মদনে বোরো জমিতে সেচ দিতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন যুবক
jugantor
মদনে বোরো জমিতে সেচ দিতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন যুবক

  মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি  

০৮ এপ্রিল ২০২০, ২১:৩৪:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার মদনে বোরো জমিতে সেচ দিতে গিয়েছিলেন রনি মিয়া (২২)। তিনি বাড়ি ফিরলেন লাশ হয়ে।

বুধবার ভোরে বাড়ির পাশের জমি থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রনি মিয়া উপজেলার মদন ইউনিয়নের কাপাসাটিয়ার গ্রামের তাহের উদ্দিনের ছেলে।

পারিবারিক সূত্র জানায়, মঙ্গলবার রাতে বাড়ির সামনের উত্তরকান্দা জমিতে সেচ দিতে যায় রনি। গভীর রাতেও বাড়ি ফিরে না আসায় পরিবার ও প্রতিবেশীদের মধ্যে সন্দেহ হয়। ভোরে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে পাশের জমিতেই তার লাশ পায়।

খবর পেয়ে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা সদর হাসপাতালে পাঠায়। তার মৃত্যুর রহস্য জানা যায়নি।

নিহতে মামা লেয়াজ মিয়া, প্রতিবেশী ইয়াছিন মিয়া জানান, রনি খুব ভালো ছেলে ছিল। কারো সঙ্গে কোনো শত্রুতা ছিল না।

ওসি মো রমিজুল হক জানান, প্রাথমিকভাবে বলা যাচ্ছে না কীভাবে তার মৃত্যু হয়েছে। তাই ময়নাতদন্তের জন্য লাশ নেত্রকোনা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মদন থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

মদনে বোরো জমিতে সেচ দিতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন যুবক

 মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি 
০৮ এপ্রিল ২০২০, ০৯:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার মদনে বোরো জমিতে সেচ দিতে গিয়েছিলেন রনি মিয়া (২২)। তিনি বাড়ি ফিরলেন লাশ হয়ে।

বুধবার ভোরে বাড়ির পাশের জমি থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রনি মিয়া উপজেলার মদন ইউনিয়নের কাপাসাটিয়ার গ্রামের তাহের উদ্দিনের ছেলে।

পারিবারিক সূত্র জানায়, মঙ্গলবার রাতে বাড়ির সামনের উত্তরকান্দা জমিতে সেচ দিতে যায় রনি। গভীর রাতেও বাড়ি ফিরে না আসায় পরিবার ও প্রতিবেশীদের মধ্যে সন্দেহ হয়। ভোরে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে পাশের জমিতেই তার লাশ পায়।

খবর পেয়ে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা সদর হাসপাতালে পাঠায়। তার মৃত্যুর রহস্য জানা যায়নি।

নিহতে মামা লেয়াজ মিয়া, প্রতিবেশী ইয়াছিন মিয়া জানান, রনি খুব ভালো ছেলে ছিল। কারো সঙ্গে কোনো শত্রুতা ছিল না।

ওসি মো রমিজুল হক জানান, প্রাথমিকভাবে বলা যাচ্ছে না কীভাবে তার মৃত্যু হয়েছে। তাই ময়নাতদন্তের জন্য লাশ নেত্রকোনা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মদন থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন