করোনায় মারা গেলেন চক্ষু বিশেষজ্ঞ গোলাম মোস্তফা
jugantor
করোনায় মারা গেলেন চক্ষু বিশেষজ্ঞ গোলাম মোস্তফা

  গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি  

০৯ আগস্ট ২০২০, ০৮:৩০:১৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ডা. মো. গোলাম মোস্তফা

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার কৃতী সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাচক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. মো. গোলাম মোস্তফা (৭৫)।

শনিবার রাত সোয়া ৮টার দিকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে তার মৃত্যু হয়।

ডা. গোলাম মোস্তফা গোয়ালন্দ পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের বিপেন রায়েরপাড়ার বাসিন্দা মৃত হাজী মো. গিয়াসউদ্দিন প্রামাণিকের সন্তান। তবে তিনি দীর্ঘকাল ধরে রাজবাড়ী জেলা শহরের ১নং বেড়া ডাঙ্গা এলাকার নিজ বাড়িতে বসবাস করতেন। তিনি বঙ্গবন্ধু পরিষদের রাজবাড়ী জেলা শাখার সভাপতি ছিলেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তিনি গত ১০-১২ দিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন। এর মধ্যে করোনার পরীক্ষা করা হলে পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এর পর থেকে তিনি হোম আইসোলেশনে ছিলেন।

শনিবার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে নেয়া রাত সোয়া ৮টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি স্ত্রী ও চার মেয়ে, আত্মীয়স্বজন ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান।

মরহুমের ছোট ভাই গোয়ালন্দের বাসিন্দা গোলাম মুনতাহা রাতুল বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, রোববার সকাল ১০টায় রাজবাড়ীর ১নং বেড়া ডাঙ্গা জামে মসজিদে জানাজা শেষে তাকে শহরের ভবানীপুর কবরস্থানে দাফন করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ভাইয়ের কোনো পুত্রসন্তান নেই। কিন্তু চার মেয়েকে আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলেছেন।

বড় মেয়ে মমি রাজবাড়ীর পাংশা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ভূগোল বিষয়ের অধ্যাপক, মেজ মেয়ে রমি ঢাকা কলেজের ইংরেজি বিষয়ের অধ্যাপক, সেজ মেয়ে মিনজা মোস্তফা ছন্দা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভূগোল বিষয়ে পড়ালেখা শেষ করে বর্তমানে আমেরিকার আটলান্টায় স্বামীর সঙ্গে বসবাস করছেন এবং ছোট মেয়ে তুনতুন এমবিবিএস ডাক্টার।

এ ছাড়া তিনি সারাজীবন গরিব আত্মীয়স্বজন ও অসহায় মানুষকে নানাভাবে সেবা দিয়ে গেছেন।

আমি আমার ভাইয়ের রুহের মাগফিরাতের জন্য সবার কাছে দোয়া কামনা করছি।

ডা. গোলাম মোস্তফা চিকিৎসক হিসেবে গরিব-অসহায়দের বিনামূল্যে চিকিৎসা ও ওষুধ সেবা দিয়ে গেছেন। তার মৃত্যুতে তার ঘনিষ্ঠ সহচর রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকির আ. জব্বার গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। আত্মীয়স্বজন, বন্ধু, শুভাকাঙ্ক্ষী ও দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে গভীর শোক নেমে এসেছে।

ডা. গোলাম মোস্তফা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস পাস করেন এবং অনেক দিন দেশের বাহিরে সুনামের সহিত চিকিৎসক হিসেবে কাজ করেন। এর পর দীর্ঘকাল ধরে তিনি রাজবাড়ীতে চিকিৎসক হিসেবে মানুষকে সেবা দিয়ে গেছেন।

করোনায় মারা গেলেন চক্ষু বিশেষজ্ঞ গোলাম মোস্তফা

 গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি 
০৯ আগস্ট ২০২০, ০৮:৩০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ডা. মো. গোলাম মোস্তফা
ডা. মো. গোলাম মোস্তফা। ছবি: যুগান্তর

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার কৃতী সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. মো. গোলাম মোস্তফা (৭৫)।

শনিবার রাত সোয়া ৮টার দিকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে তার মৃত্যু হয়।

ডা. গোলাম মোস্তফা গোয়ালন্দ পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের বিপেন রায়েরপাড়ার বাসিন্দা মৃত হাজী মো. গিয়াসউদ্দিন প্রামাণিকের সন্তান। তবে তিনি দীর্ঘকাল ধরে রাজবাড়ী জেলা শহরের ১নং বেড়া ডাঙ্গা এলাকার নিজ বাড়িতে বসবাস করতেন। তিনি বঙ্গবন্ধু পরিষদের রাজবাড়ী জেলা শাখার সভাপতি ছিলেন।  

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তিনি গত ১০-১২ দিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন। এর মধ্যে করোনার পরীক্ষা করা হলে পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এর পর থেকে তিনি হোম আইসোলেশনে ছিলেন।

শনিবার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে নেয়া রাত সোয়া ৮টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি স্ত্রী ও চার মেয়ে, আত্মীয়স্বজন ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান।

মরহুমের ছোট ভাই গোয়ালন্দের বাসিন্দা গোলাম মুনতাহা রাতুল বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, রোববার সকাল ১০টায় রাজবাড়ীর ১নং বেড়া ডাঙ্গা জামে মসজিদে জানাজা শেষে তাকে শহরের ভবানীপুর কবরস্থানে দাফন করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ভাইয়ের কোনো পুত্রসন্তান নেই। কিন্তু চার মেয়েকে আদর্শ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলেছেন।

বড় মেয়ে মমি রাজবাড়ীর পাংশা বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ভূগোল বিষয়ের অধ্যাপক, মেজ মেয়ে রমি ঢাকা কলেজের ইংরেজি বিষয়ের অধ্যাপক, সেজ মেয়ে মিনজা মোস্তফা ছন্দা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ভূগোল বিষয়ে পড়ালেখা শেষ করে বর্তমানে আমেরিকার আটলান্টায় স্বামীর সঙ্গে বসবাস করছেন এবং ছোট মেয়ে তুনতুন এমবিবিএস ডাক্টার।

এ ছাড়া তিনি সারাজীবন গরিব আত্মীয়স্বজন ও অসহায় মানুষকে নানাভাবে সেবা দিয়ে গেছেন।

আমি আমার ভাইয়ের রুহের মাগফিরাতের জন্য সবার কাছে দোয়া কামনা করছি।

ডা. গোলাম মোস্তফা চিকিৎসক হিসেবে গরিব-অসহায়দের বিনামূল্যে চিকিৎসা ও ওষুধ সেবা দিয়ে গেছেন। তার মৃত্যুতে তার ঘনিষ্ঠ সহচর রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকির আ. জব্বার গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। আত্মীয়স্বজন, বন্ধু, শুভাকাঙ্ক্ষী ও দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে গভীর শোক নেমে এসেছে।

ডা. গোলাম মোস্তফা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল থেকে এমবিবিএস পাস করেন এবং অনেক দিন দেশের বাহিরে সুনামের সহিত চিকিৎসক হিসেবে কাজ করেন। এর পর দীর্ঘকাল ধরে তিনি রাজবাড়ীতে চিকিৎসক হিসেবে মানুষকে সেবা দিয়ে গেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : করোনায় চিকিৎসকের মৃত্যু