শ্রীনগরে ভুয়া ডাক্তারকে ১ মাসের জেল, লাখ টাকা জরিমানা
jugantor
শ্রীনগরে ভুয়া ডাক্তারকে ১ মাসের জেল, লাখ টাকা জরিমানা

  শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২২:৫১:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

শ্রীনগর

শ্রীনগরে মোবাইল কোর্টের অভিযানে এক ভুয়া ডাক্তারকে ১ মাসের জেল ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ রহিমা আক্তার বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার সিংপাড়া বাজারে এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন।
সিংপাড়া বাজারের জাকির হোসেন মৃধার মালিকানাধীন রতন অ্যান্ড ব্রাদার্স ফার্মেসিতে অনেক দিন ধরে এমবিবিএস ডিগ্রিধারী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার পরিচয়ে রোগী দেখে আসছিলেন মো. শহিদুর রহমান। সম্প্রতি তার চিকিৎসায় ওই এলাকার এক শিশু জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে পৌঁছলে শহিদুর রহমানের ডিগ্রি নিয়ে সন্দেহ হয়। তারা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি জানান।
শহিদুর রহমান বুধবার সন্ধ্যায় চেম্বার করার সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ রহিমা আক্তার র্যা ব নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন। এ সময় শহিদুর রহমান তার এমবিবিএস ডিগ্রি ও নিবন্ধনের কোনো কাগজপত্র দেখাতে না পারায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। মোবাইল কোর্টে শহিদুর রহমান তার এমবিবিএস ডিগ্রি নেই বলে স্বীকার করেন। পরে মোবাইল কোর্ট তাকে ১ লাখ টাকা জরিমানা এবং ১ মাসের জেল দেন। এ সময় রতন অ্যান্ড ব্রাদার্সের মালিকের কাছ থেকে মুচলেকা নেয়া হয়।
শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ রহিমা আক্তার বলেন, ভুয়া ডাক্তারদের দৌরাত্ম্য ও অপচিকিৎসা বন্ধে মোবাইল কোর্টের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

শ্রীনগরে ভুয়া ডাক্তারকে ১ মাসের জেল, লাখ টাকা জরিমানা

 শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
শ্রীনগর
এমবিবিএস ডিগ্রিধারী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার পরিচয়ে রোগী দেখে আসছিলেন মো. শহিদুর রহমান।

শ্রীনগরে মোবাইল কোর্টের অভিযানে এক ভুয়া ডাক্তারকে ১ মাসের জেল ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ রহিমা আক্তার বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার সিংপাড়া বাজারে এ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। 
সিংপাড়া বাজারের জাকির হোসেন মৃধার মালিকানাধীন রতন অ্যান্ড ব্রাদার্স ফার্মেসিতে অনেক দিন ধরে এমবিবিএস ডিগ্রিধারী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার পরিচয়ে রোগী দেখে আসছিলেন মো. শহিদুর রহমান। সম্প্রতি তার চিকিৎসায় ওই এলাকার এক শিশু জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে পৌঁছলে শহিদুর রহমানের ডিগ্রি নিয়ে সন্দেহ হয়। তারা উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বিষয়টি জানান।
শহিদুর রহমান বুধবার সন্ধ্যায় চেম্বার করার সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ রহিমা আক্তার র্যা ব নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন। এ সময় শহিদুর রহমান তার এমবিবিএস ডিগ্রি ও নিবন্ধনের কোনো কাগজপত্র দেখাতে না পারায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। মোবাইল কোর্টে শহিদুর রহমান তার এমবিবিএস ডিগ্রি নেই বলে স্বীকার করেন। পরে মোবাইল কোর্ট তাকে ১ লাখ টাকা জরিমানা এবং ১ মাসের জেল দেন। এ সময় রতন অ্যান্ড ব্রাদার্সের মালিকের কাছ থেকে মুচলেকা নেয়া হয়।
শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ রহিমা আক্তার বলেন, ভুয়া ডাক্তারদের দৌরাত্ম্য ও অপচিকিৎসা বন্ধে মোবাইল কোর্টের অভিযান অব্যাহত থাকবে।
 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন