আইন করে গাড়ির হর্নের বদলে তবলা-বেহালা-বাঁশির সুর!
jugantor
আইন করে গাড়ির হর্নের বদলে তবলা-বেহালা-বাঁশির সুর!

  যুগান্তর ডেস্ক  

০৭ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৪২:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

গাড়ির হর্নের কর্কশ শব্দে বিরক্ত হন না, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না। তাই রীতিমতো আইন পাস করে গাড়ির হর্নের শব্দের বদলে ঐতিহ্যবাহী ভারতীয় বাদ্য যন্ত্রের শব্দ ব্যবহার করতে যাচ্ছে ভারত।

ভারতের কেন্দ্রীয় পরিবহণমন্ত্রী নীতিন গড়কড়ি জানান, শিগগিরিই এ সংক্রান্ত একটি আইন পাস করতে যাচ্ছেন তিনি। হর্নের বদলে বাঁশি, তবলা, বেহালা, মাউথ অর্গান আর হারমোনিয়ানের মতো যন্ত্রের শব্দ ব্যবহারের কথা ভাবছেন মন্ত্রী।

এমনকি অ্যাম্বুলেন্সের সাইরেনের শব্দের বদলে মনোরম সুর নিয়ে ব্যবহার করার বিষয়টিও বিবেচনা করা হচ্ছে ভারতের জাতীয় সম্প্রচার মাধ্যম অল ইন্ডিয়া রেডিওকে জানিয়েছেন নীতিন।

ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির এই আইনপ্রণেতা বলেন, মন্ত্রীরা যখন সফর করে তখন ফুল ভলিউমে সাইরেনের শব্দ শুনে তার ‘বিরক্ত’ লাগে।

এ ব্যাপারে তিনি বলেন, আমি এই সাইরেনের আওয়াজ বন্ধ করতে চাই। অ্যাম্বুলেন্স আর পুলিশের গাড়িকে যে সাইরেন ব্যবহার করা হয় তা আমি পর্যবেক্ষণ করছি।
সাইরেনের আওয়াজ কানের জন্য ক্ষতিকর বলেও জানান মন্ত্রী।

এদিকে, প্রস্তাবিত এই আইন পাস হলে তার কেমন প্রভাব পরতে পারে তা নিয়ে জোর জল্পনা শুরু করেছেন নেটিজেনরা।

এই আইন পাসের পর যানজট গানের কনসার্টে বদলে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন অনেকে।

আইন করে গাড়ির হর্নের বদলে তবলা-বেহালা-বাঁশির সুর!

 যুগান্তর ডেস্ক 
০৭ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৪২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাড়ির হর্নের কর্কশ শব্দে বিরক্ত হন না, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না। তাই রীতিমতো আইন পাস করে গাড়ির হর্নের শব্দের বদলে ঐতিহ্যবাহী ভারতীয় বাদ্য যন্ত্রের শব্দ ব্যবহার করতে যাচ্ছে ভারত।

ভারতের কেন্দ্রীয় পরিবহণমন্ত্রী নীতিন গড়কড়ি জানান, শিগগিরিই এ সংক্রান্ত একটি আইন পাস করতে যাচ্ছেন তিনি। হর্নের বদলে বাঁশি, তবলা, বেহালা, মাউথ অর্গান আর হারমোনিয়ানের মতো যন্ত্রের শব্দ ব্যবহারের কথা ভাবছেন মন্ত্রী।

এমনকি অ্যাম্বুলেন্সের সাইরেনের শব্দের বদলে মনোরম সুর নিয়ে ব্যবহার করার বিষয়টিও বিবেচনা করা হচ্ছে ভারতের জাতীয় সম্প্রচার মাধ্যম অল ইন্ডিয়া রেডিওকে জানিয়েছেন নীতিন।

ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপির এই আইনপ্রণেতা বলেন, মন্ত্রীরা যখন সফর করে তখন ফুল ভলিউমে সাইরেনের শব্দ শুনে তার ‘বিরক্ত’ লাগে।

এ ব্যাপারে তিনি বলেন, আমি এই সাইরেনের আওয়াজ বন্ধ করতে চাই। অ্যাম্বুলেন্স আর পুলিশের গাড়িকে যে সাইরেন ব্যবহার করা হয় তা আমি পর্যবেক্ষণ করছি।
সাইরেনের আওয়াজ কানের জন্য ক্ষতিকর বলেও জানান মন্ত্রী।

এদিকে, প্রস্তাবিত এই আইন পাস হলে তার কেমন প্রভাব পরতে পারে তা নিয়ে জোর জল্পনা শুরু করেছেন নেটিজেনরা।

এই আইন পাসের পর যানজট গানের কনসার্টে বদলে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন অনেকে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন