‘হতাশা’ থেকে আত্মহত্যা করেছেন পুলিশের নায়েক কুদ্দুস
jugantor
‘হতাশা’ থেকে আত্মহত্যা করেছেন পুলিশের নায়েক কুদ্দুস

  পল্লবী প্রতিনিধি  

২৩ জানুয়ারি ২০২০, ১৩:১১:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রতীকী ছবি

পুলিশের নায়েক শাহ মো. আবদুল কুদ্দুস (৩১) ‘হতাশা’ থেকে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার ভোরে রাজধানীর মিরপুরে পুলিশলাইনে নিজের রাইফেল দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি।

আত্মঘাতী শাহ মো. আবদুল কুদ্দুস মিরপুর-১৪ নম্বর পুলিশলাইনে নায়েক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

তার গ্রামের বাড়ি সিলেটের হবিগঞ্জের রসুলপুরে। বাবার নাম শাহ মো. আবদুল ওয়াহাব (মৃত)।

কাফরুল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ফারুকুল আলম যুগান্তরকে বলেন, আবদুল কুদ্দুস ‘হতাশা’ থেকে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে

জানতে পেরেছি। তবে আরও কোনো কারণ আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

কাফরুল থানার ওসি সেলিমুজ্জমান যুগান্তরকে জানান, বৃহস্পতিবার ভোরে নিজের রাইফেল দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন কুদ্দুস। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে বলে জানান তিনি।

‘হতাশা’ থেকে আত্মহত্যা করেছেন পুলিশের নায়েক কুদ্দুস

 পল্লবী প্রতিনিধি 
২৩ জানুয়ারি ২০২০, ০১:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
প্রতীকী ছবি
প্রতীকী ছবি

পুলিশের নায়েক শাহ মো. আবদুল কুদ্দুস (৩১) ‘হতাশা’ থেকে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে। 

বৃহস্পতিবার ভোরে রাজধানীর মিরপুরে পুলিশলাইনে নিজের রাইফেল দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। 

আত্মঘাতী শাহ মো. আবদুল কুদ্দুস মিরপুর-১৪ নম্বর পুলিশলাইনে নায়েক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।  

তার গ্রামের বাড়ি সিলেটের হবিগঞ্জের রসুলপুরে। বাবার নাম শাহ মো. আবদুল ওয়াহাব (মৃত)।  

কাফরুল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ফারুকুল আলম যুগান্তরকে বলেন, আবদুল কুদ্দুস ‘হতাশা’ থেকে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে 

জানতে পেরেছি। তবে আরও কোনো কারণ আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।   

কাফরুল থানার ওসি সেলিমুজ্জমান যুগান্তরকে জানান, বৃহস্পতিবার ভোরে নিজের রাইফেল দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন কুদ্দুস। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে বলে জানান তিনি। 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর