‘তন্ত্র মন্ত্রের’ কথা বলে হাতিয়ে নিল গৃহবধূর সোয়া লাখ টাকা

  নেত্রকোনা প্রতিনিধি ১০ আগস্ট ২০২০, ২২:৫৩:৪৪ | অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলায় মোছা. দিলোয়ারা খানমের কাছ থেকে ‘সাধু বাবা তন্ত্র মন্ত্রের’ কথা বলে ১ লাখ ২১ হাজার ৫০০ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে ভণ্ড তান্ত্রিকের বিরুদ্ধে।

সোমবার নেত্রকোনার পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন উপজেলার কাকৈরগড়া ইউনিয়নের পূর্ব কৃষ্ণেরচর গ্রামের দিলোয়ারা খানম।

অভিযোগে জানা গেছে, ঈদুল আজহার ৭-৮ দিন আগে টেলিভিশনের স্ক্রলে জনৈক ‘সাধু বাবা তন্ত্র মন্ত্র’ সাং রাঙ্গামাটির বিজ্ঞাপন দেখে জেলার দুর্গাপুরের পূর্ব কৃষ্ণেরচর গ্রামের মৃত নজরুল আহমেদের স্ত্রী মোছা. দিলোয়ারা খানম প্রভাবিত হন। সাধু বাবার দেয়া মোবাইল নম্বরে তার দুরবস্থার কথা জানিয়ে যোগাযোগ করেন।

সাধু বাবা পরিচয়দানকারী রকি জানায় তার জিন সাধনা আছে। তার সব বালা-মুসিবত দূর করে দেয়ার কথা বলে এসএ পরিবহনের মাধ্যমে কৌটায় ভর্তি প্যাকেটে দুটি কবজ পাঠিয়ে দেয়। দিলোয়ারা খানম প্যাকেট ভর্তি তাবিজ দুটি এসএ পরিবহন থেকে ৪ হাজার ৫০০ টাকা দিয়ে গ্রহণ করেন। সাধু বাবা একটি তাবিজ গলায় ও অপরটি ঘরের কোনে পুঁতে রাখার জন্য বলেন।

তার কথামতো দিলোয়ারা খানম কাজ করেন। তাবিজ গলায় ঝুলানোর পর তার মানসিক অবস্থার পরিবর্তন হয়। সাধু বাবা তাকে ফোনে জানান ধ্যানে বসতে হবে। এজন্য সাপের রক্ত বাবদ ২৮ হাজার, কালো ঝরনার পানি বাবদ ২৪ হাজার এবং বিভিন্ন সময়ে কথা বলে আরও ৬৫ হাজার টাকা বিকাশের মাধ্যমে হাতিয়ে নেন। পরবর্তী সময়ে আরও ৪০ হাজার টাকা দাবি করেন।

দিলোয়ারা খানম সাধু বাবা তন্ত্র মন্ত্রের কথায় জমানো টাকা দিয়ে দেন। পরে বিষয়টি বুঝতে পেয়ে টাকা ফেরত চাইলে জিন পরীর ভয় দেখিয়ে টাকা অস্বীকার এবং মৃত্যুর ভয় দেখানো হয় দিলোয়ারা বেগমকে।

সাধু বাবা তন্ত্র মন্ত্রের দেয়া মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তার সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। মোবাইলটি কেটে দেয়া হয়।

নেত্রকোনার পুলিশ সুপার মো. আকবর আলী মুন্সী বলেন, অভিযোগের বিষয়টি এখনও আমার কাছে আসেনি। অভিযোগ পাওয়ার পর যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত