রংপুরে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা, পুলিশ কর্মকর্তা অবরুদ্ধ
jugantor
রংপুরে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা, পুলিশ কর্মকর্তা অবরুদ্ধ

  রংপুর ব্যুরো  

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২২:৩১:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুর নগরীতে ইয়াবা ট্যাবলেট দিয়ে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত এক কর্মকর্তাকে জোরপূর্বক ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মেট্রোপলিটন পুলিশের ওই কর্মকর্তা এএসআই সায়েমকে অবরুদ্ধ করে রাখেন এলাকাবাসী। পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা গিয়ে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান।

মঙ্গলবার দুপুরে রংপুর মহানগরীর চেকপোস্ট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অভিযোগটি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

চেকপোস্ট এলাকার স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার দুপুরে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ফিরোজ খান রাজু তার অফিসের পাশের একটি চায়ের দোকানে চা খেতে যান। এ সময় সিগারেটের প্যাকেটে ইয়াবা ট্যাবলেট দিয়ে তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা এবং হাতে হাতকড়া দিয়ে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে এএসআই সায়েম। ওই ব্যক্তির সহকর্মীসহ এলাকাবাসী এতে বাধা দেন। পরে বিক্ষুব্ধ জনতা ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে অবরুদ্ধ করে রাখেন।

খবর পেয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন। তারা ওই এএসআইয়ের ব্যাপারে আনা অভিযোগ ও ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়ে তাকে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে উদ্ধার করে নিয়ে যান।

এ ব্যাপারে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (অপরাধ) শহিদুল্লাহ কাওছার বলেন, আনীত অভিযোগসহ পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হবে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া হবে।

রংপুরে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা, পুলিশ কর্মকর্তা অবরুদ্ধ

 রংপুর ব্যুরো 
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রংপুর নগরীতে ইয়াবা ট্যাবলেট দিয়ে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত এক কর্মকর্তাকে জোরপূর্বক ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় মেট্রোপলিটন পুলিশের ওই কর্মকর্তা এএসআই সায়েমকে অবরুদ্ধ করে রাখেন এলাকাবাসী। পরে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা গিয়ে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যান।

মঙ্গলবার দুপুরে রংপুর মহানগরীর চেকপোস্ট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অভিযোগটি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

চেকপোস্ট এলাকার স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার দুপুরে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ফিরোজ খান রাজু তার অফিসের পাশের একটি চায়ের দোকানে চা খেতে যান। এ সময় সিগারেটের প্যাকেটে ইয়াবা ট্যাবলেট দিয়ে তাকে ফাঁসানোর চেষ্টা এবং হাতে হাতকড়া দিয়ে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে এএসআই  সায়েম। ওই ব্যক্তির সহকর্মীসহ এলাকাবাসী এতে বাধা দেন। পরে বিক্ষুব্ধ জনতা ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে অবরুদ্ধ করে রাখেন।

খবর পেয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন। তারা ওই এএসআইয়ের ব্যাপারে আনা অভিযোগ ও ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়ে তাকে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে উদ্ধার করে নিয়ে যান।

এ ব্যাপারে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (অপরাধ) শহিদুল্লাহ কাওছার বলেন, আনীত অভিযোগসহ পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হবে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে ওই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন