কুমিরের পেটে মিলল এক মাস আগে নিখোঁজ বৃদ্ধের দেহাবশেষ
jugantor
কুমিরের পেটে মিলল এক মাস আগে নিখোঁজ বৃদ্ধের দেহাবশেষ

  অনলাইন ডেস্ক  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৩১:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিরের পেটে মিলল এক মাস আগে নিখোঁজ বৃদ্ধের দেহাবশেষ

বিশাল এক কুমিরের পেট থেকে উদ্ধার করা হয়েছে প্রায় মাসখানেক আগে নিখোঁজ এক ব্যক্তির দেহাবশেষ।

শনিবার সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, টিমোথি স্যাটারলি সিনিয়রকে (৭১) গত ৩০ আগস্ট ঘূর্ণিঝড় আইডার সময় বাড়ির সামনে থেকে একটা কুমির আক্রমণ করে বলে তার স্ত্রী এর আগে জানিয়েছিলেন।

টিমোথিকে কুমিরটি আক্রমণ করার ঘটনা দেখে তার স্ত্রী সাহায্যের জন্য যায়। ফিরে এসে স্বামীর কোনো অস্তিত্বই পাননি তিনি।

টিমোথির নিখোঁজের জায়গা থেকেই ওই কুমিরের খোঁজ পাওয়া গেছে বলে সেইন্ট টামানি প্যারিস শেরিফের কার্যালয় গত সপ্তাহে জানিয়েছিল।

ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক ড. চার্লস প্রেস্টন জানান, লুইজিয়ানার বন্যপ্রাণী ও মৎস্য বিভাগ ওই কুমিরকে ধরে আনে। পরে কুমিরের পেট থেকে দেহাবশেষ উদ্ধার করা হয়।
কুমিরের পেট থেকে পাওয়া দেহাবশেষের ডিএনএ টিমোথির সন্তানদের সঙ্গে মিলেছে বলে জানিয়েছেন ড. প্রেস্টন।

তিনি বলেন, টিমোথির নিখোঁজের স্থান থেকেই ওই কুমিরকে ধরা হয়েছে। ডিএনএনও ম্যাচ করেছে। তাই আমরা টিমোথির মৃত্যু সনদ দিয়ে দিচ্ছি।

কুমিরের পেটে মিলল এক মাস আগে নিখোঁজ বৃদ্ধের দেহাবশেষ

 অনলাইন ডেস্ক 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:৩১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কুমিরের পেটে মিলল এক মাস আগে নিখোঁজ বৃদ্ধের দেহাবশেষ
প্রতীকী ছবি

বিশাল এক কুমিরের পেট থেকে উদ্ধার করা হয়েছে প্রায় মাসখানেক আগে নিখোঁজ এক ব্যক্তির দেহাবশেষ।

শনিবার সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, টিমোথি স্যাটারলি সিনিয়রকে (৭১)  গত ৩০ আগস্ট ঘূর্ণিঝড় আইডার সময় বাড়ির সামনে থেকে একটা কুমির আক্রমণ করে বলে তার স্ত্রী এর আগে জানিয়েছিলেন। 

টিমোথিকে কুমিরটি আক্রমণ করার ঘটনা দেখে তার স্ত্রী সাহায্যের জন্য যায়। ফিরে এসে স্বামীর কোনো অস্তিত্বই পাননি তিনি। 

টিমোথির নিখোঁজের জায়গা থেকেই ওই কুমিরের খোঁজ পাওয়া গেছে বলে সেইন্ট টামানি প্যারিস শেরিফের কার্যালয় গত সপ্তাহে জানিয়েছিল। 

ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক ড. চার্লস প্রেস্টন জানান, লুইজিয়ানার বন্যপ্রাণী ও মৎস্য বিভাগ ওই কুমিরকে ধরে আনে। পরে কুমিরের পেট থেকে দেহাবশেষ উদ্ধার করা হয়।
কুমিরের পেট থেকে পাওয়া দেহাবশেষের ডিএনএ টিমোথির সন্তানদের সঙ্গে মিলেছে বলে জানিয়েছেন ড. প্রেস্টন।

তিনি বলেন, টিমোথির নিখোঁজের স্থান থেকেই ওই কুমিরকে ধরা হয়েছে। ডিএনএনও ম্যাচ করেছে। তাই আমরা টিমোথির মৃত্যু সনদ দিয়ে দিচ্ছি। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন