৬ মাসেও আমার মনোভাব বদলাবে না: ট্রাম্প
jugantor
৬ মাসেও আমার মনোভাব বদলাবে না: ট্রাম্প

  যুগান্তর ডেস্ক  

০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:১১:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

৬ মাসেও আমার মনোভাব বদলাবে না: ট্রাম্প

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তিনি কিছুতেই নির্বাচনে পরাজয় মানবেন না। ছয় মাসেও তার এই মনোভাবের পরিবর্তন হবে না।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পরাজয়ের পর রোববার ফক্স টিভিকে দেয়া প্রথম সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন। ৪৫ মিনিটের ওই সাক্ষাৎকার নির্বাচনে কারচুপির অসংখ্য অভিযোগ করলেও কোনো অকাট্য প্রমাণ বা যুক্তি দাঁড় করাতে ব্যর্থ হন এই রিপাবলিকান নেতা। সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেন ফক্স টিভির ম্যারিয়া বর্টিরোমো।

ভোট কারচুপির সপক্ষে কোনো প্রমাণ না দিয়েই তিনি আবারও বলেন, ‘এটি পাতানো নির্বাচন ছিল। এ নির্বাচন একেবারে জালিয়াতিপূর্ণ ছিল। আমরা খুব সহজে এ নির্বাচনে জয়লাভ করেছি।’

ট্রাম্প বিজয়ী প্রার্থীকে অভিনন্দন জানাবেন না উল্লেখ করে বলেন, তিনি জো বাইডেনের কাছে কখনো পরাজয় মেনে নেবেন না এবং ব্যাপক ভোট জালিয়াতির ব্যাপারে তার অভিযোগ প্রত্যাহার করবেন না।

‘ভোট জালিয়াতির দাবির বিষয়ে আমার মনোভাব পরিবর্তন করা একেবারে অসম্ভব। এ ব্যাপারে ছয় মাসের মধ্যেও আমার মনোভাব বদলাবে না।’

এদিকে ৩ নভেম্বরের নির্বাচন নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যেসব অভিযোগ করে আসছেন, তাতে দ্বিমত পোষণ করেছেন দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার। ডোনাল্ড ট্রাম্পের সময়ে নিয়োগ পাওয়া রাষ্ট্রের প্রধান এই আইন কর্মকর্তা বলেছেন, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট জালিয়াতির যেসব অভিযোগ তুলেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, তার সপক্ষে কোনো প্রমাণ খুঁজে পাওয়া যায়নি। ভোটের ফল পাল্টে দেয়ার মতো অনিয়ম হয়নি বলে তার মত।

ট্রাম্পের অভিযোগ নিয়ে ট্রাম্প ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা এমন জালিয়াতির প্রমাণ দেখতে পাইনি, যা নির্বাচনের ফল পাল্টে দিতে পারে। পরাজয় স্বীকার না করা ডোনাল্ড ট্রাম্পের জন্য তার এ অবস্থানকে বড় ধাক্কা বলে মনে করা হচ্ছে। তবে উইলিয়াম বারের এই বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছে ট্রাম্প শিবির।

৩ নির্বাচনের ভোটে ডেমোক্র্যাট পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন পেয়েছেন ৩০৬ ইলেকটোরাল কলেজ ভোট। রিপাবলিকান ডোনাল্ড ট্রাম্প পেয়েছেন ২৩২টি। ট্রাম্পের চেয়ে ৬২ লাখ পপুলার ভোট বেশি বাইডেনের। এ নির্বাচন এখনও মেনে নেননি ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি একের পর এক হুমকি দিয়ে আসছেন।

নির্বাচনে জালিয়াতির অজুহাত তুলে দেশের আদালতে একের পর এক মামলা করলেও আদালত এসব মামলা নাকচ করে দেন। সর্বশেষ পেনসিলভানিয়ার সুপ্রিমকোর্ট নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ তুলে যুক্তিহীন মামলা করায় তিরস্কার করে তা নাকচ করে দেন।

৬ মাসেও আমার মনোভাব বদলাবে না: ট্রাম্প

 যুগান্তর ডেস্ক 
০২ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
৬ মাসেও আমার মনোভাব বদলাবে না: ট্রাম্প
ফাইল ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তিনি কিছুতেই নির্বাচনে পরাজয় মানবেন না। ছয় মাসেও তার এই মনোভাবের পরিবর্তন হবে না। 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পরাজয়ের পর রোববার ফক্স টিভিকে দেয়া প্রথম সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন। ৪৫ মিনিটের ওই সাক্ষাৎকার নির্বাচনে কারচুপির অসংখ্য অভিযোগ করলেও কোনো অকাট্য প্রমাণ বা যুক্তি দাঁড় করাতে ব্যর্থ হন এই রিপাবলিকান নেতা।  সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেন ফক্স টিভির ম্যারিয়া বর্টিরোমো।

ভোট কারচুপির সপক্ষে কোনো প্রমাণ না দিয়েই তিনি আবারও বলেন, ‘এটি পাতানো নির্বাচন ছিল। এ নির্বাচন একেবারে জালিয়াতিপূর্ণ ছিল। আমরা খুব সহজে এ নির্বাচনে জয়লাভ করেছি।’

ট্রাম্প বিজয়ী প্রার্থীকে অভিনন্দন জানাবেন না উল্লেখ করে বলেন, তিনি জো বাইডেনের কাছে কখনো পরাজয় মেনে নেবেন না এবং ব্যাপক ভোট জালিয়াতির ব্যাপারে তার অভিযোগ প্রত্যাহার করবেন না। 

 ‘ভোট জালিয়াতির দাবির বিষয়ে আমার মনোভাব পরিবর্তন করা একেবারে অসম্ভব। এ ব্যাপারে ছয় মাসের মধ্যেও আমার মনোভাব বদলাবে না।’

এদিকে ৩ নভেম্বরের নির্বাচন নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যেসব অভিযোগ করে আসছেন, তাতে দ্বিমত পোষণ করেছেন দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বার। ডোনাল্ড ট্রাম্পের সময়ে নিয়োগ পাওয়া রাষ্ট্রের প্রধান এই আইন কর্মকর্তা বলেছেন, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট জালিয়াতির যেসব অভিযোগ তুলেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, তার সপক্ষে কোনো প্রমাণ খুঁজে পাওয়া যায়নি।  ভোটের ফল পাল্টে দেয়ার মতো অনিয়ম হয়নি বলে তার মত। 

ট্রাম্পের অভিযোগ নিয়ে ট্রাম্প ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, এখন পর্যন্ত আমরা এমন জালিয়াতির প্রমাণ দেখতে পাইনি, যা নির্বাচনের ফল পাল্টে দিতে পারে। পরাজয় স্বীকার না করা ডোনাল্ড ট্রাম্পের জন্য তার এ অবস্থানকে বড় ধাক্কা বলে মনে করা হচ্ছে। তবে উইলিয়াম বারের এই বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছে ট্রাম্প শিবির। 

৩ নির্বাচনের ভোটে ডেমোক্র্যাট পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন পেয়েছেন ৩০৬ ইলেকটোরাল কলেজ ভোট। রিপাবলিকান ডোনাল্ড ট্রাম্প পেয়েছেন ২৩২টি। ট্রাম্পের চেয়ে ৬২ লাখ পপুলার ভোট বেশি বাইডেনের। এ নির্বাচন এখনও মেনে নেননি ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি একের পর এক হুমকি দিয়ে আসছেন। 

নির্বাচনে জালিয়াতির অজুহাত তুলে দেশের আদালতে একের পর এক মামলা করলেও আদালত এসব মামলা নাকচ করে দেন। সর্বশেষ পেনসিলভানিয়ার সুপ্রিমকোর্ট নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ তুলে যুক্তিহীন মামলা করায় তিরস্কার করে তা নাকচ করে দেন।
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন-২০২০