শিক্ষার্থীরা যা করেছে ইতিহাস হয়ে থাকবে

প্রকাশ : ০৮ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  মো. জাকারিয়া হোসেন

সড়কে জরুরি লেন। ছবি: সংগৃহীত

প্রতিটি মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি হল, সে কোথাও হারতে চায় না। কিন্তু দুটি ক্ষেত্রে হেরে গেলে মানুষ খুব গর্ববোধ করে। একটি হল, পিতা হিসেবে সন্তানের যোগ্যতার কাছে এবং অন্যটি হল, শিক্ষক হিসেবে শিক্ষার্থীর মেধা ও মননশীলতার কাছে।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের রাজপথে আন্দোলন শুধু বাংলাদেশেই নয়, বরং বহির্বিশ্বেও আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে। নিরাপদ সড়কের দাবি নতুন নয়। নিরাপদ সড়ক ও পরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়ন দেশবাসীর দীর্ঘদিনের মনের কথা।

সড়ক ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে নিয়োজিতরা এ ব্যাপারে কোনো কার্যকর ভূমিকা পালন করতে পারেনি। ফলে পরিবহন খাত ছিল অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনায় ভরা। এ ব্যাপারে যে আইন রয়েছে, তাও ছিল অনেকটা হাস্যকর। এমন পরিস্থিতিতে একটি দুর্ঘটনার সূত্র ধরে কোমলমতি ছাত্ররা যখন প্রতিবাদী হয়ে উঠল, তাদের সঙ্গে সহমত প্রকাশ করেছে দলমত নির্বিশেষে সব শ্রেণী ও পেশার মানুষ।

শিক্ষার্থীরা যা করেছে, তা ইতিহাস হয়ে থাকবে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষার ক্ষেত্রে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের অবস্থান মাঝে মধ্যে আমাদের বিব্রত করেছে বটে, তবে তাদের কাছ থেকে আমাদের অনেক শিক্ষণীয় বিষয়ও রয়েছে। শিক্ষার্থীদের সম্পর্কে কোনো মহলের বিরূপ মন্তব্য কাম্য নয়, বরং তাদের মধ্যে আমরা যে সম্ভাবনা দেখতে পেয়েছি; তা যদি কাজে লাগাতে পারি তাহলে সোনার বাংলা গড়ে তোলার ক্ষেত্রে তা সহায়ক হবে।

সহকারী অধ্যাপক, ইন্দুরকানী সরকারি কলেজ, পিরোজপুর