মেডিকেল ছাত্রীর আত্মহত্যা
jugantor
মেডিকেল ছাত্রীর আত্মহত্যা

  তালতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি  

০২ ডিসেম্বর ২০২০, ২১:৫৮:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনার তালতলীতে ফাঁস দিয়ে সায়লা শারমিন বৃষ্টি (২২) নামে এক মেডিকেল শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন। বুধবার বিকালে উপজেলার হাসপাতাল সড়কে খালেক মিয়ার বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

বৃষ্টি উপজেলার ছোটবগী ইউনিয়নের জাকির তবক গ্রামের বসির উদ্দিন ফোরকান মৃধার মেয়ে। তিনি ঢাকার আব্দুল্লাহপুরের সাপ্রো ডেন্টাল মেডিকেল কলেজের ছাত্রী ছিলেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মেডিকেল ছাত্রী সায়লা শারমিন বৃষ্টি নিজ বাসায় সকালে নাস্তা খেয়ে তার রুমে গিয়ে দরজা বন্ধ করেন। এরপর দুপুরে খাবার খেতে না আসায় তার ছোটভাই হাসান রুমের দরজায় গিয়ে ডাকাডাকি করেন। রুমের ভেতর থেকে কোনো ধরনের আওয়াজ না পেয়ে দরজা ভেঙে ভেতরে গিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে দেখতে পায়। পরে মা-ভাইয়ের ডাক-চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে বৃষ্টিকে উদ্ধার করে তালতলী হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয় তালতলী থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান মিয়া জানান, ঘটনাস্থল আমি নিজেই পরিদর্শন করেছি। পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের জন্য হস্তান্তর করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, তবে কেন এই মেডিকেল ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন, তার সঠিক কারণ জানা যায়নি। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

মেডিকেল ছাত্রীর আত্মহত্যা

 তালতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি 
০২ ডিসেম্বর ২০২০, ০৯:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনার তালতলীতে ফাঁস দিয়ে সায়লা শারমিন বৃষ্টি (২২) নামে এক মেডিকেল শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছেন। বুধবার বিকালে উপজেলার হাসপাতাল সড়কে খালেক মিয়ার বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

বৃষ্টি উপজেলার ছোটবগী ইউনিয়নের জাকির তবক গ্রামের বসির উদ্দিন ফোরকান মৃধার মেয়ে। তিনি ঢাকার আব্দুল্লাহপুরের সাপ্রো ডেন্টাল মেডিকেল কলেজের ছাত্রী ছিলেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মেডিকেল ছাত্রী সায়লা শারমিন বৃষ্টি নিজ বাসায় সকালে নাস্তা খেয়ে তার রুমে গিয়ে দরজা বন্ধ করেন। এরপর দুপুরে খাবার খেতে না আসায় তার ছোটভাই হাসান রুমের দরজায় গিয়ে ডাকাডাকি করেন। রুমের ভেতর থেকে কোনো ধরনের আওয়াজ না পেয়ে দরজা ভেঙে ভেতরে গিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে দেখতে পায়। পরে মা-ভাইয়ের ডাক-চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে বৃষ্টিকে উদ্ধার করে তালতলী হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ বিষয় তালতলী থানার ওসি মো. কামরুজ্জামান মিয়া জানান, ঘটনাস্থল আমি নিজেই পরিদর্শন করেছি। পরিবারের কোনো অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ দাফনের জন্য হস্তান্তর করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, তবে কেন এই মেডিকেল ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন, তার সঠিক কারণ জানা যায়নি। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন