মুকসুদপুরে নিখোঁজ মাদ্রাসাছাত্রের লাশ উদ্ধার
jugantor
মুকসুদপুরে নিখোঁজ মাদ্রাসাছাত্রের লাশ উদ্ধার

  টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি  

১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:০৬:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

মুকসুদপুরে নিখোঁজ মাদ্রাসাছাত্রের লাশ উদ্ধার

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলায় নিখোঁজের একদিন পর এক মাদ্রাসাছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ছাত্রের নাম দিদার ফকির (১৬)।

সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার দিগনগর ইউনিয়নের দিগনগর গ্রামের একটি পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত দিদার ফকির একই গ্রামের নাসির ফকিরের ছেলে ও দিগনগর ফাজিল মাদ্রাসার ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, দিদার ফকির রোববার সন্ধ্যায় মাছ ধরার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। পরে অনেক খোঁজাখুঁজির পর স্থানীয়রা সোমবার বিকালে একই এলাকার মনির হাফিজের পুকুরে দিদারের মরদেহ ভাসমান অবস্থায় দেখে পুলিশে খবর দেন।

পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে মঙ্গলবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নিহত দিদার ফকিরের বোন নাসরিন আক্তার জানান, আমার ভাইকে হয়তো কেউ হত্যা করে ওই পুকুরে ফেলে রেখে গেছে। আমি এর বিচার চাই।

মুকসুদপুরের সিন্দিয়াঘাট ফাঁড়ির ইনচার্জ আবুল বাসার বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর রহস্য জানা যাবে।

মুকসুদপুরে নিখোঁজ মাদ্রাসাছাত্রের লাশ উদ্ধার

 টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি 
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:০৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মুকসুদপুরে নিখোঁজ মাদ্রাসাছাত্রের লাশ উদ্ধার
ফাইল ছবি

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলায় নিখোঁজের একদিন পর এক মাদ্রাসাছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ছাত্রের নাম দিদার ফকির (১৬)।

সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার দিগনগর ইউনিয়নের দিগনগর গ্রামের একটি পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত দিদার ফকির একই গ্রামের নাসির ফকিরের ছেলে ও দিগনগর ফাজিল মাদ্রাসার ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, দিদার ফকির রোববার সন্ধ্যায় মাছ ধরার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। পরে অনেক খোঁজাখুঁজির পর স্থানীয়রা সোমবার বিকালে একই এলাকার মনির হাফিজের পুকুরে দিদারের মরদেহ ভাসমান অবস্থায় দেখে পুলিশে খবর দেন।

পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে মঙ্গলবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

নিহত দিদার ফকিরের বোন নাসরিন আক্তার জানান, আমার ভাইকে হয়তো কেউ হত্যা করে ওই পুকুরে ফেলে রেখে গেছে। আমি এর বিচার চাই।

মুকসুদপুরের সিন্দিয়াঘাট ফাঁড়ির ইনচার্জ আবুল বাসার বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর রহস্য জানা যাবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন