গোয়ালন্দে কিশোর দম্পতির বাসর কাটল হাজতে!

  গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি ১৯ আগস্ট ২০১৯, ২২:২০ | অনলাইন সংস্করণ

থানা হাজতে বর-কনে ও কনের বাবা-মা
থানা হাজতে বর-কনে ও কনের বাবা-মা

সবকিছু ঠিক থাকলে রোববার রাতে তাদের বাসর হওয়ার কথা ছিল।

দিনে রাজবাড়ীর আদালতে স্বামী-স্ত্রী হিসেবে অ্যাফিডেভিট করার পর রাতে চলছিল সামাজিকভাবে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা।

কিশোর বর বরযাত্রীসহ কনের বাড়িতে উপস্থিত। কিন্তু হঠাৎ সেখানে হাজির গোয়ালন্দ থানা পুলিশের একটি দল। তারা বাল্যবিয়ের এ আয়োজন করায় বর-কনে ও কনের বাবা-মাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

সারা রাত থানাহাজতে আটক থাকার পর সোমবার তাদের হাজির করা হয় ভ্রাম্যমাণ আদালতে।

এর আগে ওই কিশোর-কিশোরী রোববার রাজবাড়ীর জজ কোর্টের অ্যাডভোকেট আজিজুল ইসলাম টিটু খানের মাধ্যমে নিজেদের স্বামী-স্ত্রী হিসেবে অ্যাফিডেভিট করেন। অ্যাফিডেভিটে তারা পরস্পর দু'জনকে ভালোবেসে ইতিপূর্বে মৌলভী দিয়ে বিয়ে করেন এবং সংসার করতে চান বলে উল্লেখ করেন।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম জানান, উপজেলার ছোট ভাকলা ইউনিয়নের হাউলি কেউটিল গ্রামের শহীদ শিকদারের মেয়ে স্মৃতি আক্তারের (১৪) সঙ্গে স্থানীয় মৃত আলামিন মোল্লার ছেলে রাসেল মোল্লার বাল্যবিয়ের আয়োজন চলছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে রোববার গভীর রাতে থানা পুলিশ বিয়ে বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বর-কনে ও কনের অভিভাবককে আটক করে নিয়ে আসে। তারা পরস্পর মামাতো-ফুফাতো ভাই-বোন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবদুল্লাহ আল মামুন জানান, বাল্যবিয়ের আয়োজন করার দায়ে কনের বাবা শহীদ শিকদারকে ৪ হাজার টাকা জরিমানা ও বাল্যবিয়ে বন্ধের মুচলেকা নেয়া হয়।

আদালতের অ্যাফিডেভিট বিয়ের ক্ষেত্রে গ্রহণযোগ্য নয়। তাই তারা স্বামী-স্ত্রীও নয় বলে জানান তিনি।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×