৫ দিন পর ঢাবি ছাত্র ও তার ভাইকে ছেড়ে দিচ্ছে পুলিশ
jugantor
৫ দিন পর ঢাবি ছাত্র ও তার ভাইকে ছেড়ে দিচ্ছে পুলিশ

  মহেশখালী প্রতিনিধি  

২৮ জুলাই ২০২০, ১৫:৫২:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

রেদওয়ান ফরহাদ
রেদওয়ান ফরহাদ। ছবি-সংগৃহীত

কক্সবাজারে গ্রামের বাড়ি থেকে গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয় দিয়ে তুলে নেয়ার পাঁচদিন পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রেদওয়ান ফরহাদ ও তার বড় ভাই রাশেদ খান মেননকে ছেড়ে দেয়া হচ্ছে।

মহেশখালী থানার ওসি দিদারুল ফেরদৌস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি যুগান্তরকে জানিয়েছেন, ‘আপাতত জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার কোনো অভিযোগ না পাওয়ায় তাদের ছেড়ে দেয়া হচ্ছে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র রেদওয়ান ফরহাদকে শুক্রবার বিকালে ইউনুশখালী গ্রাম থেকে এবং আগের দিন বিকালে তার বড় ভাই রাশেদ খান মেননকে স্থানীয় বাজার থেকে কয়েকজন ব্যক্তি ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন স্বজনরা। 

মহেশখালীর কালারমার ছড়া ইউনিয়নের ইউনুশখালী গ্রামের এ ঘটনার পর তিনদিন পার হলেও দুই ভাইয়ের সন্ধান পাচ্ছিল না পরিবার। থানায় যোগাযোগ করলে তাদের আটকের বিষয়টি অস্বীকার করে জিডিও নেয়নি পুলিশ। 

পরে সোমবার দুপুরে জেলা পুলিশের নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র দুই ভাইয়ের আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে।

সূত্রটি জানায়, জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে রেদওয়ান ও তার ভাইকে আটক করা হয়েছে। আটকের পর প্রথমে মহেশখালী থানায় নেয়া হয়। সেখান থেকে কক্সবাজার ও পরে ঢাকায় পুলিশ সদর দফতরে পাঠানো হয়। টানা দুদিন জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গতকাল তাদেরকে কক্সবাজার জেলা পুলিশের কাছে ফেরত পাঠানো হয়। 

ওসি দিদারুল ফেরদৌস বলেন, ‘দুই ভাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আপাতত জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। দুই ভাইকে বাড়িতে আনার জন্য কক্সবাজার রওনা দিয়েছে তার পরিবার।’

এ বিষয়ে রেদওয়ান ফরহাদের ভাই মাইনুদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি যুগান্তরকে বলেন, ‘দুই ভাইকে আনার জন্য আমরা কক্সবাজার রওনা হয়েছি।’  

৫ দিন পর ঢাবি ছাত্র ও তার ভাইকে ছেড়ে দিচ্ছে পুলিশ

 মহেশখালী প্রতিনিধি 
২৮ জুলাই ২০২০, ০৩:৫২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
রেদওয়ান ফরহাদ
রেদওয়ান ফরহাদ। ছবি-সংগৃহীত

কক্সবাজারে গ্রামের বাড়ি থেকে গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয় দিয়ে তুলে নেয়ার পাঁচদিন পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রেদওয়ান ফরহাদ ও তার বড় ভাই রাশেদ খান মেননকে ছেড়ে দেয়া হচ্ছে।

মহেশখালী থানার ওসি দিদারুল ফেরদৌস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি যুগান্তরকে জানিয়েছেন, ‘আপাতত জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার কোনো অভিযোগ না পাওয়ায় তাদের ছেড়ে দেয়া হচ্ছে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র রেদওয়ান ফরহাদকে শুক্রবার বিকালে ইউনুশখালী গ্রাম থেকে এবং আগের দিন বিকালে তার বড় ভাই রাশেদ খান মেননকে স্থানীয় বাজার থেকে কয়েকজন ব্যক্তি ডিবি পরিচয়ে তুলে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন স্বজনরা।

মহেশখালীর কালারমার ছড়া ইউনিয়নের ইউনুশখালী গ্রামের এ ঘটনার পর তিনদিন পার হলেও দুই ভাইয়ের সন্ধান পাচ্ছিল না পরিবার। থানায় যোগাযোগ করলেতাদের আটকের বিষয়টি অস্বীকার করে জিডিও নেয়নি পুলিশ।

পরে সোমবার দুপুরে জেলা পুলিশের নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র দুই ভাইয়ের আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে।

সূত্রটি জানায়, জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে রেদওয়ান ও তার ভাইকে আটক করা হয়েছে। আটকের পর প্রথমে মহেশখালী থানায় নেয়া হয়। সেখান থেকে কক্সবাজার ও পরে ঢাকায় পুলিশ সদর দফতরে পাঠানো হয়। টানা দুদিন জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গতকাল তাদেরকে কক্সবাজার জেলা পুলিশের কাছে ফেরত পাঠানো হয়।

ওসি দিদারুল ফেরদৌস বলেন, ‘দুই ভাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আপাতত জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। দুই ভাইকে বাড়িতে আনার জন্য কক্সবাজার রওনা দিয়েছে তার পরিবার।’

এ বিষয়ে রেদওয়ান ফরহাদের ভাই মাইনুদ্দিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি যুগান্তরকে বলেন, ‘দুই ভাইকে আনার জন্য আমরা কক্সবাজার রওনা হয়েছি।’

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন