নগরের সৌন্দর্য বাড়াতে জি-গ্যাসের অভিনব উদ্যোগ

  যুগান্তর ডেস্ক    ১২ জুন ২০১৯, ২০:২১ | অনলাইন সংস্করণ

নগরের সৌন্দর্য বাড়াতে জি-গ্যাসের অভিনব উদ্যোগ
নগরের সৌন্দর্য বাড়াতে জি-গ্যাসের অভিনব উদ্যোগ

প্রতি বর্ষাতেই বৃষ্টি হওয়া মাত্র জলাবদ্ধতায় নাকাল হননি এমন নগরবাসী রীতিমত দুর্লভ। জলাবদ্ধতার মূল কারণ খুঁজলে প্রথমেই চলে আসে আমাদের ফেলে দেয়া বিশেষ করে প্লাস্টিক ও পলিথিন জাতীয় বর্জ্যের ফলে বন্ধ হয়ে যাওয়া জলনিষ্কাশন নালা ও ম্যানহোলের ঢাকনার মুখ বুজে যাওয়ার ফলে পানি নেমে যাবার ধীরগতি। এর সঙ্গে যত্রতত্র আবর্জনা ফেলার ফলে স্বাস্থ্য ঝুঁকি আর নগরের সৌন্দর্যহানীর বিষয়টি তো থাকছেই।

যত্রতত্র আবর্জনা ছুড়ে ফেলার বিষয়টি খুব বেশি আলোচিত একটি বিষয় হলেও হাতের নাগালে ময়লা ফেলবার নির্দিষ্ট স্থান না থাকার ফলে যত্রতত্র আবর্জনা ফেলার মতো নগরবাসীর একটি কু-অভ্যাস চাইলেই রাতারাতি পরিবর্তন করা সম্ভব হয়ে ওঠেনা। বিশেষ করে গণপরিবহন থেকে রাস্তায় আবর্জনা ছুড়ে ফেলার বিষয়টি রীতিমতো অভ্যাসে পরিণত হয়েছে নগরবাসীর।

তবে সম্প্রতি ঢাকা মহানগরীর বহু সিএনজি চালিত অটোরিকশাগুলোতে এ বিষয়ে সচেতন করতে দারুণ এক উদ্যোগ বেশ দৃশ্যমান। এই উদ্যোগে অংশ নেয়া সিএনজি অটোরিকশাগুলোর ভেতরে স্থাপন করা হয়েছে ‘ভালো থাকুন, ভালো রাখুন’ বার্তাযুক্ত ময়লা ফেলবার জন্যে এক প্রকারের বিশেষ পাত্র।

আবর্জনা যত্রতত্র ফেলে দেয়ার এই বিষয়টি মাথায় রেখেই সম্প্রতি জি-গ্যাস শুরু করেছে এ অভিনব প্রচারণা। ঢাকা মহানগরীর এক হাজারের এর অধিক সিএনজি চালিত অটোরিকশাতে বিশেষ ডিজাইনের ময়লা ফেলবার এই পাত্র স্থাপন করেছে জি-গ্যাস। শুধু যে অটোরিকশাগুলোতে পাত্র স্থাপন করেই দায় শেষ করেছে এমনটি নয়, সিএনজি অটোরিকশা চালকরা যেন স্বপ্রণোদিত যাত্রীদের সচেতন করতে সহায়তা করে, এই বিষয়ে তাদের উদ্বুদ্ধ করতেও জি-গ্যাসের ছিলো বিশেষ আয়োজন।

জি-গ্যাসের সঙ্গে সম্পৃক্ত সবাই ও সমাজের সবাইকে নিয়ে ভালো থাকতে ও তাদের ভালো রাখতে সর্বদাই সচেষ্ট একটি ব্র্যান্ড। নিজেদের এই চেতনার সাথে মিল রেখে জি-গ্যাস এর সামাজিক দায়বদ্ধতা বা সিএসআর এর অংশ হিসেবেই পরিবেশ ও প্রতিবেশ সুরক্ষায় বিভিন্ন সময়ে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করে আসছে।

বর্তমানে পরিবেশের উপর বিশেষ করে বৃক্ষবর্জিত শহুরে পরিবেশে যত্রতত্র ছুড়ে ফেলা আবর্জনার ক্ষতির বিষয়টি পর্যালোচনা করেই সম্প্রতি জি-গ্যাস এগিয়ে আসে শহরে চলমান গণপরিবহণগুলো থেকে যাত্রীদের ছুড়ে ফেলা আবর্জনা সমস্যার সমাধানে।

এরই অংশ হিসেবে জি-গ্যাস বেছে নেয় নগরের সবচেয়ে পরিচিত বাহন সিএনজি অটোরিকশা। এই বাহনটির যাত্রী বসবার অংশের স্থান সঙ্কটের কথা বিবেচনা করে জি-গ্যাস বিশেষ ডিজাইনের ঢাকনাযুক্ত ময়লার পাত্র প্রস্তুত করে সেগুলো ঢাকা শহরের বিভিন্ন পয়েন্ট বেছে নিয়ে সিএনজি অটোরিকশা সমূহে স্থাপন করে দেয় এই বিশেষ পাত্র।

শুধু তাই নয়, পাত্রগুলো স্থাপন করবার মুহূর্তে যাত্রীদের যত্রতত্র ময়লা না ফেলে বরং অটোরিকশার ভেতরে থাকা সেই পাত্রতে ময়লা ফেলতে উদ্বুদ্ধ করার উপায় শিখিয়ে দিতেও ছিলো সংক্ষিপ্ত শিক্ষামূলক আয়োজন।

প্রথম পর্যায়ে এক হাজার সিএনজি চালিতো অটোরিকশাতে স্থাপন করা হলেও, প্রাথমিক ভাবে ময়লা ফেলবার জন্য বিশেষ পাত্র স্থাপন করা অটোরিকশাগুলোর চালকদের সাথে ফোনে কথোপকথন এর মাধ্যমে ক্যাম্পেইনের সাফল্য ও চালকদের অভিজ্ঞতা জানার ভিত্তিতে পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় সংশোধন শেষে এই ক্যাম্পেইনটি ছড়িয়ে দেয়া হবে দেশের প্রতিটি অঞ্চলে।

শুধু এ উদ্যোগই নয়, রাজধানীবাসীকে শহরের বায়ুদূষণ থেকে ভালো রাখতে, এর আগে নগরবাসীর মধ্যে ফেসমাস্ক বিলি করে জি-গ্যাস। কোরবানি ঈদের পবিত্রতা আগলে রাখতে গারবেজ ব্যাগ বিলি করে বিভিন্ন এলাকায়।

জীবনের প্রয়োজনেই মানুষ সকল প্রতিকূলতা পেরিয়ে ছুটে চলে নিরন্তর। এর মাঝেই অন্য কারো অপেক্ষায় না থেকেই আমরা বাড়িয়ে দেই সাহায্যের হাত, স্বপ্ন দেখি সবখানে ছড়িয়ে যাবে ভালো থাকার শুভ বার্তা। এমনই ভাবনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে জি-গ্যাসও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ সবাইকে ভালো রাখতে, সুস্থ রাখতে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×