রিফাত হত্যা মামলা: চার্জ গঠনের শুনানি ১ জানুয়ারি

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৮ নভেম্বর ২০১৯, ১৬:০০:৩০ | অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

বরগুনার আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় প্রাপ্তবয়স্ক ১০ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আদেশের দিন ধার্য করেছেন আদালত। আগামী ১ জানুয়ারি অভিযোগ গঠনের শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

একই সঙ্গে চার্জশিটভুক্ত দুই আসামির জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আছাদুজ্জামান মিয়া এই রায় দেন। এ সময় এই মামলার আগামী ১ জানুয়ারি চার্জ গঠনের তারিখ ধার্য করেন আদালত।

রিফাত শরীফ হত্যা মামলার বাদীপক্ষের আইনজীবী মজিবুল হক কিসলু বলেন, মামলার ধার্য তারিখ থাকায় সকাল সাড়ে ৮ টায় আদালতে হাজির করা হয় প্রাপ্তবয়স্কদের চার্জশিটে থাকা ৮ আসামিকে।

আর মিন্নি জামিনে থাকায় তিনিও হাজির হন আদালতে। মামলার গুরুত্বপূর্ণ আসামি মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত ও সাগরের জামিন আবেদন করেন তাদের আইনজীবীরা।

এ সময় বাদীপক্ষ জামিনের বিরোধিতা করে যৌক্তিক কারণ দেখাতে পারায় তিন জনেরই জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন আদালত। পরে আগামী ১ জানুয়ারি মামলার চার্জ গঠনের দিন ধার্য করেন বিচারক।

তিনি আরও বলেন, এ মামলার চার্জশিটভুক্ত প্রাপ্তবয়স্ক আসামি মুসা এখনো পলাতক। এ ছাড়া নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি উচ্চ আদালতের নির্দেশে জামিনে রয়েছেন। আর অন্য সব আসামি কারাগারে। আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেছে পুলিশ। এর মধ্যে প্রাপ্তবয়স্ক ১০ জন এবং অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ জন।

রিফাত হত্যা মামলার প্রাপ্তবয়স্ক আসামিরা হলেন, রাকিবুল হাসান রিফাত ফরাজি (২৩), আল কাইউম ওরফে রাব্বি আকন (২১), মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত (১৯), রেজওয়ান আলী খান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয় (২২), হাসান (১৯), মুসা (২২), আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি (১৯), রাফিউল ইসলাম রাব্বি (২০), মো. সাগর (১৯) ও কামরুল ইসলাম সাইমুন (২১)।

ঘটনাপ্রবাহ : রিফাতকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা

আরও
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত