হাউ‌ডি মো‌দি থে‌কে নম‌স্তে ট্রাম্প

  মাসুদ ক‌রিম ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ২২:০৬:১৪ | অনলাইন সংস্করণ

‌হাউ‌ডি টেক্সা‌সের এক‌টি প্রচ‌লিত আঞ্চ‌লিক শব্দ। ওই অঞ্চ‌লে কা‌রো স‌ঙ্গে দেখা হলে এ‌কে অন্যকে হাউ‌ডি ব‌লে শু‌ভেচ্ছা বি‌নিময় ক‌রেন। হাউ‌ডি কথাটার মা‌নে হল "হাউ ডু ইউ ডু" । বাংলায় ‘কেমন আছেন’ কিংবা ‘কী খবর’ !

ভার‌তের প্রধানমন্ত্রী ন‌রেন্দ্র মো‌দি ২০১৯ সা‌লের ২২ সে‌প্টেম্বর টেক্সা‌সের হিউ‌স্টো‌নে ৫০ হাজার লো‌কের সমা‌বে‌শে ভাষণ দেন। সমা‌বে‌শে উপ‌স্থিত লো‌কেরা ছি‌লেন ভারতীয় বং‌শোদ্ভূত যুক্তরা‌ষ্ট্রের নাগ‌রিক। ওই সমা‌বে‌শে উপ‌স্থিত ছি‌লেন মা‌র্কিন প্রে‌সি‌ডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ট্রাম্প নি‌জে‌কে মো‌দির খুব ঘ‌নিষ্ঠ বন্ধু ব‌লে প‌রিচয় দি‌য়ে ব‌লেন, এমন বন্ধু মোদি আর কাউ‌কে পা‌বেন না ! জবা‌বে মো‌দি আ‌রেকটু বা‌ড়ি‌য়ে ব‌লেন, "আরেকবার দরকার ট্রা‌ম্পের সরকার" । মো‌দির নি‌জের শ্লোগা‌নের স‌ঙ্গে মিল রেখে এ শ্লোগান । মো‌দির শ্লোগান ছিল, ‘আরেকবার দরকার মো‌দির সরকার"

একই ধর‌নের সমা‌বেশ এবার ট্রা‌ম্পের ভারত সফ‌রেও হ‌য়ে‌ছে । মো‌দির নি‌জের রাজ্য গুজরা‌টের রাজধানী আহমদাবা‌দের বল্লভ ভাই প্যা‌টেল স্টে‌ডিয়া‌মে এক লাখ লো‌কের এ সমা‌বে‌শের শি‌রোনাম "নম‌স্তে ট্রাম্প"। হি‌ন্দি নম‌স্তে কথার মা‌নে "নমস্কার", "সালাম" ইত্যা‌দি। এ‌তে ট্রাম্প ও মো‌দি নি‌জে‌দের দো‌স্তি প্রকাশ ক‌রেন করমর্দন ক‌রে । পরস্পর‌কে জ‌ড়ি‌য়ে ধ‌রে নি‌জে‌দের উষ্ণতা প্রকাশ ক‌রেন।

যুক্তরা‌ষ্ট্রের প্রে‌সি‌ডেন্ট বারাক ওবামা ভারত সফ‌রের সম‌য়েও "নম‌স্তে ওবামা" শি‌রোনা‌মে তা‌কে স্বাগত জা‌নি‌য়ে‌ছিল ভারত।

যুক্তরা‌ষ্ট্রে ভারতীয় বং‌শোদ্ভূত লো‌কের সংখ্যা ৪৫ লাখ । চল‌তি ২০২০ সা‌লে যুক্তরা‌ষ্ট্রের ভো‌টে ভারত বং‌শোদ্ভূত ভোটার‌দের ভোট পে‌তে ট্রা‌ম্পের এ সফর বলে ম‌নে হ‌চ্ছে। ভারতীয়রা সাধারণত ডেমোক্রেটদের ভোট দি‌য়ে থা‌কে। ট্রাম্পের স‌ঙ্গে এমন নি‌বিড় আা‌লিঙ্গ‌নে বন্ধুত্ব দে‌খে ভারতীয়‌দের ভোট ট্রাম্প পাবেন এমন আশা তার র‌য়ে‌ছে।

ট্রাম্প ও মো‌দির রাজনী‌তির ধারা একই ধাঁ‌চের। ‌বি‌শ্বের বৃহত্তম গণত‌ন্ত্রের দেশ ভারত এবং প্রাচীনতম গণত‌ন্ত্রের দেশ যুক্তরা‌ষ্ট্রে তারা শীর্ষ নেতার আস‌নে অধি‌ষ্ঠিত। তারা লোকরঞ্জনতন্ত্রের গণত‌ন্ত্রে বিশ্বাসী। দুই নেতার রাজনী‌তি‌তে সাদৃশ্য হল উভ‌য়ে রাজনী‌তির হা‌তিয়ার ধর্ম, বর্ণ, কট্টর আত্ম‌কেন্দ্রীকতা, উগ্র জাতীয়তাবা‌দি । উভ‌য়ে ব্যবসা-বা‌ণিজ্য‌কে প্রাধান্য দেন। উভ‌য়ে আবার টুইট করায় চ্যা‌ম্পিয়ন। এ কার‌ণে তা‌দের স্টাই‌লে এত মিল। তাই তারা উভ‌য়ে একে অন্য‌কে ভো‌টে বিজয়ী দেখ‌তে চান। ট্রা‌ম্পের ভারত সফরের অন্যতম লক্ষ্য এটা।

বা‌ণি‌জ্যিক স্বা‌র্থে উভ‌য়ে অনড়; তাই বা‌ণিজ্য চু‌ক্তি হল না। যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত একে অ‌ন্যের প‌ণ্যের ওপর শুল্ক ব‌সি‌য়ে‌ছে। ২০১৯ সা‌লে ভারত‌কে দেয়া জিএসপি সুবিধাপ্রত্যাহার ক‌রে‌ছে যুক্তরাষ্ট্র। বা‌ণিজ্য ক্ষে‌ত্রে এ সফ‌রে কোনও অগ্রগ‌তি হয়‌নি। ৩০০ কো‌টি ডলা‌রের প্র‌তিরক্ষা চু‌ক্তি সই ক‌রে‌ছে ভারত- যুক্তরাষ্ট্র। চু‌ক্তির অধীনে ভার‌তের কা‌ছে সমরাস্ত্র বি‌ক্রি কর‌বে যুক্তরাষ্ট্র।

সফরকা‌লে নাগ‌রিকত্ব সং‌শোধনী আইন ও এনআর‌সি নি‌য়ে তেমন কিছু ব‌লেন‌নি ট্রাম্প। ত‌বে মো‌দি‌কে স্মরণ ক‌রি‌য়ে‌ছেন যে, ভারত বৈ‌চিত্র্যপূর্ণ দেশ। ই‌ন্দো প্যাসি‌ফিক স্ট্র্যা‌টে‌জির অধী‌নে চীন‌কে কাউন্টার দেয়া ট্রা‌ম্পের এ সফ‌রের অন্যতম উ‌দ্দেশ্য হ‌তে পা‌রে। প্র‌তিরক্ষা চু‌ক্তি তার প্র‌তিফলন। ত‌বে ভো‌টের আগে সফর‌কে ভো‌টের হিসা‌বের বাই‌রে রাখা যায় না। সফ‌রের নগদ লাভের হিসা‌বে ট্রাম্প কি‌ঞ্চিৎ এ‌গি‌য়ে থাক‌লেও ‌মো‌দিও কৌশলগত স্বার্থ হা‌সি‌লে সফর‌টি থে‌কে ‌কিছু পে‌য়ে‌ছেন ব‌লে তু‌ষ্টির হিসাব মেলা‌তে পা‌রেন।

লেখক: মাসুদ করিম, চিফ রিপোর্টার, দৈনিক যুগান্তর

ঘটনাপ্রবাহ : ট্রাম্পের ভারত সফর

আরও
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত