শাহজাদপুরে নিখোঁজের পর নদীতে শিশুর ভাসমান লাশ
jugantor
শাহজাদপুরে নিখোঁজের পর নদীতে শিশুর ভাসমান লাশ

  শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি  

২০ আগস্ট ২০২০, ২০:২৫:৪৯  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার পৌর সদরের মনিরামপুর-চাল মহল্লার চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র অফি (১০) নিখোঁজের একদিন পর নদীতে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে করতোয়া নদীতে ভাসমান অবস্থায় দরগাহপাড়ার বাবু মিয়ার ঘাট এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

শিশু অফি বুধবার দুপুরে বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। সে শাহজাদপুর সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক জিএস মেহেদী হাসান টফির ছেলে ও শাহজাদপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক মৃত ওসমান গণির নাতি।

এ বিষয়ে নিহতর বাবা টফি জানান, বুধবার দুপুর ১২টার দিকে টফি বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর ফিরে না আসায় তাকে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। এক পর্যায়ে একটি বাসার সিসি ক্যামেরার ফুটেজে তাকে দরগাপাড়ার পীর সাহেবের ঘাটের দিকে হেঁটে যেতে দেখে সবাই সেখানে ছুটে যায়। সেখানে গিয়ে তার পায়ের স্যান্ডেল পড়ে থাকতে দেখে নদীর পানি ও আশপাশ এলাকায় খুঁজেও তাকে পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৬টার দিকে স্থানীয়রা করতোয়া নদীর বাবু মিয়ার ঘাট এলাকায় তার লাশ ভাসমান অবস্থায় দেখতে পেয়ে পরিবারকে খবর দেয়। তারা দ্রুত ছুটে গিয়ে সেখান থেকে তার ভাসমান লাশ উদ্ধার করেন। এ সময় তার স্বজনদের আহাজারিতে এলাকার বাতাস ভারি হয়ে ওঠে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার ওসি আতাউর রহমান জানান, নিখোঁজের ঘটনায় তার পরিবার বুধবার রাতে একটি জিডি করেন। বৃহস্পতিবার লাশ উদ্ধারের পর পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

শাহজাদপুরে নিখোঁজের পর নদীতে শিশুর ভাসমান লাশ

 শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২০ আগস্ট ২০২০, ০৮:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার পৌর সদরের মনিরামপুর-চাল মহল্লার চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র অফি (১০) নিখোঁজের একদিন পর নদীতে ভাসমান অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে করতোয়া নদীতে ভাসমান অবস্থায় দরগাহপাড়ার বাবু মিয়ার ঘাট এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

শিশু অফি বুধবার দুপুরে বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। সে শাহজাদপুর সরকারি কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক জিএস মেহেদী হাসান টফির ছেলে ও শাহজাদপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক মৃত ওসমান গণির নাতি।

এ বিষয়ে নিহতর বাবা টফি জানান, বুধবার দুপুর ১২টার দিকে টফি বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর ফিরে না আসায় তাকে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। এক পর্যায়ে একটি বাসার সিসি ক্যামেরার ফুটেজে তাকে দরগাপাড়ার পীর সাহেবের ঘাটের দিকে হেঁটে যেতে দেখে সবাই সেখানে ছুটে যায়। সেখানে গিয়ে তার পায়ের স্যান্ডেল পড়ে থাকতে দেখে নদীর পানি ও আশপাশ এলাকায় খুঁজেও তাকে পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৬টার দিকে স্থানীয়রা করতোয়া নদীর বাবু মিয়ার ঘাট এলাকায় তার লাশ ভাসমান অবস্থায় দেখতে পেয়ে পরিবারকে খবর দেয়। তারা দ্রুত ছুটে গিয়ে সেখান থেকে তার ভাসমান লাশ উদ্ধার করেন। এ সময় তার স্বজনদের আহাজারিতে এলাকার বাতাস ভারি হয়ে ওঠে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার ওসি আতাউর রহমান জানান, নিখোঁজের ঘটনায় তার পরিবার বুধবার রাতে একটি জিডি করেন। বৃহস্পতিবার লাশ উদ্ধারের পর পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় থানায় একটি ইউডি মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : পানিতে ডুবে মৃত্যু

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন