বঙ্গবন্ধুকে জানতে অন্যরকম এক মোবাইল অ্যাপের গল্প
jugantor
কে হবে বঙ্গবন্ধু গ্র্যান্ডমাস্টার
বঙ্গবন্ধুকে জানতে অন্যরকম এক মোবাইল অ্যাপের গল্প

  এম. মিজানুর রহমান সোহেল  

১৪ অক্টোবর ২০২০, ১৬:১৮:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বঙ্গবন্ধু গ্র্যান্ডমাস্টার লোগো

ফেসবুকের হোমপেজ স্ক্রল করতে করতে হঠাৎ চোখ আটকে গেল একটি ভিডিও ফুটেজে। ফেসবুকে প্রায়ই এরকম অনেক ভিডিওই চোখে পড়ে। কিন্তু ‘বঙ্গবন্ধু গ্র্যান্ডমাস্টার-উদ্বোধনী অনুষ্ঠান’ শিরোনামের ভিডিও ক্লিপটির শুরুটাই ছিল অন্যরকম, যা আমাকে পুরো ভিডিও দেখতে আগ্রহী করে তুলল। ‘কী হচ্ছে দেখি’ বলে ভিডিওতে ক্লিক করলাম। প্রায় ৩২ মিনিটের ভিডিওটি এক বসাতেই পুরোটা দেখে নিলাম।

ভিডিও দেখা শেষে জানলাম আয়োজনটা হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে। আয়োজনের মুগ্ধতা থেকে আয়োজক সম্পর্কে জানার আগ্রহ জন্মাল। তা জানতে গিয়ে আরও একটু অবাক হলাম। উদ্যোগটি একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের। যেখানে দেশের ব্যাংক কিংবা ব্যাংক-বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো নিজেদের ব্র্যান্ডিং নিয়েই ব্যস্ত, সেখানে আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের এই উদ্যোগটি যে সত্যি একটি ভিন্নরকম ও অসাধারণ আয়োজন ছিল, তা বলতেই হয়।

ভিডিওটি ছিল আসলে বঙ্গবন্ধুর জীবনীভিত্তিক একটি কুইজ অ্যাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের, যার নাম ‘বঙ্গবন্ধু গ্র্যান্ডমাস্টার’। অ্যাপটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানার আগ্রহ থেকে অ্যাপটির ওয়েবসাইটে গেলাম। ওয়েবসাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্য থেকে জানতে পারলাম, এটি এমন একটি কুইজভিত্তিক অ্যাপ যার মাধ্যমে দেশের তরুণ প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু’র জীবন ও আদর্শের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়া এবং তার আদর্শে নিজেদের জীবন গড়তে উদ্দীপ্ত করা। সত্যি কী চমৎকার একটি ভাবনা- তরুণ প্রজন্ম খেলতে খেলতে, কুইজে কুইজে বঙ্গবন্ধুকে জানবে এবং তার আদর্শে নিজেদের জীবন গড়বে।

আমাকে আরও একটি বিষয় দারুণভাবে নাড়া দিয়েছে। আর তা হলো অনলাইনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ভিন্নরকম আয়োজন। কেন আমার কাছে তা ভিন্নভাবে চমৎকার মনে হলো তা বলছি। দেশে মহামারী শুরু হওয়ার পর থেকে আমরা বিভিন্ন অনুষ্ঠান বা অ্যাপের উদ্বোধনী হতে দেখেছি। সেটা হয় ওয়েবিনার না হয় উদ্বোধনী পোস্ট দিয়ে কিংবা নতুন ওয়েবসাইট চালু করার মাধ্যমে। কিন্তু আইপিডিসির আয়োজনটা যদিও অনলাইনভিত্তিক, কিন্তু সাজানো হয়েছে ভিডিওচিত্র ধারণ করে। তাও আবার ভিন্ন ভিন্ন জায়গা থেকে, যেগুলোর সমন্বয় করা হয়েছে একেবারে নিখুঁতভাবে।

এবার কুইজে কুইজে বঙ্গবন্ধুকে জানার যে মাধ্যম অর্থাৎ অ্যাপ সম্পর্কে জানার পালা। অ্যাপের ওয়েব ভার্সনের পাশাপাশি অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস ভার্সন দুটোও অ্যাভেইলেবল। অ্যাপটিতে প্রতিটি ধাপই খুব সহজ এবং সুন্দরভাবে সাজানো। বিশেষভাবে একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় অ্যাপটিতে সম্পূর্ণরূপে বাংলা ভাষা ব্যবহার করা হয়েছে। কুইজের জন্য প্রাথমিক মাস্টার, জুনিয়র মাস্টার, সিনিয়র মাস্টার এবং গ্র্যান্ডমাস্টার চারটি মেগা লেভেল রাখা হয়েছে।

কুইজে অংশগ্রহণকারীদের প্রথম দুটি পর্যায়ে তিনটি করে ছয়টি লেভেল, পরের দুটিতে দুইটি করে চারটি লেভেল, অর্থাৎ মোট ১০টি লেভেলে খেলতে হবে। একটি লেভেল থেকে পরের লেভেলের প্রশ্ন কঠিনতর হতে থাকবে ক্রমান্বয়ে। অ্যাপে প্রবেশ করে নাম, ফোন নাম্বার, ইমেইল এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। কুইজ খেলে প্রত্যেকটি পর্যায় সফলভাবে সমাপ্ত করার পর পাওয়া যাবে সার্টিফিকেট। একজন প্রতিযোগী একেকটি লেভেল উত্তীর্ণ হবার জন্য বারবার সুযোগ পাবেন।

সর্বশেষ পর্যায় অর্থাৎ গ্র্যান্ডমাস্টার লেভেল উত্তীর্ণ হলে প্রতিযোগী পাবে গ্র্যান্ডমাস্টার সার্টিফিকেট। সফলভাবে উত্তীর্ণ প্রতিযোগী এই সার্টিফিকেট প্রিন্ট করতে পারবেন, পাশাপাশি ফেসবুক বা ইন্সটাগ্রামে শেয়ার করতে পারবেন। কুইজের প্রশ্নগুলো লেভেল অনুযায়ী সাজানো হয়েছে। অ্যাপটি খুবই ইউজার ফ্রেন্ডলি এবং কোথাও আটকাতে হয়নি।

তবে অ্যাপটিতে বঙ্গবন্ধুর জীবন সম্পর্কে জানার জন্য কোন বিভাগ রাখা হয়নি। আশা করছি অ্যাপটির পরবর্তী সংস্করণে বঙ্গবন্ধুর জীবনী বিষয়ক বই বা রেফারেন্স সংযুক্ত করা হবে; যাতে করে প্রতিযোগীরা এই অ্যাপের মাধ্যমেই বঙ্গবন্ধুর কর্ম ও জীবনী সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবে।

অ্যাপের যে মূল উদ্দেশ্য- খেলতে খেলতে শেখা কিংবা জানা, এটা আমার কাছে খুব চমৎকার মনে হয়েছে। শিক্ষার সাথে গেমিংয়ের সফল প্রয়োগ বলতে হয় একে। সেইসাথে নতুন এক সম্ভাবনাও জাগাচ্ছে।

এখন দেখার বিষয়, আইপিডিসি ফাইন্যান্স এই অ্যাপ নিয়ে আর কী ভাবছে! আমি বলবো, এটি একটি সম্ভাবনাময় অ্যাপ এবং অসাধারণ একটি উদ্যোগ। আশা করবো, এরকম উদ্যোগ ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।

কে হবে বঙ্গবন্ধু গ্র্যান্ডমাস্টার

বঙ্গবন্ধুকে জানতে অন্যরকম এক মোবাইল অ্যাপের গল্প

 এম. মিজানুর রহমান সোহেল 
১৪ অক্টোবর ২০২০, ০৪:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বঙ্গবন্ধু গ্র্যান্ডমাস্টার লোগো
বঙ্গবন্ধু গ্র্যান্ডমাস্টার লোগো

ফেসবুকের হোমপেজ স্ক্রল করতে করতে হঠাৎ চোখ আটকে গেল একটি ভিডিও ফুটেজে। ফেসবুকে প্রায়ই এরকম অনেক ভিডিওই চোখে পড়ে। কিন্তু ‘বঙ্গবন্ধু গ্র্যান্ডমাস্টার-উদ্বোধনী অনুষ্ঠান’ শিরোনামের ভিডিও ক্লিপটির শুরুটাই ছিল অন্যরকম, যা আমাকে পুরো ভিডিও দেখতে আগ্রহী করে তুলল। ‘কী হচ্ছে দেখি’ বলে ভিডিওতে ক্লিক করলাম। প্রায় ৩২ মিনিটের ভিডিওটি এক বসাতেই পুরোটা দেখে নিলাম। 

ভিডিও দেখা শেষে জানলাম আয়োজনটা হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে। আয়োজনের মুগ্ধতা থেকে আয়োজক সম্পর্কে জানার আগ্রহ জন্মাল। তা জানতে গিয়ে আরও একটু অবাক হলাম। উদ্যোগটি একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের। যেখানে দেশের ব্যাংক কিংবা ব্যাংক-বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো নিজেদের ব্র্যান্ডিং নিয়েই ব্যস্ত, সেখানে আইপিডিসি ফাইন্যান্স লিমিটেডের এই উদ্যোগটি যে সত্যি একটি ভিন্নরকম ও অসাধারণ আয়োজন ছিল, তা বলতেই হয়।   

ভিডিওটি ছিল আসলে বঙ্গবন্ধুর জীবনীভিত্তিক একটি কুইজ অ্যাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের, যার নাম ‘বঙ্গবন্ধু গ্র্যান্ডমাস্টার’। অ্যাপটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানার আগ্রহ থেকে অ্যাপটির ওয়েবসাইটে গেলাম। ওয়েবসাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্য থেকে জানতে পারলাম, এটি এমন একটি কুইজভিত্তিক অ্যাপ যার মাধ্যমে দেশের তরুণ প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু’র জীবন ও আদর্শের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়া এবং তার আদর্শে নিজেদের জীবন গড়তে উদ্দীপ্ত করা। সত্যি কী চমৎকার একটি ভাবনা- তরুণ প্রজন্ম খেলতে খেলতে, কুইজে কুইজে বঙ্গবন্ধুকে জানবে এবং তার আদর্শে নিজেদের জীবন গড়বে। 

আমাকে আরও একটি বিষয় দারুণভাবে নাড়া দিয়েছে। আর তা হলো অনলাইনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ভিন্নরকম আয়োজন। কেন আমার কাছে তা ভিন্নভাবে চমৎকার মনে হলো তা বলছি। দেশে মহামারী শুরু হওয়ার পর থেকে আমরা বিভিন্ন অনুষ্ঠান বা অ্যাপের উদ্বোধনী হতে দেখেছি। সেটা হয় ওয়েবিনার না হয় উদ্বোধনী পোস্ট দিয়ে কিংবা নতুন ওয়েবসাইট চালু করার মাধ্যমে। কিন্তু আইপিডিসির আয়োজনটা যদিও অনলাইনভিত্তিক, কিন্তু সাজানো হয়েছে ভিডিওচিত্র ধারণ করে। তাও আবার ভিন্ন ভিন্ন জায়গা থেকে, যেগুলোর সমন্বয় করা হয়েছে একেবারে নিখুঁতভাবে।  

এবার কুইজে কুইজে বঙ্গবন্ধুকে জানার যে মাধ্যম অর্থাৎ অ্যাপ সম্পর্কে জানার পালা। অ্যাপের ওয়েব ভার্সনের পাশাপাশি অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস ভার্সন দুটোও অ্যাভেইলেবল। অ্যাপটিতে প্রতিটি ধাপই খুব সহজ এবং সুন্দরভাবে সাজানো। বিশেষভাবে একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় অ্যাপটিতে সম্পূর্ণরূপে বাংলা ভাষা ব্যবহার করা হয়েছে। কুইজের জন্য প্রাথমিক মাস্টার, জুনিয়র মাস্টার, সিনিয়র মাস্টার এবং গ্র্যান্ডমাস্টার চারটি মেগা লেভেল রাখা হয়েছে। 

কুইজে অংশগ্রহণকারীদের প্রথম দুটি পর্যায়ে তিনটি করে ছয়টি লেভেল, পরের দুটিতে দুইটি করে চারটি লেভেল, অর্থাৎ মোট ১০টি লেভেলে খেলতে হবে। একটি লেভেল থেকে পরের লেভেলের প্রশ্ন কঠিনতর হতে থাকবে ক্রমান্বয়ে। অ্যাপে প্রবেশ করে নাম, ফোন নাম্বার, ইমেইল এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। কুইজ খেলে প্রত্যেকটি পর্যায় সফলভাবে সমাপ্ত করার পর পাওয়া যাবে সার্টিফিকেট। একজন প্রতিযোগী একেকটি লেভেল উত্তীর্ণ হবার জন্য বারবার সুযোগ পাবেন। 

সর্বশেষ পর্যায় অর্থাৎ গ্র্যান্ডমাস্টার লেভেল উত্তীর্ণ হলে প্রতিযোগী পাবে গ্র্যান্ডমাস্টার সার্টিফিকেট। সফলভাবে উত্তীর্ণ প্রতিযোগী এই সার্টিফিকেট প্রিন্ট করতে পারবেন, পাশাপাশি ফেসবুক বা ইন্সটাগ্রামে শেয়ার করতে পারবেন। কুইজের প্রশ্নগুলো লেভেল অনুযায়ী সাজানো হয়েছে। অ্যাপটি খুবই ইউজার ফ্রেন্ডলি এবং কোথাও আটকাতে হয়নি। 

তবে অ্যাপটিতে বঙ্গবন্ধুর জীবন সম্পর্কে জানার জন্য কোন বিভাগ রাখা হয়নি। আশা করছি অ্যাপটির পরবর্তী সংস্করণে বঙ্গবন্ধুর জীবনী বিষয়ক বই বা রেফারেন্স সংযুক্ত করা হবে; যাতে করে প্রতিযোগীরা এই অ্যাপের মাধ্যমেই বঙ্গবন্ধুর কর্ম ও জীবনী সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবে। 

অ্যাপের যে মূল উদ্দেশ্য- খেলতে খেলতে শেখা কিংবা জানা, এটা আমার কাছে খুব চমৎকার মনে হয়েছে। শিক্ষার সাথে গেমিংয়ের সফল প্রয়োগ বলতে হয় একে। সেইসাথে নতুন এক সম্ভাবনাও জাগাচ্ছে। 

এখন দেখার বিষয়, আইপিডিসি ফাইন্যান্স এই অ্যাপ নিয়ে আর কী ভাবছে! আমি বলবো, এটি একটি সম্ভাবনাময় অ্যাপ এবং অসাধারণ একটি উদ্যোগ। আশা করবো, এরকম উদ্যোগ ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।