কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, ঢাবিতে বিক্ষোভ মিছিল
jugantor
কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, ঢাবিতে বিক্ষোভ মিছিল

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৩:০৩:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় কাশিমপুর কারাগারে বন্দী লেখক মুশতাক আহমেদের (৫৩) মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে।

বামপন্থী কয়েকটি ছাত্রসংগঠন এ বিক্ষোভ মিছিল বের করে।এ মিছিল থেকে তারা লেখক মুশতাকের মুত্যুর জন্য সরকারকে দায়ী করে স্লোগান দেন।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) থেকে বের হওয়া মিছিলটি শাহবাগ ও পরীবাগ মোড় ঘুরে আবার সেখানে ফিরে আসে।

রাত একটার দিকে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে তারা সমাবেশ করেন। সমাবেশ থেকে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় শাহবাগে অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

মিছিলে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক দীপক শীল, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের (বাসদ) কেন্দ্রীয় সভাপতি মাসুদ রানা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের (মার্ক্সবাদী) কেন্দ্রীয় সভাপতি আল কাদেরী।

মিছিলে ‘লেখক মুশতাক মরল কেন, জবাব চাই’ স্লোগান দেন। এ সময় মিছিলের সামনে থাকা ব্যানারে লেখা ছিল ‘লেখক মুশতাকের হত্যাকারী রাষ্ট্র’।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে কারাবন্দী লেখক মুশতাক আহমেদ (৫৩) বৃহস্পতিবার রাতে মারা গেছেন। তিনি গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে ছিলেন।

কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মুশতাক আহমেদ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে কারাগারের ভিতর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন।তাকে প্রথমে কারা হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে মৃত ঘোষণা করেন।

কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু, ঢাবিতে বিক্ষোভ মিছিল

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৩:০৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় কাশিমপুর কারাগারে বন্দী লেখক মুশতাক আহমেদের (৫৩) মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে।

বামপন্থী কয়েকটি ছাত্রসংগঠন এ বিক্ষোভ মিছিল বের করে।এ মিছিল থেকে তারা লেখক মুশতাকের মুত্যুর জন্য সরকারকে দায়ী করে স্লোগান দেন।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) থেকে বের হওয়া মিছিলটি শাহবাগ ও পরীবাগ মোড় ঘুরে আবার সেখানে ফিরে আসে।

রাত একটার দিকে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে তারা সমাবেশ করেন। সমাবেশ থেকে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় শাহবাগে অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

মিছিলে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক দীপক শীল, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের (বাসদ) কেন্দ্রীয় সভাপতি মাসুদ রানা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের (মার্ক্সবাদী) কেন্দ্রীয় সভাপতি আল কাদেরী।

মিছিলে ‘লেখক মুশতাক মরল কেন, জবাব চাই’ স্লোগান দেন। এ সময় মিছিলের সামনে থাকা ব্যানারে লেখা ছিল ‘লেখক মুশতাকের হত্যাকারী রাষ্ট্র’।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে কারাবন্দী লেখক মুশতাক আহমেদ (৫৩) বৃহস্পতিবার রাতে মারা গেছেন। তিনি গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারে ছিলেন।

কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মুশতাক আহমেদ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে কারাগারের ভিতর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন।তাকে প্রথমে কারা হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে মৃত ঘোষণা করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : কারাগারে লেখক মুশতাকের মৃত্যু

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১
আরও খবর