টাঙ্গাইলে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সরকারি চাল বিক্রির অভিযোগ

  টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ০৬ আগস্ট ২০২০, ২১:৩৬:১০ | অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার মাহমুদনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাজেদুর রহমান তালুকদারের বিরুদ্ধে সরকারি বরাদ্দকৃত চাল বিক্রি ও বিভিন্ন সরকারি বরাদ্দকৃত টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর ৩০ জুলাই একটি অভিযোগপত্রও দিয়েছেন স্থানীয় এলাকাবাসী ও ইউপি সদস্যরা।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাস ও বন্যার কারণে দুস্থদের জন্য সরকার থেকে মাহমুদননগর ইউনিয়নে সাড়ে ৩৭ টন ভিজিএফের চাল বরাদ্দ দেয়া হয়। কিন্তু সেই চাল দুস্থদের মাঝে বিতরণ না করে ২৯ জুলাই দুপুর আড়াইটার দিকে ৪০০ কেজি চাল বিক্রির সময় স্থানীয় এলাকাবাসী তা আটক করেন। পরে খবর পেয়ে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাজেদুর রহমানের লোকজন এলাকাবাসীর কাছ থেকে জব্দকৃত ১০ বস্তা চালের মধ্যে ছয় বস্তা চাল ছিনিয়ে নিয়ে যায়। বাকি চার বস্তা চাল সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনের কাছে গচ্ছিত রাখেন এলাকাবাসী।

এছাড়া মুজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে দুই লাখ টাকা সরকারি বরাদ্দ দেয়া হয় এ ইউনিয়ন পরিষদে। কিন্তু চেয়ারম্যান ও সচিব ওমর ফারুক মুজিববর্ষ পালন না করে সেই সরকারি বরাদ্দের টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

অভিযোগে আরও উল্লেখ করা হয়, রাজস্ব ও উন্নয়ন ছাগল প্রকল্পের নামে দুই লাখ টাকা এবং ১২নং মাহমুদনগর ইউনিয়নের বেকার যুবকদের যমুনা নদীতে খাঁচায় মৎস্য চাষ করার জন্য দুই লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হলেও এখন পর্যন্ত কাউকেই ছাগল বিতরণ করা ও বেকার যুবকদের মৎস্য চাষের আওতায় আনা হয়নি।

এদিকে সরকারের বিনামূল্যে দেয়া যাদের জমি আছে ঘর নাই- এমন ব্যক্তিদের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের তালিকায় যাদের নাম রয়েছে তাদের কাছ থেকে ঘরের বিনিময়ে ২৫ হাজার থেকে ৩৫ হাজার টাকা দাবি করা হয়েছে। স্থানীয়দের অভিযোগ দাবিকৃত টাকা না দিলে তাদের ঘর দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান।

ফতে বেগম নামের এক নারী জানান, তার স্বামী আবদুল হামি মারা গেছেন। আর তার নামেই আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের একটি ঘর বরাদ্দ দেয়া হয়। কিন্তু তার ওই ঘরের জন্য ইউপি চেয়ারম্যান ২৫ হাজার টাকা চেয়েছেন। তিনি ঘর বাবদ চেয়ারম্যানের কাছে ১০ হাজার টাকা দিয়েছেন।

এছাড়া অফলা নামের আরেক নারীর কাছে ৩৫ হাজার টাকা দাবি করা হয়। পরে অফলা ১৫ হাজার টাকা নিয়ে চেয়ারম্যানের কাছে গেলে তাকে জানিয়ে দেয়া হয় পুরো টাকা না দিলে তাকে ঘর দেয়া হবে না। পরে বাধ্য হয়ে অফলা ফিরে আসেন।

মাহমুদনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাজেদুর রহমান তালুকদার জানান, স্থানীয় একটি চক্র সরকারের ও আমার ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করার জন ওঠেপড়ে লেগেছে। এরই ধারাবাহিকতায় ওই চক্রটি আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়েছে। এ ধরনের চাল বিক্রি ও বরাদ্দের কোনো টাকা আত্মসাৎ করেননি বলেও তিনি জানান।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইদুল ইসলাম জানান, একটি অভিযোগপত্র পেয়েছেন তিনি। তদন্ত শেষে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত