বন্যা ও নদীভাঙন রোধে চাই দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা
jugantor
বন্যা ও নদীভাঙন রোধে চাই দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা

  মো. মঈন সিকদার  

১৯ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজবাড়ী জেলার শহররক্ষা বাঁধ আজ হুমকির মুখে। ভৌগোলিক অবস্থান বিবেচনায় রাজবাড়ী জেলা মূলত পলল গঠিত সমভূমির অন্তর্ভুক্ত, যাকে ঘিরে রয়েছে বিভিন্ন নদী, উপনদী ও শাখানদী। বর্ষাকালে যখন নদীর পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পেতে থাকে, তখন নদী তীরবর্তী আশপাশের এলাকাগুলোয় বন্যার সৃষ্টি হয় এবং একইসঙ্গে নদী ভাঙনের কবলে পড়ে ফসলি মাঠসহ হেক্টর-হেক্টর জমি।

এতে করে রাজবাড়ী জেলার নদী তীরবর্তী এলাকাগুলোর মানুষ তাদের ভিটেমাটি হারিয়ে অসহায়-মানবেতর জীবনযাপন করতে বাধ্য হচ্ছে। আবার এই তীব্র নদী ভাঙনের ফলে রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধের নিরাপত্তা নিয়েও অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে। অসহায় এসব মানুষের ভবিষ্যৎ নিয়ে দুশ্চিন্তা লাঘবের পাশাপাশি রাজবাড়ী জেলা শহররক্ষা বাঁধের উন্নয়নকল্পে যেখানে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা থাকা উচিত, সেখানে শুধু বর্ষা মৌসুমে অপরিকল্পিত ও স্বল্পস্থায়ী কার্যক্রম দেখা যায়। এ ছাড়া প্রশাসনের নাকের ডগায় বসে স্থানীয় প্রভাবশালীরা অবৈধভাবে নদী থেকে বালি উত্তোলন করছে।

ফলে নদীর স্বাভাবিক ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে, যার প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ফল হিসাবে রাজবাড়ী শহররক্ষা বাঁধ ঘিরে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি ছাড়াও বর্ষা মৌসুমে অতি মাত্রায় বন্যা ও নদীভাঙন পরিলক্ষিত হচ্ছে। রাজবাড়ী শহররক্ষা বাঁধের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি এবারের বর্ষা মৌসুমে বন্যা ও নদী ভাঙনের ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনতে এই শুষ্ক মৌসুম থেকে যথাযথ ব্যবস্থা ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নিয়ে অগ্রসর হওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

রাজবাড়ী

বন্যা ও নদীভাঙন রোধে চাই দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা

 মো. মঈন সিকদার 
১৯ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজবাড়ী জেলার শহররক্ষা বাঁধ আজ হুমকির মুখে। ভৌগোলিক অবস্থান বিবেচনায় রাজবাড়ী জেলা মূলত পলল গঠিত সমভূমির অন্তর্ভুক্ত, যাকে ঘিরে রয়েছে বিভিন্ন নদী, উপনদী ও শাখানদী। বর্ষাকালে যখন নদীর পানির উচ্চতা বৃদ্ধি পেতে থাকে, তখন নদী তীরবর্তী আশপাশের এলাকাগুলোয় বন্যার সৃষ্টি হয় এবং একইসঙ্গে নদী ভাঙনের কবলে পড়ে ফসলি মাঠসহ হেক্টর-হেক্টর জমি।

এতে করে রাজবাড়ী জেলার নদী তীরবর্তী এলাকাগুলোর মানুষ তাদের ভিটেমাটি হারিয়ে অসহায়-মানবেতর জীবনযাপন করতে বাধ্য হচ্ছে। আবার এই তীব্র নদী ভাঙনের ফলে রাজবাড়ী শহর রক্ষা বাঁধের নিরাপত্তা নিয়েও অনিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়েছে। অসহায় এসব মানুষের ভবিষ্যৎ নিয়ে দুশ্চিন্তা লাঘবের পাশাপাশি রাজবাড়ী জেলা শহররক্ষা বাঁধের উন্নয়নকল্পে যেখানে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা থাকা উচিত, সেখানে শুধু বর্ষা মৌসুমে অপরিকল্পিত ও স্বল্পস্থায়ী কার্যক্রম দেখা যায়। এ ছাড়া প্রশাসনের নাকের ডগায় বসে স্থানীয় প্রভাবশালীরা অবৈধভাবে নদী থেকে বালি উত্তোলন করছে।

ফলে নদীর স্বাভাবিক ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে, যার প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ফল হিসাবে রাজবাড়ী শহররক্ষা বাঁধ ঘিরে অনিশ্চয়তা সৃষ্টি ছাড়াও বর্ষা মৌসুমে অতি মাত্রায় বন্যা ও নদীভাঙন পরিলক্ষিত হচ্ছে। রাজবাড়ী শহররক্ষা বাঁধের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি এবারের বর্ষা মৌসুমে বন্যা ও নদী ভাঙনের ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনতে এই শুষ্ক মৌসুম থেকে যথাযথ ব্যবস্থা ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নিয়ে অগ্রসর হওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

রাজবাড়ী

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন