ফেনীতে কালভার্ট নির্মাণে এবার বাঁশ ও কলাগাছ!
jugantor
ফেনীতে কালভার্ট নির্মাণে এবার বাঁশ ও কলাগাছ!

  যুগান্তর ডেস্ক  

০২ জুলাই ২০১৯, ০১:২৫:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

কালভার্ট নির্মাণে বাঁশ ও কলাগাছ

রডের পরিবর্তে বাঁশের ব্যবহার এখন সাধারণ ঘটনা। তবে ফেনীর শর্শদীতে কালভার্ট নির্মাণে এবার রডের পরিবর্তে বাঁশ ও কলাগাছ ব্যবহার করা হয়েছে।

ফেনী সদর উপজেলার শর্শদী ইউনিয়নের শর্শদী গ্রামে ডা. রফিকের বাড়ির সড়কে ইউনিয়ন পরিষদের অর্থায়নে নির্মাণ করা হয়েছে এই কালভার্টটি।

কালভার্টটিতে নামমাত্র রড দিয়ে বাকি কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে বাঁশ ও কলাগাছ দিয়ে। এছাড়া নিম্নমানের ইট-সুরকি ও খোয়া ব্যবহার করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, কিছুদিন পূর্বে শর্শদী ইউনিয়নের উত্তরখানে বাড়ির কাছেই মূল রাস্তায় একটি ছোট কালভার্ট ভেঙে যাওয়ার পর ইউনিয়নের লোকজনের যাতায়াতের সুবিধার জন্য ইউপির অর্থায়নে ১২ লাখ টাকা ব্যয়ে কালভার্টটি নির্মাণ করা হয়েছে।

এদিকে চেয়ারম্যান জানান, কালভার্টের কাজটি ইউনিয়ন পরিষদের নয়, ব্যক্তি উদ্যোগে নির্মাণ করা হয়েছে। কিন্তু স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার মোর্শেদ জানান, চেয়ারম্যান নিজেই ইউপি তহবিল থেকে কালভার্টের নির্মাণ কাজ করেছেন।

এই ঘটনাটি জেলা প্রশাসককে অবগত করেছেন বলে জানান ফেনী সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা।

তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের তহবিল থেকে যদি কালভার্ট নির্মাণে এই টাকা ব্যয় করা হয়, তাহলে ভবিষ্যতে ইউনিয়ন পরিষদের নামে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে যে অর্থ বরাদ্দ দেয়া হবে তা থেকে ওই টাকা কেটে নেয়া হবে।

ফেনীতে কালভার্ট নির্মাণে এবার বাঁশ ও কলাগাছ!

 যুগান্তর ডেস্ক 
০২ জুলাই ২০১৯, ০১:২৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
কালভার্ট নির্মাণে বাঁশ ও কলাগাছ
কালভার্ট নির্মাণে বাঁশ ও কলাগাছ

রডের পরিবর্তে বাঁশের ব্যবহার এখন সাধারণ ঘটনা। তবে ফেনীর শর্শদীতে কালভার্ট নির্মাণে এবার রডের পরিবর্তে বাঁশ ও কলাগাছ ব্যবহার করা হয়েছে। 

ফেনী সদর উপজেলার শর্শদী ইউনিয়নের শর্শদী গ্রামে ডা. রফিকের বাড়ির সড়কে ইউনিয়ন পরিষদের অর্থায়নে নির্মাণ করা হয়েছে এই কালভার্টটি।

কালভার্টটিতে নামমাত্র রড দিয়ে বাকি কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে বাঁশ ও কলাগাছ দিয়ে। এছাড়া নিম্নমানের ইট-সুরকি ও খোয়া ব্যবহার করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

এলাকাবাসী জানায়, কিছুদিন পূর্বে শর্শদী ইউনিয়নের উত্তরখানে বাড়ির কাছেই মূল রাস্তায় একটি ছোট কালভার্ট ভেঙে যাওয়ার পর ইউনিয়নের লোকজনের যাতায়াতের সুবিধার জন্য ইউপির অর্থায়নে ১২ লাখ টাকা ব্যয়ে কালভার্টটি নির্মাণ করা হয়েছে।

এদিকে চেয়ারম্যান জানান, কালভার্টের কাজটি ইউনিয়ন পরিষদের নয়, ব্যক্তি উদ্যোগে নির্মাণ করা হয়েছে। কিন্তু স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার মোর্শেদ জানান, চেয়ারম্যান নিজেই ইউপি তহবিল থেকে কালভার্টের নির্মাণ কাজ করেছেন।

এই ঘটনাটি জেলা প্রশাসককে অবগত করেছেন বলে জানান ফেনী সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরিন সুলতানা।

তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের তহবিল থেকে যদি কালভার্ট নির্মাণে এই টাকা ব্যয় করা হয়, তাহলে ভবিষ্যতে ইউনিয়ন পরিষদের নামে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে যে অর্থ বরাদ্দ দেয়া হবে তা থেকে ওই টাকা কেটে নেয়া হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন