করোনার ভুয়া রিপোর্টসহ জাল সনদ চক্রের সদস্য গ্রেফতার
jugantor
করোনার ভুয়া রিপোর্টসহ জাল সনদ চক্রের সদস্য গ্রেফতার

  কুমিল্লা ব্যুরো  

২৬ জুলাই ২০২০, ২২:৩৮:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনার ভুয়া রিপোর্ট

কুমিল্লায় করোনাভাইরাসের ভুয়া রিপোর্টসহ সব ধরনের ভুয়া সার্টিফিকেট, জাতীয় পরিচয়পত্র, সিলমোহর তৈরিসহ নানা প্রতারণায় জড়িত থাকার অভিযোগে প্রতারক চক্রের হোতা মোরশেদ আলমকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রোববার জেলার চান্দিনা বাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

কুমিল্লাস্থ র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলার চান্দিনা বাজার এলাকায় বিসমিল্লাহ এন্টারপ্রাইজ নামের একটি দোকানে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এতে করোনাভাইরাসের ভুয়া রিপোর্ট প্রদানসহ সব ধরনের ভুয়া সার্টিফিকেট, টেস্টিমনিয়াল, জাতীয় পরিচয়পত্র, সিলমোহর তৈরির নামে প্রতারণা করার অভিযোগে প্রতারক মোরশেদ আলমকে গ্রেফতার করা হয়। মোরশেদ আলম (৩২) জেলার দেবিদ্বার উপজেলার জাফরাবাদ গ্রামের মো. ইদ্রিস আলীর ছেলে।

এ সময়ে তার নিকট থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ১টি সিপিইউ, ১টি মনিটর, ১টি কালার প্রিন্টার, ১টি কিবোর্ড, ১টি মাউস, ১টি স্ক্যানার, ১টি ইন্টারনেট মডেম, ১টি পেন ড্রাইভ, ৩টি মোবাইল, ২টি ভুয়া করোনা সার্টিফিকেটসহ বিভিন্ন ধরনের জাল সার্টিফিকেট, ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র ও প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেয়া নগদ অর্থ উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব আরও জানায়, প্রতারক মোরশেদ করোনাভাইরাসের ভুয়া সার্টিফিকেট প্রদানের নামে বিভিন্ন লোকজনের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল। করোনাভাইরাসের প্রতিটি সার্টিফিকেট তৈরির জন্য সে লোকজনের নিকট থেকে বিভিন্ন অংকের অর্থ হাতিয়ে নেয়। এ ছাড়াও সে সব ধরনের ভুয়া সার্টিফিকেট (যেমন: এসএসসি/দাখিল, এইচএসসি, অনার্স, মাস্টার্স), টেস্টিমনিয়াল, জাতীয় পরিচয়পত্র ও জাল সিলমোহর তৈরি করে প্রতারণার মাধ্যমে লোকজনের নিকট থেকেও অর্থ হাতিয়ে নেয়।

করোনার ভুয়া রিপোর্টসহ জাল সনদ চক্রের সদস্য গ্রেফতার

 কুমিল্লা ব্যুরো 
২৬ জুলাই ২০২০, ১০:৩৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
করোনার ভুয়া রিপোর্ট
প্রতীকী ছবি

কুমিল্লায় করোনাভাইরাসের ভুয়া রিপোর্টসহ সব ধরনের ভুয়া সার্টিফিকেট, জাতীয় পরিচয়পত্র, সিলমোহর তৈরিসহ নানা প্রতারণায় জড়িত থাকার অভিযোগে প্রতারক চক্রের হোতা মোরশেদ আলমকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রোববার জেলার চান্দিনা বাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

কুমিল্লাস্থ র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলার চান্দিনা বাজার এলাকায় বিসমিল্লাহ এন্টারপ্রাইজ নামের একটি দোকানে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এতে করোনাভাইরাসের ভুয়া রিপোর্ট প্রদানসহ সব ধরনের ভুয়া সার্টিফিকেট, টেস্টিমনিয়াল, জাতীয় পরিচয়পত্র, সিলমোহর তৈরির নামে প্রতারণা করার অভিযোগে প্রতারক মোরশেদ আলমকে গ্রেফতার করা হয়। মোরশেদ আলম (৩২) জেলার দেবিদ্বার উপজেলার জাফরাবাদ গ্রামের মো. ইদ্রিস আলীর ছেলে।

এ সময়ে তার নিকট থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ১টি সিপিইউ, ১টি মনিটর, ১টি কালার প্রিন্টার, ১টি কিবোর্ড, ১টি মাউস, ১টি স্ক্যানার, ১টি ইন্টারনেট মডেম, ১টি পেন ড্রাইভ, ৩টি মোবাইল, ২টি ভুয়া করোনা সার্টিফিকেটসহ বিভিন্ন ধরনের জাল সার্টিফিকেট, ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র ও প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেয়া নগদ অর্থ উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব আরও জানায়, প্রতারক মোরশেদ করোনাভাইরাসের ভুয়া সার্টিফিকেট প্রদানের নামে বিভিন্ন লোকজনের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল। করোনাভাইরাসের প্রতিটি সার্টিফিকেট তৈরির জন্য সে লোকজনের নিকট থেকে বিভিন্ন অংকের অর্থ হাতিয়ে নেয়। এ ছাড়াও সে সব ধরনের ভুয়া সার্টিফিকেট (যেমন: এসএসসি/দাখিল, এইচএসসি, অনার্স, মাস্টার্স), টেস্টিমনিয়াল, জাতীয় পরিচয়পত্র ও জাল সিলমোহর তৈরি করে প্রতারণার মাধ্যমে লোকজনের নিকট থেকেও অর্থ হাতিয়ে নেয়।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস