প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে ২ দিনের বেতন দেয়ার ঘোষণা ঢাবি শিক্ষকদের

  ঢাবি প্রতিনিধি ০১ এপ্রিল ২০২০, ২৩:৫৫:১৮ | অনলাইন সংস্করণ

করোনাভাইরাসে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে অসহায় শ্রমজীবী মানুষদের পাশে দাঁড়াতে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দুদিনের বেতন দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।

এজন্য বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মতামতের জন্য শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে চিঠি প্রেরণ করা হয়েছে।

শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এএসএম মাকসুদ কামাল ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূঁইয়া স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, করোনাভাইরাস বিশ্বজুড়ে মহামারী রূপ নিয়েছে। ইতিমধ্যে ২০০ টি দেশের জনগণ এই ভাইরাসে আক্রান্ত।

বাংলাদেশ এর বাইরে নেই। এই প্রেক্ষাপটে স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সতর্কতার অংশ হিসেবে সকল ধরনের জনসমাগম, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, অফিস-আদালত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে বর্তমানে দৈনিক খেটে খাওয়া হতদরিদ্র শ্রেণি-পেশার মানুষের ওপর এর প্রভাব পড়তে আরম্ভ করেছে।

এতে আরও বলা হয়, এই পরিস্থিতিতে মানবিকতার অংশ হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির কার্যকরী পরিষদ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে, ঢাবি শিক্ষকদের দুদিনের বেতনের সমপরিমাণ অর্থ প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে প্রদান করা হবে। এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের লক্ষ্যে শিক্ষক সমিতির কার্যকর পরিষদের সদস্য ছাড়াও প্রায় ১০০ জন শিক্ষকের সঙ্গে আমরা ফোনে কথা বলেছি ও তাদের মতামত গ্রহণ করেছি।

চারদিকে যখন আমরা সবাই গৃহান্তরে সময় কাটাচ্ছি, এসময় এই মানবিক সহায়তার সঠিক প্রয়োগ ও যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে হলে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে তা প্রদান করা যুক্তিযুক্ত হবে বলে আমরা মনে করি।

চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়, বৈশ্বিক বিপর্যয়কালে এই মানবিক সহযোগিতা প্রদানের মাধ্যমে আমরা সংবেদনশীলতার সঙ্গে এক কথাই প্রকাশ করতে চাই- বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমাজ আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

আরও
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত