ছেলের হাতুড়ির আঘাতে মায়ের মৃত্যু
jugantor
ছেলের হাতুড়ির আঘাতে মায়ের মৃত্যু

  লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি  

১৪ জুলাই ২০২০, ২৩:০৩:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

নড়াইলের লোহাগড়ায় মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলের হাতুড়ির আঘাতে মায়ের করুণ মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার মঙ্গলহাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আসমা বেগম উপজেলার মঙ্গলহাটা গ্রামের নির্মাণ শ্রমিক আবদুর রাজ্জাক মোল্লার স্ত্রী। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। তবে ঘাতক ছেলেকে পুলিশ আটক করতে পারেনি।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মল্লিকপুর ইউনিয়নের মঙ্গলহাটা গ্রামের নির্মাণ শ্রমিক আব্দুর রাজ্জাক মোল্যার মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলে সাব্বির মোল্যার (২৬) সঙ্গে পারিবারিক বিষয় নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে মা আসমা বেগম ওরফে চম্পার (৪৬) ঝগড়া ও কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ছেলে সাব্বির হাতুড়ি দিয়ে মায়ের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে পালিয়ে যায়।

এলাকাবাসী গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে লোহাগড়া হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে নওয়াপাড়া নামক স্থানে পৌঁছালে তিনি মারা যান। পরে নিহতের লাশ নিজ বাড়ি মঙ্গলহাটায় আনা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ সন্ধ্যায় নিহতের বাড়ি থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

লোহাগড়া থানার ওসি সৈয়দ আশিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ঘাতক ছেলে সাব্বিরকে আটকের চেষ্টা চলছে। তবে অভিযুক্ত সাব্বির মানসিক ভারসাম্যহীন কি না-তা আটকের পর জানা যাবে।

ছেলের হাতুড়ির আঘাতে মায়ের মৃত্যু

 লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি 
১৪ জুলাই ২০২০, ১১:০৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নড়াইলের লোহাগড়ায় মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলের হাতুড়ির আঘাতে মায়ের করুণ মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার মঙ্গলহাটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আসমা বেগম উপজেলার মঙ্গলহাটা গ্রামের নির্মাণ শ্রমিক আবদুর রাজ্জাক মোল্লার স্ত্রী। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। তবে ঘাতক ছেলেকে পুলিশ আটক করতে পারেনি।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মল্লিকপুর ইউনিয়নের মঙ্গলহাটা গ্রামের নির্মাণ শ্রমিক আব্দুর রাজ্জাক মোল্যার মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলে সাব্বির মোল্যার (২৬) সঙ্গে পারিবারিক বিষয় নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে মা আসমা বেগম ওরফে চম্পার (৪৬) ঝগড়া ও কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ছেলে সাব্বির হাতুড়ি দিয়ে মায়ের মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে পালিয়ে যায়।

এলাকাবাসী গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে লোহাগড়া হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে নওয়াপাড়া নামক স্থানে পৌঁছালে তিনি মারা যান। পরে নিহতের লাশ নিজ বাড়ি মঙ্গলহাটায় আনা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ সন্ধ্যায় নিহতের বাড়ি থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

লোহাগড়া থানার ওসি সৈয়দ আশিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ঘাতক ছেলে সাব্বিরকে আটকের চেষ্টা চলছে। তবে অভিযুক্ত সাব্বির মানসিক ভারসাম্যহীন কি না-তা আটকের পর জানা যাবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন