অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট: চূড়ান্ত স্কোয়াডে শায়েস্তাগঞ্জের হাফেজ তারেক
jugantor
অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট: চূড়ান্ত স্কোয়াডে শায়েস্তাগঞ্জের হাফেজ তারেক

  শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১০ মার্চ ২০২১, ১১:০২:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

মহিউদ্দিন তারেক।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ খেলতে ভারত সফরে যাবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

সোমবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) আফগান যুবাদের বিপক্ষে সিরিজের জন্য ১৬ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করেছে।

প্রাথমিক দল থেকে চূড়ান্ত দলেও সুযোগ পেয়েছেন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার চরনুর আহমদ গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে মহিউদ্দিন তারেক।

ছোটবেলা থেকেই পড়াশোনার পাশাপাশি ক্রিকেটের প্রতি টান ছিল তারেকের। হাফেজি পড়া শেষ করে ২০১৬ সালে বিকেএসপিতে ভর্তি হন তিনি। ইতিমধ্যে তারেক অনূর্ধ্ব ১৬, ১৭, ১৮ দলে খেলেছেন।

পেস বলার হিসেবে স্কোয়াডে জায়গা পেলেও ব্যাটিংয়েও যথেষ্ট ভালো তারেক। সম্প্রতি ইয়ুথ টুর্নামেন্টে অলরাউন্ডার পারফরম্যান্সের কারণে বিসিবি ঘোষিত ৪৫ জনের প্রাথমিক দলে সুযোগ পান তারেক।

এ বিষয়ে তারেকের বড়ভাই মিজানুর রহমান রুমান বলেন, ছোটবেলা থেকেই তারেকের ক্রিকেটের প্রতি প্রচুর আগ্রহ ছিল। হাফেজি পড়ার পাশাপাশি তারেক নিয়মিত ক্রিকেট খেলত। তারেক যে বছর কোরআনে হাফেজ হয়; সে বছরই বিকেএসপিতে চান্স পায়।

বিকেএসপিতে সুযোগ পাওয়ার পর নিয়মিত ভালো পারফরম্যান্সের কারণে অনূর্ধ্ব ১৬, ১৭, ১৮ দলেও খেলেছে। আমি আশাবাদী, সে একদিন জাতীয় দলেও সুযোগ পাবে।

অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট: চূড়ান্ত স্কোয়াডে শায়েস্তাগঞ্জের হাফেজ তারেক

 শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১০ মার্চ ২০২১, ১১:০২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মহিউদ্দিন তারেক।
মহিউদ্দিন তারেক। ছবি: যুগান্তর

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ খেলতে ভারত সফরে যাবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল।

সোমবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) আফগান যুবাদের বিপক্ষে সিরিজের জন্য ১৬ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করেছে।

প্রাথমিক দল থেকে চূড়ান্ত দলেও সুযোগ পেয়েছেন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার চরনুর আহমদ গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে মহিউদ্দিন তারেক।

ছোটবেলা থেকেই পড়াশোনার পাশাপাশি ক্রিকেটের প্রতি টান ছিল তারেকের। হাফেজি পড়া শেষ করে ২০১৬ সালে বিকেএসপিতে ভর্তি হন তিনি। ইতিমধ্যে তারেক অনূর্ধ্ব ১৬, ১৭, ১৮ দলে খেলেছেন।

পেস বলার হিসেবে স্কোয়াডে জায়গা পেলেও ব্যাটিংয়েও যথেষ্ট ভালো তারেক। সম্প্রতি ইয়ুথ টুর্নামেন্টে অলরাউন্ডার পারফরম্যান্সের কারণে বিসিবি ঘোষিত ৪৫ জনের প্রাথমিক দলে সুযোগ পান তারেক।

এ বিষয়ে তারেকের বড়ভাই মিজানুর রহমান রুমান বলেন, ছোটবেলা থেকেই তারেকের ক্রিকেটের প্রতি প্রচুর আগ্রহ ছিল। হাফেজি পড়ার পাশাপাশি তারেক নিয়মিত ক্রিকেট খেলত। তারেক যে বছর কোরআনে হাফেজ হয়; সে বছরই বিকেএসপিতে চান্স পায়।

বিকেএসপিতে সুযোগ পাওয়ার পর নিয়মিত ভালো পারফরম্যান্সের কারণে অনূর্ধ্ব ১৬, ১৭, ১৮ দলেও খেলেছে। আমি আশাবাদী, সে একদিন জাতীয় দলেও সুযোগ পাবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন