দৃষ্টিহীন বন্ধুকে যেভাবে পথ দেখাচ্ছে হাতি (ভিডিও)
jugantor
দৃষ্টিহীন বন্ধুকে যেভাবে পথ দেখাচ্ছে হাতি (ভিডিও)

  অনলাইন ডেস্ক  

১৮ জুলাই ২০২১, ০১:৫১:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

মানুষের সঙ্গে হাতি সখ্যতা গড়ে ওঠার অসংখ্য নজির আছে। নিজেদের মহানুভবতা নিয়ে মানুষের মন জয় করতে ওস্তাদ স্থলের সবচেয়ে বড় এই প্রাণীটি। সেই মহানুভবতাই যেন ফের প্রমাণ করলো থাইল্যান্ডের এলিফ্যান্ট ন্যাশনাল পার্কের এক হাতি। দৃষ্টিহীন এক হাতিকে খাবারের কাছে পৌঁছে দিয়ে নেটমাধ্যমে আলোড়ন তুলেছে মহানুভব হাতিটি
ন্যাশনাল পার্ক ও সেভ এলিফ্যান্ট ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা লেক চাইলার্ট ইনস্টাগ্রামে ওই ঘটনার ভিডিও আপলোড করেছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, একটা হাতি অন্য একটা হাতিকে খাবারের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে। ভিডিওর ক্যাপশনে বিষয়টি খোলাসা করেছেন চাইলার্ট।

ক্যাপশনে লিখেছেন, ছানা নামের নারী হাতিটি প্লাই থং নামের দৃষ্টিহীন হাতিকে খাবারের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে। হাতিটির এভাবে একে অন্যের দিকে খেয়াল রাখার বিষয়টি চাইলার্টকে প্রতিদিনই হাতির সুন্দর মনের দিকটি মনে করিয়ে দেয়।

চাইলার্টের মতে, যেভাবে হাতিগুলো একে অপরের খেয়াল রাখে এবং শর্তহীনভাবে ভালোবাসে তা মানুষের জন্য শিক্ষণীয় হতে পারে।
এদিকে ওই ভিডিওটি নেটমাধ্যমে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। বিশাল প্রাণীটির একে অপরকে দেখে রাখার বিষয়টি মানুষের মন জিতে নিয়েছে।
অনেকে থং কীভাবে দৃষ্টিশিক্তি হারিয়েছে তা জানতে চেয়েছে। উত্তরে চাইলার্ট লিখেছেন, একটা রাইডিং ক্যাম্পে কাজ করত থং। সেখান থেকেই সে একটু একটু করে দৃষ্টিশক্তি হারাতে শুরু করে। এক সময় পুরোপুরি অন্ধ হয়ে যায় থং।

ভিডিওটি দেখে ছানার সুন্দর মনের প্রশংসা করেছেন অনেকে। এক নেটিজেন লিখেছেন, দারুন! অবিশ্বাস্য! প্রতিদিন আমি তাদের বুদ্ধি, মমত্ববোধ এবং একে অপরের যত্ন নিতে দেখে অবাক হয়ে যাই।আরেকজন লিখেছেন, প্রাণীদের কাছ থেকে মানুষের অনেক কিছু শেখার আছে।

দৃষ্টিহীন বন্ধুকে যেভাবে পথ দেখাচ্ছে হাতি (ভিডিও)

 অনলাইন ডেস্ক 
১৮ জুলাই ২০২১, ০১:৫১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মানুষের সঙ্গে হাতি সখ্যতা গড়ে ওঠার অসংখ্য নজির আছে। নিজেদের মহানুভবতা নিয়ে মানুষের মন জয় করতে ওস্তাদ স্থলের সবচেয়ে বড় এই প্রাণীটি। সেই মহানুভবতাই যেন ফের প্রমাণ করলো থাইল্যান্ডের এলিফ্যান্ট ন্যাশনাল পার্কের এক হাতি। দৃষ্টিহীন এক হাতিকে খাবারের কাছে পৌঁছে দিয়ে নেটমাধ্যমে আলোড়ন তুলেছে মহানুভব হাতিটি
ন্যাশনাল পার্ক ও সেভ এলিফ্যান্ট ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা লেক চাইলার্ট ইনস্টাগ্রামে ওই ঘটনার ভিডিও আপলোড করেছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, একটা হাতি অন্য একটা হাতিকে খাবারের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে। ভিডিওর ক্যাপশনে বিষয়টি খোলাসা করেছেন চাইলার্ট।

ক্যাপশনে লিখেছেন, ছানা নামের নারী হাতিটি প্লাই থং নামের দৃষ্টিহীন হাতিকে খাবারের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে। হাতিটির এভাবে একে অন্যের দিকে খেয়াল রাখার বিষয়টি চাইলার্টকে প্রতিদিনই হাতির সুন্দর মনের দিকটি মনে করিয়ে দেয়। 

চাইলার্টের মতে, যেভাবে হাতিগুলো একে অপরের খেয়াল রাখে এবং শর্তহীনভাবে ভালোবাসে তা মানুষের জন্য শিক্ষণীয় হতে পারে।
এদিকে ওই ভিডিওটি নেটমাধ্যমে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। বিশাল প্রাণীটির একে অপরকে দেখে রাখার বিষয়টি মানুষের মন জিতে নিয়েছে।
অনেকে থং কীভাবে দৃষ্টিশিক্তি হারিয়েছে তা জানতে চেয়েছে। উত্তরে চাইলার্ট লিখেছেন, একটা রাইডিং ক্যাম্পে কাজ করত থং। সেখান থেকেই সে একটু একটু করে দৃষ্টিশক্তি হারাতে শুরু করে। এক সময় পুরোপুরি অন্ধ হয়ে যায় থং।

ভিডিওটি দেখে ছানার সুন্দর মনের প্রশংসা করেছেন অনেকে। এক নেটিজেন লিখেছেন, দারুন! অবিশ্বাস্য! প্রতিদিন আমি তাদের বুদ্ধি, মমত্ববোধ এবং একে অপরের যত্ন নিতে দেখে অবাক হয়ে যাই। আরেকজন লিখেছেন, প্রাণীদের কাছ থেকে মানুষের অনেক কিছু শেখার আছে।
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন