পুকুরে মিলল ৩৫টি ইলিশ
jugantor
পুকুরে মিলল ৩৫টি ইলিশ

  হাতিয়া (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

১৪ মে ২০২২, ০৬:০৮:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার একটি পুকুরে অন্যান্য মাছের সঙ্গে মিলেছে ৩৫টি রুপালি ইলিশ। প্রতিটি ইলিশের ওজন প্রায় ৪০০ গ্রাম করে। শুক্রবার বিকালে উপজেলার নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের ‘যুগান্তর কিল্লা’ পুকুরে জেলেদের জালে মাছগুলো ধরা পড়ে।

জানা যায়, প্রায় ৪০ পরিবার পুকুরটি ব্যবহার করে। প্রায় সাতদিন ধরে ‘যুগান্তর কিল্লা’ পুকুরটি সেচের জন্য মেশিন ব্যবহার করা হয়েছে। শনিবার সেচের পুরো কাজ শেষ হবে। শুক্রবার পুরো পুকুরে জেলেদের দিয়ে জাল ফেলানো হয়েছে। সে জালে অন্যান্য মাছের সঙ্গে ৩৫টি ইলিশ ধরা পড়ে।

পুকুরের মালিক আবদুল মান্নান বলেন, বিকালে জেলেদের দিয়ে জাল ফেলে অন্যান্য মাছের সাথে ৩৫টি ইলিশ মাছ পেয়েছি। মাছগুলো ৩০০ গ্রাম থেকে ৪০০ গ্রামের মধ্যে। সবগুলো মিলে প্রায় ৭-৮ কেজি হবে।

নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আফছার দিনাজ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত বছর ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে নিঝুমদ্বীপের প্রায় সবগুলো পুকুর তলিয়ে যায়। এর মধ্যে ‘যুগান্তর কিল্লা’ পুকরটিও ছিল। সেখানে আবদুল মান্নান ৩৫টি ইলিশ মাছ পেয়েছেন। মূলত জোয়ারের পানি প্রবেশ করায় তখন ইলিশ পুকুরে এসেছে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন বলেন, পুকুরে ইলিশ হয় বিষয়টি এমন নয়। মূলত জোয়ারের পানি প্রবেশ করায় তখন ইলিশ পুকুরে এসেছে। নিঝুমদ্বীপ নিম্নাঞ্চল তাই জোয়ারে প্লাবিত হয়। পুকুরটি যখন প্লাবিত হয়েছে, তখন ইলিশ প্রবেশ করেছে। এছাড়া আলাদা কিছু এখানে নেই।

পুকুরে মিলল ৩৫টি ইলিশ

 হাতিয়া (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
১৪ মে ২০২২, ০৬:০৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার একটি পুকুরে অন্যান্য মাছের সঙ্গে মিলেছে ৩৫টি রুপালি ইলিশ। প্রতিটি ইলিশের ওজন প্রায় ৪০০ গ্রাম করে। শুক্রবার বিকালে উপজেলার নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের ‘যুগান্তর কিল্লা’ পুকুরে জেলেদের জালে মাছগুলো ধরা পড়ে।

জানা যায়, প্রায় ৪০ পরিবার পুকুরটি ব্যবহার করে। প্রায় সাতদিন ধরে ‘যুগান্তর কিল্লা’ পুকুরটি সেচের জন্য মেশিন ব্যবহার করা হয়েছে। শনিবার সেচের পুরো কাজ শেষ হবে। শুক্রবার পুরো পুকুরে জেলেদের দিয়ে জাল ফেলানো হয়েছে। সে জালে অন্যান্য মাছের সঙ্গে ৩৫টি ইলিশ ধরা পড়ে।

পুকুরের মালিক আবদুল মান্নান বলেন, বিকালে জেলেদের দিয়ে জাল ফেলে অন্যান্য মাছের সাথে ৩৫টি ইলিশ মাছ পেয়েছি। মাছগুলো ৩০০ গ্রাম থেকে ৪০০ গ্রামের মধ্যে। সবগুলো মিলে প্রায় ৭-৮ কেজি হবে।

নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আফছার দিনাজ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত বছর ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে নিঝুমদ্বীপের প্রায় সবগুলো পুকুর তলিয়ে যায়। এর মধ্যে ‘যুগান্তর কিল্লা’ পুকরটিও ছিল। সেখানে আবদুল মান্নান ৩৫টি ইলিশ মাছ পেয়েছেন। মূলত জোয়ারের পানি প্রবেশ করায় তখন ইলিশ পুকুরে এসেছে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন বলেন, পুকুরে ইলিশ হয় বিষয়টি এমন নয়। মূলত জোয়ারের পানি প্রবেশ করায় তখন ইলিশ পুকুরে এসেছে। নিঝুমদ্বীপ নিম্নাঞ্চল তাই জোয়ারে প্লাবিত হয়। পুকুরটি যখন প্লাবিত হয়েছে, তখন ইলিশ প্রবেশ করেছে। এছাড়া আলাদা কিছু এখানে নেই।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন