে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। শিবপুর বাজার ব্যবসায়ীদের জন্য বাজারে একটি টয়লেট থাকলেও সেটি দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ে আছে। সেটি এখন তালাবদ্ধ। অপরদিকে মনোহরদী-ইটাখোলা সড়কের কলেজগেট নামক স্থানে প্রতি মঙ্গল ও শুক্রবার বাঁশের হাট বসে। বাঁশের হাট বসার কারণে যানবাহন চলাচলে সমস্যার সৃষ্টি হয়। এর ফলে মানুষ দুর্ভোগ পোহায়। এ ছাড়া ওই স্থানে সড়কের দুই পাশে পৌরসভার ময়লা-আবর্জনা ফেলা হয়। ফলে দুর্গন্ধে মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে পড়েন। নাগরিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে যত দ্রুত সম্ভব নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে বিনীত অনুরোধ করছি।

সাবেক সভাপতি, শিবপুর প্রেস ক্লাব, নরসিংদী

n.nurchan@gmail.com

শিবপুর পৌরবাসীর নাগরিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করুন

 নূরুল ইসলাম নূরচান 
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নরসিংদীর শিবপুর পৌরসভাটি ২০০৬ সালে গঠিত হয়। এরপর প্রায় ১৫ বছরেও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। সীমানা নির্ধারণ সংক্রান্ত একটি মামলার কারণে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। ফলে পৌরবাসী তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারছেন না। পৌরসভা গঠিত হওয়ার পর থেকে প্রশাসক দিয়ে চলছে পৌরসভার কার্যক্রম। তাই নাগরিক সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন পৌরবাসী। পৌরবাসী তাদের কষ্টের কথা প্রায়ই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখেন। ফেসবুকে কষ্টের কথা লেখালেখি করলেও তারা কোনো সুফল পাচ্ছেন না। কয়েকজন পৌরবাসী বললেন, আমরা নিয়মিত ট্যাক্স দিয়ে যাচ্ছি, তারপরও নাগরিক সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। শিবপুর পৌরসভার প্রধান রাস্তা হলো শিবপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে কলেজগেট পর্যন্ত। আরসিসি এ রাস্তাটিসহ আরও দু-একটি রাস্তার বিভিন্ন জায়গায় ড্রেনের ওপরের ঢাকনা অধিকাংশ জায়গায় ভেঙে পড়ে আছে অনেকদিন ধরে। কিন্তু এগুলো মেরামতের কোনো উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে না। কোনো কোনো স্থানে নতুন ঢাকনা দিলেও সেগুলো অল্প সময়ের মধ্যেই আবার ভেঙে যাচ্ছে। ফলে পথচারীরা চলাচলের সময় অনেক সময় ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটছে।

এ ছাড়া শিবপুর মডেল থানার সামনে থেকে শুরু করে পূর্বপাশে অনেক জায়গাজুড়ে রাস্তার ওপরে রয়েছে বেশকিছু দোকানপাট। এসব দোকানপাট থাকার কারণে যানবাহন চলাচলে দুর্ভোগের পাশাপাশি মানুষজন হাঁটাচলাও করতে পারেন না অনেক সময়। অপরদিকে বাজারে ঢোকার রাস্তার দুপাশে সারি সারি দোকান থাকার কারণে মানুষ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। শুধু তাই নয়, পুলিশও জরুরি কাজে এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে গেলে অসুবিধার সম্মুখীন হয়ে থাকেন। অপরদিকে শিবপুর ডিসি রাস্তা নামে পরিচিত সড়কের পুনর্নির্মাণ কাজের কার্যাদেশ দেওয়া হয় প্রায় দেড় বছর আগে। অথচ এ দেড় বছরেও রাস্তাটির পুনর্নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়নি। ফলে প্রতিনিয়ত শত শত মানুষ দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন। তাছাড়া এ রাস্তার একাংশের ওপরে একটি বিদ্যুতের খুঁটি রয়েছে। এ খুঁটি রাস্তার মধ্যে রেখেই ঢালাইয়ের কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। অন্যদিকে শিবপুর বাজারে ঢোকার আরসিসি রাস্তাটির মধ্যে একটি টিউবওয়েল ও একটি বৈদ্যুতিক খুঁটি রয়েছে। এজন্য এ সড়ক দিয়ে চলাচলরত মানুষকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। শিবপুর সদর রোড এবং বাজারের ব্যবসায়ীরা পাবলিক টয়লেটের অভাবে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। শিবপুর বাজার ব্যবসায়ীদের জন্য বাজারে একটি টয়লেট থাকলেও সেটি দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ে আছে। সেটি এখন তালাবদ্ধ। অপরদিকে মনোহরদী-ইটাখোলা সড়কের কলেজগেট নামক স্থানে প্রতি মঙ্গল ও শুক্রবার বাঁশের হাট বসে। বাঁশের হাট বসার কারণে যানবাহন চলাচলে সমস্যার সৃষ্টি হয়। এর ফলে মানুষ দুর্ভোগ পোহায়। এ ছাড়া ওই স্থানে সড়কের দুই পাশে পৌরসভার ময়লা-আবর্জনা ফেলা হয়। ফলে দুর্গন্ধে মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে পড়েন। নাগরিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে যত দ্রুত সম্ভব নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে বিনীত অনুরোধ করছি।

সাবেক সভাপতি, শিবপুর প্রেস ক্লাব, নরসিংদী

n.nurchan@gmail.com

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন