শুধু ব্যাগ নয়, লিপার প্রাণও কেড়ে নিল ছিনতাইকারীরা
jugantor
শুধু ব্যাগ নয়, লিপার প্রাণও কেড়ে নিল ছিনতাইকারীরা

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০:৫৭:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ছিনতাই
প্রতীকী ছবি

রাজধানীর মুগদায় ব্যাগ ছিনতাইয়ের সময় ছিনতাইকারীদের টানে রিকশা থেকে পড়ে তারিনা বেগম লিপা (৪০) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। 

শনিবার সকাল ৭টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। 

মুগদা থানার এসআই আলী আহমেদ গণমাধ্যমকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানায়, সকালে ছেলেকে নিয়ে রাজারবাগ বাটপাড়া থেকে রিকশায় করে কমলাপুরের দিকে ফিরছিলেন লিপা। দক্ষিণ মুগদা ইউনিক বাস কাউন্টারের সামনের রাস্তায় মাইক্রোবাসে থাকা কয়েকজন ছিনতাইকারী তার ব্যাগ ধরে টান দেয়। 

এ সময় তিনি রিকশা থেকে পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। 

লিপার স্বামী গোলাম কিবরিয়া জানান, ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে তারা রাজারবাগ আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে দুটি আলাদা রিকশায় করে ফিরছিলেন তারা। 

তিনি জানান, স্ত্রী সঙ্গে ছেলেও রিকশায় ছিল। মাইক্রোবাসে থাকা ছিনতাইকারীরা তার স্ত্রীর ব্যাগ ধরে টান দিলে তিনি রাস্তায় পড়ে যান। ছিনতাইকারীরা ব্যাগটি নিয়ে পালিয়ে যায়। ব্যাগে একটি মোবাইল ফোন ও দুই হাজারের মতো টাকা ছিল।

শুধু ব্যাগ নয়, লিপার প্রাণও কেড়ে নিল ছিনতাইকারীরা

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০:৫৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ছিনতাই
প্রতীকী ছবি

রাজধানীর মুগদায় ব্যাগ ছিনতাইয়ের সময় ছিনতাইকারীদের টানে রিকশা থেকে পড়ে তারিনা বেগম লিপা (৪০) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার সকাল ৭টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

মুগদা থানার এসআই আলী আহমেদ গণমাধ্যমকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানায়, সকালে ছেলেকে নিয়ে রাজারবাগ বাটপাড়া থেকে রিকশায় করে কমলাপুরের দিকে ফিরছিলেন লিপা। দক্ষিণ মুগদা ইউনিক বাস কাউন্টারের সামনের রাস্তায় মাইক্রোবাসে থাকা কয়েকজন ছিনতাইকারী তার ব্যাগ ধরে টান দেয়।

এ সময় তিনি রিকশা থেকে পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

লিপার স্বামী গোলাম কিবরিয়া জানান, ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে তারা রাজারবাগ আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে দুটি আলাদা রিকশায় করে ফিরছিলেন তারা।

তিনি জানান, স্ত্রী সঙ্গে ছেলেও রিকশায় ছিল। মাইক্রোবাসে থাকা ছিনতাইকারীরা তার স্ত্রীর ব্যাগ ধরে টান দিলে তিনি রাস্তায় পড়ে যান। ছিনতাইকারীরা ব্যাগটি নিয়ে পালিয়ে যায়। ব্যাগে একটি মোবাইল ফোন ও দুই হাজারের মতো টাকা ছিল।

 
আরও খবর