বিদ্যুতের সাবস্টেশনে কাজ করতে গিয়ে দগ্ধ কর্মচারীর মৃত্যু
jugantor
বিদ্যুতের সাবস্টেশনে কাজ করতে গিয়ে দগ্ধ কর্মচারীর মৃত্যু

  গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২৫ জুলাই ২০২০, ০৯:৩৭:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

হাবিবুর রহমান হবি।
হাবিবুর রহমান হবি। ছবি: যুগান্তর

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলায় বিদ্যুতের সাবস্টেশনের কন্ট্রোল রুমে কাজ করতে গিয়ে দগ্ধ এক কর্মচারীর মৃত্যু হয়েছে। তার নাম হাবিবুর রহমান হবি।

শুক্রবার রাত ১০টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে লাইফ সাপোর্টে থাকা সেই কর্মচারীর মৃত্যু হয়।

মৃত হাবিবুর রহমান হবি উপজেলায় বিদ্যুতের সাবস্টেশনের কন্ট্রোলরুমে চুক্তিভিত্তিক কর্মচারী ছিলেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলার আবাসিক প্রকৌশলী নিরঞ্জন কুণ্ড।

জানা যায়, গত ১৭ জুলাই বিউবোর গৌরীপুর বিদ্যুৎ সাব-স্টেশনের কন্ট্রোরুমে ৩৩ হাজার কেভি থেকে ১১ হাজার কেভিতে ট্রান্সফার করার জন্য ফিডবক্সে কাজ করার সময় হাবিবুর রহমান হবি অগ্নিদগ্ধ হন।

বেসরকারি বিদ্যুৎকর্মী হাবিবুর রহমান হবি গুরুতরভাবে অগ্নিদগ্ধ হলে তার শরীরের ৪৫% শতাংশ পুড়ে যায়। তাকে প্রথমে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়।
সেখানে চিকিৎসাধীন থেকে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এদিকে প্রশিক্ষণ ছাড়া বিশেষজ্ঞ ব্যতিত বিদ্যুৎ কন্ট্রোলরুমের মতো ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে হবির মতো বেসরকারি কর্মচারীদের প্রবেশাধিকার নেই। সেটি সংরক্ষিত এলাকা। অথচ সেখানে তাকে দিয়ে কাজ করানো হয়েছে।

এটা দায়িত্বহীনতার সামিল বলে উল্লেখ করেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন গৌরীপুর উপজেলা শাখার সভাপতি সিনিয়র আইনজীবী বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম মুহাম্মদ আজাদ।

তিনি বলেন, এসব কাজের জন্য সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঝুঁকিভাতা আছে- আজীবন পরিবারের নিশ্চয়তা আছে। হবির কিছুই নেই। এ মৃত্যুর দায় বিদ্যুৎ বিভাগ ও কর্মকর্তাদের নিতে হবে। হবির মৃত্যুর জন্য তার পরিবার-পরিজনকে আর্থিক ক্ষতিপূরণ অবিলম্বে দেয়ার জন্য দাবিও জানান তিনি।

বিদ্যুতের সাবস্টেশনে কাজ করতে গিয়ে দগ্ধ কর্মচারীর মৃত্যু

 গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২৫ জুলাই ২০২০, ০৯:৩৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হাবিবুর রহমান হবি।
হাবিবুর রহমান হবি। ছবি: যুগান্তর

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলায় বিদ্যুতের সাবস্টেশনের কন্ট্রোল রুমে কাজ করতে গিয়ে দগ্ধ এক কর্মচারীর মৃত্যু হয়েছে। তার নাম হাবিবুর রহমান হবি।

শুক্রবার রাত ১০টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে লাইফ সাপোর্টে থাকা সেই কর্মচারীর মৃত্যু হয়।

মৃত হাবিবুর রহমান হবি উপজেলায় বিদ্যুতের সাবস্টেশনের কন্ট্রোলরুমে চুক্তিভিত্তিক কর্মচারী ছিলেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলার আবাসিক প্রকৌশলী নিরঞ্জন কুণ্ড।

জানা যায়, গত ১৭ জুলাই বিউবোর গৌরীপুর বিদ্যুৎ সাব-স্টেশনের কন্ট্রোরুমে ৩৩ হাজার কেভি থেকে ১১ হাজার কেভিতে ট্রান্সফার করার জন্য ফিডবক্সে কাজ করার সময় হাবিবুর রহমান হবি অগ্নিদগ্ধ হন।

বেসরকারি বিদ্যুৎকর্মী হাবিবুর রহমান হবি গুরুতরভাবে অগ্নিদগ্ধ হলে তার শরীরের ৪৫% শতাংশ পুড়ে যায়। তাকে প্রথমে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়।
সেখানে চিকিৎসাধীন থেকে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

এদিকে প্রশিক্ষণ ছাড়া বিশেষজ্ঞ ব্যতিত বিদ্যুৎ কন্ট্রোলরুমের মতো ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে হবির মতো বেসরকারি কর্মচারীদের প্রবেশাধিকার নেই। সেটি সংরক্ষিত এলাকা। অথচ সেখানে তাকে দিয়ে কাজ করানো হয়েছে।

এটা দায়িত্বহীনতার সামিল বলে উল্লেখ করেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন গৌরীপুর উপজেলা শাখার সভাপতি সিনিয়র আইনজীবী বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম মুহাম্মদ আজাদ।

তিনি বলেন, এসব কাজের জন্য সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঝুঁকিভাতা আছে- আজীবন পরিবারের নিশ্চয়তা আছে। হবির কিছুই নেই। এ মৃত্যুর দায় বিদ্যুৎ বিভাগ ও কর্মকর্তাদের নিতে হবে। হবির মৃত্যুর জন্য তার পরিবার-পরিজনকে আর্থিক ক্ষতিপূরণ অবিলম্বে দেয়ার জন্য দাবিও জানান তিনি।