বিদ্যুৎ লাইনে জড়িয়ে শ্রমিকের মৃত্যু
jugantor
বিদ্যুৎ লাইনে জড়িয়ে শ্রমিকের মৃত্যু

  গাছা (গাজীপুর) প্রতিনিধি  

২২ নভেম্বর ২০২২, ২২:৪৭:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুর মহানগরের গাছা থানার তারগাছ এলাকায় ৩৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের নির্মাণাধীন বহুতল ভবনে মঙ্গলবার কাজ করার সময় বিদ্যুতায়িত হয়ে একজন নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

নিহতের নাম শিহাব মণ্ডল (১৯)। তিনি বগুড়া জেলার দুপচাচিয়া থানার আদর্শ গ্রামের জিল্লুর রহমান মণ্ডলের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, শিহাব মণ্ডল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় ভবনের রিজার্ভ ট্যাংকিতে জমা পানি সেচতে গিয়ে সেখানে বৈদ্যুতিক লাইনে জড়িয়ে পড়েন। আশপাশের লোকজন তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় তায়রুন নেছা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেন। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

ঘটনার সময় ভবন মালিক কাউন্সিলর সাইফুল ইসলাম দুলাল ঘুমিয়ে ছিলেন। খবর পেয়ে তার পরিবারের সদস্যরা লাশ অ্যাম্বুলেন্সযোগে দ্রুত গ্রামের বাড়িতে পাঠাচ্ছিলেন। ইতোমধ্যে পুলিশ খবর পেয়ে বগুড়ার পথে থাকা লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি কালিয়াকৈর এলাকা থেকে ফেরত এনে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফুল ইসলাম দুলাল বলেন, সকাল সাড়ে ৯টায় পুলিশের ফোনে আমার ঘুম ভাঙ্গে। তখন আমি ফোনে খবর নিয়ে জানতে পারি লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি বগুড়ার পথে রয়েছে। থানার ওসিকে বিষয়টি জানালে তিনি লাশ ফেরত আনতে বলেন।

এ ব্যাপারে গাছা থানার ওসি মো. ইব্রাহিম হোসেন বলেন, আইনি প্রক্রিয়া ছাড়াই লাশটি গ্রামের বাড়িতে নেওয়ার পথে ফেরত এনে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

বিদ্যুৎ লাইনে জড়িয়ে শ্রমিকের মৃত্যু

 গাছা (গাজীপুর) প্রতিনিধি 
২২ নভেম্বর ২০২২, ১০:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুর মহানগরের গাছা থানার তারগাছ এলাকায় ৩৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলরের নির্মাণাধীন বহুতল ভবনে মঙ্গলবার কাজ করার সময় বিদ্যুতায়িত হয়ে একজন নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।

নিহতের নাম শিহাব মণ্ডল (১৯)। তিনি বগুড়া জেলার দুপচাচিয়া থানার আদর্শ গ্রামের জিল্লুর রহমান মণ্ডলের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, শিহাব মণ্ডল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় ভবনের রিজার্ভ ট্যাংকিতে জমা পানি সেচতে গিয়ে সেখানে বৈদ্যুতিক লাইনে জড়িয়ে পড়েন। আশপাশের লোকজন তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় তায়রুন নেছা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেন। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

ঘটনার সময় ভবন মালিক কাউন্সিলর সাইফুল ইসলাম দুলাল ঘুমিয়ে ছিলেন। খবর পেয়ে তার পরিবারের সদস্যরা লাশ অ্যাম্বুলেন্সযোগে দ্রুত গ্রামের বাড়িতে পাঠাচ্ছিলেন। ইতোমধ্যে পুলিশ খবর পেয়ে বগুড়ার পথে থাকা লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি কালিয়াকৈর এলাকা থেকে ফেরত এনে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফুল ইসলাম দুলাল বলেন, সকাল সাড়ে ৯টায় পুলিশের ফোনে আমার ঘুম ভাঙ্গে। তখন আমি ফোনে খবর নিয়ে জানতে পারি লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সটি বগুড়ার পথে রয়েছে। থানার ওসিকে বিষয়টি জানালে তিনি লাশ ফেরত আনতে বলেন।

এ ব্যাপারে গাছা থানার ওসি মো. ইব্রাহিম হোসেন বলেন, আইনি প্রক্রিয়া ছাড়াই লাশটি গ্রামের বাড়িতে নেওয়ার পথে ফেরত এনে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন