যুবককে নির্যাতনের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা
jugantor
যুবককে নির্যাতনের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি  

১৪ আগস্ট ২০২০, ২২:২০:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে চোর সন্দেহে বাছেদ (৩১) নামে এক যুবককে নির্যাতনের ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোরে আড়াইহাজারের দক্ষিণপাড়া এলাকায় ওই যুবককে নির্যাতন করা হয়। সন্ধ্যায় মামলা করেন বাছেদ।

স্থানীয়রা ও আহত বাছেদের স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবার ভোর ৬টার দিকে আড়াইহাজার সরকারি সফর আলী কলেজের সাবেক জিএস ও ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম তার সহযোগী অপুকে দিয়ে বাছেদকে তার বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় মামা জহিরুলের বাড়িতে। সেখানে রিকশার ব্যাটারি চোর সন্দেহে নির্মাণ শ্রমিক বাছেদকে রশি দিয়ে বেঁধে প্রথমে জরিমানা বাবদ ৪ লাখ টাকা দাবি করে। টাকা দিতে অপারগতা জানালে সাইফুল, অপু, আরিফ এবং কামরুল তাকে লোহার রড দিয়ে পেটাতে থাকে।

এরপর নির্যাতনের মাত্রা আরও বেড়ে যায়। একপর্যায়ে বাছেদের আঙ্গুলগুলো লোহার প্লাস দিয়ে চেপে ধরে নির্যাতন করা হয়। মারধরের কারণে বাছেদের সমস্ত দেহ ফুলে যায়। পরে এলাকার লোকজনের সহায়তায় স্বজনরা বাছেদকে উদ্ধার করে আড়াইহাজার স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করেন।

এ ঘটনায় বাছেদ বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ৪ জনকে আসামি করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

আড়াইহাজার থানার এসআই সালেহ আহমেদ জানান, অভিযুক্তদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

যুবককে নির্যাতনের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

 নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি 
১৪ আগস্ট ২০২০, ১০:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে চোর সন্দেহে বাছেদ (৩১) নামে এক যুবককে নির্যাতনের ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোরে আড়াইহাজারের দক্ষিণপাড়া এলাকায় ওই যুবককে নির্যাতন করা হয়। সন্ধ্যায় মামলা করেন বাছেদ।

স্থানীয়রা ও আহত বাছেদের স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবার ভোর ৬টার দিকে আড়াইহাজার সরকারি সফর আলী কলেজের সাবেক জিএস ও ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম তার সহযোগী অপুকে দিয়ে বাছেদকে তার বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায় মামা জহিরুলের বাড়িতে। সেখানে রিকশার ব্যাটারি চোর সন্দেহে নির্মাণ শ্রমিক বাছেদকে রশি দিয়ে বেঁধে প্রথমে জরিমানা বাবদ ৪ লাখ টাকা দাবি করে। টাকা দিতে অপারগতা জানালে সাইফুল, অপু, আরিফ এবং কামরুল তাকে লোহার রড দিয়ে পেটাতে থাকে।

এরপর নির্যাতনের মাত্রা আরও বেড়ে যায়। একপর্যায়ে বাছেদের আঙ্গুলগুলো লোহার প্লাস দিয়ে চেপে ধরে নির্যাতন করা হয়। মারধরের কারণে বাছেদের সমস্ত দেহ ফুলে যায়। পরে এলাকার লোকজনের সহায়তায় স্বজনরা বাছেদকে উদ্ধার করে আড়াইহাজার স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করেন।

এ ঘটনায় বাছেদ বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ৪ জনকে আসামি করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

আড়াইহাজার থানার এসআই সালেহ আহমেদ জানান, অভিযুক্তদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন