৩৬০ ডিগ্রি ঘুরবে এমন বাড়ি স্ত্রীকে উপহার দিলেন ৭২ বছরের স্বামী
jugantor
৩৬০ ডিগ্রি ঘুরবে এমন বাড়ি স্ত্রীকে উপহার দিলেন ৭২ বছরের স্বামী

  অনলাইন ডেস্ক  

১৩ অক্টোবর ২০২১, ১৬:০৭:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

৩৬০ ডিগ্রি ঘুরবে এমন বাড়ি স্ত্রীকে উপহার দিলেন ৭২ বছরের স্বামী

নানা ধরনের উপহার দিয়ে স্ত্রীর মন জয় করার চেষ্টা স্বামীরা করেন অনবরত। এবার স্ত্রীকে ৭২ বছর বয়সি স্বামী বসনিয়ার ভোজিন কুসিক এমন উপহার দিলেন যা অবাক করেছে সবাইকে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স ভোজিন কুসিকের এ উপহার নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

কুসিক বসনিয়ার সার্বাক শহরে স্ত্রীর জন্য বাড়িটি বানিয়েছেন। সবুজ রঙের ওই বাড়ির ছাদ লাল রঙের। বাড়িটি ৩৬০ ডিগ্রি কোণে ঘুরতে পারে।

ভোজিন কুসিক বলেন, আমি তার অভিযোগে ক্লান্ত হয়ে পড়েছি। আমাদের পারিবারিক বাড়ি বারবার সংস্কার করেছি। পরে আমি বললাম, আমি তোমাকে একটি ঘোরানো বাড়ি বানিয়ে দেব। যাতে তুমি তোমার ইচ্ছামতো ঘুরতে পারো।

বাড়িটি বানানোর কারণ সম্পর্কে কুসিক জানান, স্ত্রীর ইচ্ছাপূরণের জন্যই এ ধরনের বাড়ি বানিয়েছি।

কুসিকের স্ত্রীর চাওয়া বাড়িতে বসেই তিনি চারিদিকের শোভা উপভোগ করবেন। এরপর তিনি নিজ উদ্যোগে এ বাড়ি তৈরি করে স্ত্রীকে উপহার দিলেন।

তবে উপহার পাওয়ার পর এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি কুসিকের স্ত্রী।

কুসিক বলেন, এটি কোনো উদ্ভাবন নয়। এটি তৈরির জন্য শুধুমাত্র ইচ্ছা ও জ্ঞানের প্রয়োজন। আমার প্রচুর সময় এবং জ্ঞান ছিল।

হৃদরোগের কারণে হাসপাতালে থাকার সময় ছাড়া প্রকল্পটি শেষ করতে ছয় বছর সময় লেগেছে বলে জানান কুসিক।

৩৬০ ডিগ্রি ঘুরবে এমন বাড়ি স্ত্রীকে উপহার দিলেন ৭২ বছরের স্বামী

 অনলাইন ডেস্ক 
১৩ অক্টোবর ২০২১, ০৪:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
৩৬০ ডিগ্রি ঘুরবে এমন বাড়ি স্ত্রীকে উপহার দিলেন ৭২ বছরের স্বামী
ছবি: সংগৃহীত

নানা ধরনের উপহার দিয়ে স্ত্রীর মন জয় করার চেষ্টা স্বামীরা করেন অনবরত।  এবার স্ত্রীকে ৭২ বছর বয়সি স্বামী বসনিয়ার ভোজিন কুসিক এমন উপহার দিলেন যা অবাক করেছে সবাইকে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স ভোজিন কুসিকের এ উপহার নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

কুসিক বসনিয়ার সার্বাক শহরে স্ত্রীর জন্য বাড়িটি বানিয়েছেন। সবুজ রঙের ওই বাড়ির ছাদ লাল রঙের। বাড়িটি ৩৬০ ডিগ্রি কোণে ঘুরতে পারে।

ভোজিন কুসিক বলেন, আমি তার অভিযোগে ক্লান্ত হয়ে পড়েছি।  আমাদের পারিবারিক বাড়ি বারবার সংস্কার করেছি। পরে আমি বললাম, আমি তোমাকে একটি ঘোরানো বাড়ি বানিয়ে দেব। যাতে তুমি তোমার ইচ্ছামতো ঘুরতে পারো।

বাড়িটি বানানোর কারণ সম্পর্কে কুসিক জানান, স্ত্রীর ইচ্ছাপূরণের জন্যই এ ধরনের বাড়ি বানিয়েছি। 

কুসিকের স্ত্রীর চাওয়া বাড়িতে বসেই তিনি চারিদিকের শোভা উপভোগ করবেন। এরপর তিনি নিজ উদ্যোগে এ বাড়ি তৈরি করে স্ত্রীকে উপহার দিলেন।

তবে উপহার পাওয়ার পর এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি কুসিকের স্ত্রী।

কুসিক বলেন, এটি কোনো উদ্ভাবন নয়। এটি তৈরির জন্য শুধুমাত্র ইচ্ছা ও জ্ঞানের প্রয়োজন। আমার প্রচুর সময় এবং জ্ঞান ছিল।

হৃদরোগের কারণে হাসপাতালে থাকার সময় ছাড়া প্রকল্পটি শেষ করতে ছয় বছর সময় লেগেছে বলে জানান কুসিক।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন