রংপুরে মোমবাতির আলোয় এইচএসসি পরীক্ষা

  রংপুর ব্যুরো ০১ এপ্রিল ২০১৯, ২২:৫৬ | অনলাইন সংস্করণ

রংপুরে মোমবাতির আলোয় এইচএসসি পরীক্ষা
রংপুরে মোমবাতির আলোয় এইচএসসি পরীক্ষা

সোমবার শুরু হওয়া এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় রংপুরের কেন্দ্রগুলোতে মোমবাতির আলোয় পরীক্ষা দিয়েছে শিক্ষার্থীরা।

কালবৈশাখী ঝড়ের তাণ্ডবে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন ও ঘন ঘন বিদ্যুৎবিভ্রাটের কারণে বেশির ভাগ পরীক্ষা কেন্দ্রেকে এই চিত্র দেখা গেছে।

সোমবার সকাল থেকে বৃষ্টি ও আকাশ মেঘলা থাকায় পরীক্ষা কেন্দ্রগুলো আলোস্বল্পতায় পরীক্ষা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা। এ নিয়ে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকরা বিস্তর অভিযোগ ও ক্ষোভ জানিয়েছেন।

রোববার রাতের কালবৈশাখী ঝড় আর বৃষ্টিতে রংপুরের সব সঞ্চালন লাইনে বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন ছিল। অনেক এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ তার ছিঁড়ে পড়ে গেছে। এসব কারণে বেশকিছু এলাকায় মধ্যরাত থেকে দিনভর বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন ছিল।

তবে দুপুর ১২টার পর থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ চালু করা হয় বলে নিশ্চিত করেন নেসকোর নির্বাহী প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন। তবুও তা করা সম্ভব হয়নি। কোনো কোনো এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ চালু হলেও বেশির ভাগ এলাকা ছিল বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন।

এদিকে সোমবার সকালে রংপুর নগরীর শালবন এলাকার সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজ কেন্দ্রে গিয়ে পরীক্ষার্থীরা মোমবাতি হাতে কেন্দ্রে প্রবেশ করছে। কয়েকজন শিক্ষার্থী জানায়, বিদ্যুৎবিভ্রাটের ও আলোস্বল্পতার কারণে মোমবাতি নিয়ে পরীক্ষা দিতে যাচ্ছেন তারা।

অন্যদিকে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকরা অভিযোগ করেন, কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা এবং বিদ্যুৎ বিভাগের গাফিলতির কারণে এই পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এর জন্য সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের দায়িত্ববানদের আগে থেকে বিকল্প ব্যবস্থা নেয়া উচিত ছিল।

এ ব্যাপারে সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজ অধ্যাক্ষ মোবাখখারুল ইসলাম জানান, মধ্যরাতে ঝড় হওয়ায় নগরীর বেশির ভাগ এলাকায় বিদ্যুৎ না থাকায় শিক্ষার্থীরা মোমবাতি জ্বালিয়ে পরীক্ষা দিচ্ছেন। এতে তাদের ভীষণ সমস্যা হচ্ছে। তবে আমরা বিদ্যুৎ বিভাগের সঙ্গে কথা বলে দ্রুত সংযোগ চালু করার জন্য বেশ কয়েকবার চাপ দিয়েছি।

সরকারি বেগম রোকেয়া কলেজের মতো রংপুর মহানগরীসহ আশপাশের উপজেলাগুলোর পরীক্ষা কেন্দ্রেও একই চিত্র ছিল বলে জানান গেছে।

কারমাইকেল কলেজের পরীক্ষার কক্ষগুলোতে আলোস্বল্পতা ছিল। সকাল ১০টায় পরীক্ষা শুরু পরও বৃষ্টির পায়নি কক্ষে জমাট বেঁধে থাকায় পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের ঝাড়ু দিতে দেখা যায়।

নেসকোর নির্বাহী প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেন জানান, রংপুর শহরের আশপাশে বিশেষ করে পল্লী বিদ্যুৎ এর আওতাভুক্ত এলাকাগুলোতে মধ্যরাত থেকেই বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। অনেক স্থানে কালবৈশাখী ঝড়ে ঘরবাড়ি, গাছগাছালি ও বিদ্যুৎ সংযোগের খুঁটি পড়ে গেছে এবং ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড রংপুরের নির্বাহী প্রকৌশলী (জিএমডি) মো. শাহজাহান আলী জানান, মধ্যরাতে ঝড়ের তাণ্ডবে রংপুরসহ আশপাশের এলাকাগুলো বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। পরীক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে আমরা জরুরি ভিত্তিতে পৌনে ১২টার দিকে সংযোগ সচল করেছি।

রংপুর বিভাগের আট জেলার ১৯৯টি কেন্দ্রের এইচএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে ২৮ হাজার ৫৬ জন, মানবিক বিভাগে ৮১ হাজার ১৩৭ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ১৫ হাজার ৬৮৬ পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে।

ঘটনাপ্রবাহ : এইচএসসি পরীক্ষা ২০১৯

আরও
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×