বেগমগঞ্জে ৮ ঘর পুড়ে ছাই, যুবক দগ্ধ
jugantor
বেগমগঞ্জে ৮ ঘর পুড়ে ছাই, যুবক দগ্ধ

  কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

০৬ এপ্রিল ২০২১, ১৫:৪৯:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

আগুন

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুনে আটটি বসতঘর পুড়ে কয়েক লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এ সময় দগ্ধ হয়েছেন বেলাল হোসেন নামে এক যুবক।

সোমবার রাত দেড়টার দিকে উপজেলার কাদিপুর ৯নং ওয়ার্ডে আনিছার বাড়িতে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাতে খাওয়ার পর বাড়ির লোকজন ঘুমিয়ে পড়েন। দেড়টার দিকে হঠাৎ করে বাড়ির একটি ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। মুহূর্তের মধ্যে আগুন দ্রুত পুরো বাড়িতে ছড়িয়ে পড়লে ভয়াবহ রূপ নেয়।
বিষয়টি বুঝতে পেরে বাড়ির লোকজন একত্রিত হয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন এবং ফায়ার সার্ভিসে খবর দেন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

কিন্তু তার আগে আগুনে আটটি বসতঘরের মূল্যবান মালামাল পুড়ে ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। আগুন লাগার পর ঘরে আটকেপড়া মাকে বাঁচাতে গিয়ে অগ্নিদগ্ধ হন বেলাল হোসেন নামে একজন। তাকে উদ্ধার করে চৌমুহনী লাইফ কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

চৌমুহনী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মো. জহিরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে রাতে আমাদের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় দেড় ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে এ আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বেগমগঞ্জে ৮ ঘর পুড়ে ছাই, যুবক দগ্ধ

 কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
০৬ এপ্রিল ২০২১, ০৩:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আগুন
ফাইল ছবি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুনে আটটি বসতঘর পুড়ে কয়েক লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। এ সময় দগ্ধ হয়েছেন বেলাল হোসেন নামে এক যুবক।

সোমবার রাত দেড়টার দিকে উপজেলার কাদিপুর ৯নং ওয়ার্ডে আনিছার বাড়িতে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাতে খাওয়ার পর বাড়ির লোকজন ঘুমিয়ে পড়েন। দেড়টার দিকে হঠাৎ করে বাড়ির একটি ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। মুহূর্তের মধ্যে আগুন দ্রুত পুরো বাড়িতে ছড়িয়ে পড়লে ভয়াবহ রূপ নেয়।
বিষয়টি বুঝতে পেরে বাড়ির লোকজন একত্রিত হয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন এবং ফায়ার সার্ভিসে খবর দেন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

কিন্তু তার আগে আগুনে আটটি বসতঘরের মূল্যবান মালামাল পুড়ে ৩০ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। আগুন লাগার পর ঘরে আটকেপড়া মাকে বাঁচাতে গিয়ে অগ্নিদগ্ধ হন বেলাল হোসেন নামে একজন। তাকে উদ্ধার করে চৌমুহনী লাইফ কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

চৌমুহনী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মো. জহিরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে রাতে আমাদের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় দেড় ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে এ আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন