থানায় লিখিত অভিযোগ মারধরের শিকার সেই ছাত্রলীগ নেত্রীর
jugantor
থানায় লিখিত অভিযোগ মারধরের শিকার সেই ছাত্রলীগ নেত্রীর

  ঢাবি প্রতিনিধি  

১৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৩:১৯:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

মারধরের শিকার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হল সংসদের সাবেক সহসাধারণ সম্পাদক (এজিএস) ও হল ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফাল্গুনী দাস তন্বী থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

শুক্রবার রাতে শাহবাগ থানায় মারধরকারী নিজ সংগঠনের পাঁচজন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেন তিনি।

শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আরিফুর রহমান সরদার অভিযোগপত্র গ্রহণ করে এসআই রইছ উদ্দীনকে আইও হিসেবে নিয়োগ করেন।

এর আগে গত ২১ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ১২টার দিকে নিজের সংগঠনের দুই নেত্রী ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনজির হোসেন নিশি এবং শামসুন নাহার হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জেসমিন শান্তা তাকে ডেকে নিয়ে মারধর করেন।

লিখিত অভিযোগে তন্বী পাঁচজনের নাম উল্লেখ করেন। তার হলেন- কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনজির হোসেন নিশি, শামসুন্নাহার হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জিয়াসমিন শান্তা, ছাত্রলীগ নেতা শাহজালাল, এনামুল ও তানসেন।

ফাল্গুনী দাস তন্বী যুগান্তরকে বলেন, আমি একটি স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে নিজের ওপর হামলাকারীদের বিচারের জন্য লিখিত অভিযোগ করেছি।

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আরিফুর রহমান সরদার বলেন, তিনি (ছাত্রলীগ নেত্রী) একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগের সত্যতা যাচাই করার জন্য আমরা একজন এসআইকে দায়িত্ব দিয়েছি। প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেলে অভিযোগটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হবে।

থানায় লিখিত অভিযোগ মারধরের শিকার সেই ছাত্রলীগ নেত্রীর

 ঢাবি প্রতিনিধি 
১৬ জানুয়ারি ২০২১, ০১:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মারধরের শিকার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হল সংসদের সাবেক সহসাধারণ সম্পাদক (এজিএস) ও হল ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফাল্গুনী দাস তন্বী থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। 

শুক্রবার রাতে শাহবাগ থানায় মারধরকারী নিজ সংগঠনের পাঁচজন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেন তিনি।

শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আরিফুর রহমান সরদার অভিযোগপত্র গ্রহণ করে এসআই রইছ উদ্দীনকে আইও হিসেবে নিয়োগ করেন। 

এর আগে গত ২১ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ১২টার দিকে নিজের সংগঠনের দুই নেত্রী ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনজির হোসেন নিশি এবং শামসুন নাহার হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জেসমিন শান্তা তাকে ডেকে নিয়ে মারধর করেন।

লিখিত অভিযোগে তন্বী পাঁচজনের নাম উল্লেখ করেন। তার হলেন- কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বেনজির হোসেন নিশি, শামসুন্নাহার হল শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জিয়াসমিন শান্তা, ছাত্রলীগ নেতা শাহজালাল, এনামুল ও তানসেন।

ফাল্গুনী দাস তন্বী যুগান্তরকে বলেন, আমি একটি স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে নিজের ওপর হামলাকারীদের বিচারের জন্য লিখিত অভিযোগ করেছি। 

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আরিফুর রহমান সরদার বলেন, তিনি (ছাত্রলীগ নেত্রী) একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগের সত্যতা যাচাই করার জন্য আমরা একজন এসআইকে দায়িত্ব দিয়েছি। প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেলে অভিযোগটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হবে।