জিফাইভ এখন বাংলাদেশে

  যুগান্তর ডেস্ক ০৪ জুলাই ২০১৯, ১৬:১৯ | অনলাইন সংস্করণ

জিফাইভ এখন বাংলাদেশে
জিফাইভ এখন বাংলাদেশে

বিশ্বজুড়ে দর্শকদের কাছে বাংলাদেশি বিনোদনমূলক কনটেন্ট পৌঁছে দেয়ার প্রতিশ্রুতির কথা জানিয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম এবং বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম জিফাইভ। বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে রবি আজিয়াটা লিমিটেডের সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেয় প্ল্যাটফর্মটি।

বাংলাদেশের শিল্পী ও নির্মাতাদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করা এবং এরই মাধ্যমে এদেশের কনটেন্টগুলো বৈশ্বিক দর্শকদের হাতে পৌঁছে দেয়ার পরিকল্পনার কথা জানান জিফাইভ গ্লোবালের চিফ বিজনেস অফিসার অর্চনা আনন্দ। রবি ও এয়ারটেল গ্রাহকদের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে সেবাটি উদ্বোধনের সময় এ কথা বলেন তিনি।

আগামী এক বছরে বাংলা ভাষায় ছয়টি মেগা প্রকল্প নিয়ে কাজ করবে জিফাইভ। এর আওতায় এদেশের জনপ্রিয় শিল্পীদের নিয়ে কাজ করবে প্ল্যাটফর্মটি। পাশাপাশি জিফাইভ অরিজিনালের নতুন কনটেন্টগুলোর জন্য তরুণ শিল্পীদের খুঁজে পেতে একটি ট্যালেন্ট হান্ট প্রোগ্রামেরও আয়োজন করবে তারা। রবি আজিয়াটা লিমিটেডের সহযোগিতায় এ ট্যালেন্ট হান্ট প্রোগ্রামের আয়োজন করবে জিফাইভ। এ বিষয়ে পরবর্তীতে বিস্তারিত জানানো হবে।

জি ইন্টারন্যাশনাল ও জিফাইভ গ্লোবালের সিইও অমিত গোয়েনকা বলেন, বিশ্বব্যাপী আমাদের সেবা পৌঁছে দেয়া এবং সম্ভাবনাময় প্রধান প্রধান বাজারগুলোতে প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি আমরা। এক্ষেত্রে এসব বাজারে পারস্পরিক আলোচনার ক্ষেত্র তৈরি করাটা অনেক বড় ব্যাপার। বাংলাদেশের বাজারে রবি ও এয়ারটেলের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে অংশীদারিত্বের ঘোষণা এবং গুরুত্বপূর্ণ এই বাজারের জন্য বেশ কয়েকটি পরিকল্পনা হাতে নিতে পেরে আমরা আনন্দিত।

জিফাইভ গ্লোবালের চিফ বিজনেস অফিসার অর্চনা আনন্দ বলেন, বাংলাদেশের বাজারকে আমরা যথেষ্ট প্রাধান্য দেই। এখানকার দর্শকদের কাছ থেকে আমরা যে সাড়া পেয়েছি তা অভূতপূর্ব। বাংলাদেশি দর্শকদের জন্য আমাদের প্ল্যাটফর্মটিতে রয়েছে বাংলা ভাষায় নির্মিত বহু সমৃদ্ধ কনটেন্ট।

তিনি বলেন, এগুলোর মধ্যে জিফাইভ’র অরিজিনাল কনটেন্টসহ রয়েছে সিনেমা, টিভি শো এবং জি-বাংলার মতো চ্যানেলের লাইভ স্ট্রিমিং। প্ল্যাটফর্মটির শোগুলোর জন্য স্থানীয় শিল্পী ও নির্মাতাদের সাথে নিয়ে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি কাজের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি আমরা। জিফাইভ’র মাধ্যমে বিশ্বজুড়ে দর্শকদের কাছে পৌঁছে যাবে এ কনটেন্টগুলো।

রবি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, আমাদের বিশ্বাস রবি ও এয়ারটেলের যে গ্রাহকরা মানসম্মত বিনোদনমূলক কনটেন্টের অভাববোধ করছিলেন, তাদের সে অপূর্ণতা দূর করবে জিফাইভ। প্ল্যাটফর্মটিতে রয়েছে বৈচিত্র্যময় ও সমৃদ্ধ বিনোদনমূলক কনটেন্ট। যার মধ্যে বাংলা কনটেন্টও রয়েছে; যা নিশ্চিতভাবেই আমাদের গ্রাহকদের বিনোদনের চাহিদা পূরণ করবে।

মূল্য পরিশোধের সহজ প্রক্রিয়ায় বিভিন্ন ডিভাইস থেকে স্বাচ্ছন্দ্যে আমাদের গ্রাহকরা তাদের পছন্দের শোগুলো উপভোগ করতে পারবেন। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বিনোদনমূলক সেবা জিফাইভ’র মাধ্যমে স্থানীয় বিনোদন শিল্পকে বৈশ্বিক দর্শকদের কাছে পৌঁছে দেয়ার সুযোগ তৈরি করতে পেরে আমরা গর্বিত।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জি বাংলা’র ‘সা রো গা মা পা’ মাতানো বাংলাদেশি গায়ক মঈনুল হাসান নোবেল এবং জনপ্রিয় ড্রামা সিরিয়াল বকুল কথা’র মূল ভূমিকায় অভিনয় করা নন্দিত অভিনেত্রী উষসী রায়। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশি তারকাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী, র‍্যাম্প মডেল ও অভিনেত্রী আইরিন সুলতানা এবং টেলিভিশন উপস্থাপক, মডেল ও অভিনেত্রী মাসুমা রহমান নাবিলা।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন রবি আজিয়াটা লিমিটেডের চিফ কমার্শিয়াল অফিসার প্রদীপ শ্রীবাস্তব এবং চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অফিসার সাহেদ আলম। রবি ও এয়ারটেল গ্রাহকদের জন্য জিফাইভ চালু হওয়া এবং স্থানীয় বিনোদন শিল্পের জন্য নতুন সম্ভাবনার দ্বার খুলে যাওয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন তারা।

অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ ছিল নোবেলের মনমাতানো সংগীত পরিবেশনা। তিনি বলেন, আমাদের মতো অনেক শিল্পীকে বৈশ্বিক প্ল্যাটফর্মে উপস্থাপনের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিজেদের মেলে ধরার সুযোগ করে দিয়েছে জি ও জিফাইভ। জিফাইভ এখন বাংলাদেশে; এর ফলে বৈশ্বিক দর্শকদের কাছে নিজেদের শিল্পীসত্তাকে পৌঁছে দেয়া এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তাদের ভক্তকুল গড়ে তোলার এক অনন্য সুযোগ পেল এদেশের শিল্পীরা।

রবি ও এয়ারটেল গ্রাহকরা জিফাইভ’র কনটেন্ট উপভোগ করতে দৈনিক বা সাপ্তাহিক সাবস্ক্রিপশন প্যাকের যে কোন একটি গ্রহণ করতে পারেন। দৈনিক প্যাকের মূল্য ৭ টাকা এবং সাপ্তাহিক প্যাকের মূল্য ৪৫ টাকা। এই অংশীদারিত্বের মাধ্যমে রবি ও এয়ারটেল গ্রাহকরা তাদের মোবাইলের প্রি-পেইড ব্যালেন্স থেকে এবং পোষ্ট-পেইড গ্রাহকরা মাসিক বিলের সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত করে জিফাইভের সাবস্ক্রিপশন ফি সহজেই পরিশোধ করতে পারবেন।

রবি ও এয়ারটেল গ্রাহকরা একই সঙ্গে পাঁচটি ডিভাইস-মোবাইল ফোন, ট্যাব, ল্যাপটপ, স্মার্ট টিভি ইত্যাদির মাধ্যম জিফাইভ’র বিনোদনমূলক কন্টেন্ট উপভোগ করতে পারবেন। দেশজুড়ে রবি’র ৪.৫জি অথবা ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে এই সেবা উপভোগ করতে পারবেন গ্রাহকরা।

জিফাইভ’র সাবস্ক্রিপশন প্যাকের অংশ হিসেবে বাংলা কনটেন্টের এক সমৃদ্ধ লাইব্রেরিসহ ১৭টি ভাষার এক লাখ ঘণ্টারও বেশি সময়ের বিনোদন কনটেন্ট উপভোগ করতে পারবেন রবি ও এয়ারটেল গ্রাহকরা। জিফাইভ’র অরিজিনালের মধ্যে রয়েছে অপরাধ, রোমহর্ষক, গল্প ও কমেডি-নির্ভর সব কনটেন্ট। এছাড়া জনপ্রিয় টিভি চ্যানেল জি বাংলা’র মত ৬০টির বেশি লাইভ টিভি চ্যানেল রয়েছে প্ল্যাটফর্মটির সমৃদ্ধ লাইব্রেরিতে।

বেশ কয়েকটি প্ল্যাটফর্ম ও ডিভাইসের মাধ্যমে এবং www.ZEE5.com ওয়েবসাইটের মাধ্যমে জিফাইভ’র সেবা গ্রহণ করতে পারেন গ্রাহকরা।

প্রসঙ্গত, জিফাইভ হলো বিশ্ব মিডিয়া ও বিনোদন জগতের অন্যতম প্রতিষ্ঠান জি এন্টারটেইনমেন্ট এন্টারপ্রাইজেস লিমিটেড (জিল) পরিচালিত একটি স্ট্রিমিং ভিডিও প্ল্যাটফর্ম। ২০১৮ সালের অক্টোবরে ১৯০টির বেশি দেশে কার্যক্রম শুরু করে জিফাইভ।

তখন থেকেই প্ল্যাটফর্মটিতে হিন্দি, ইংরেজি, বাংলা, মালয়ালাম, তামিল, তেলেগু, কন্নাডা, মারাঠি, ওড়িয়া, ভোজপুরি, গুজরাটি ও পাঞ্জাবিসহ ১৭টি ভাষার কনটেন্ট রয়েছে। নতুন করে যোগ হয়েছে পাঁচটি আন্তর্জাতিক ভাষার কনটেন্ট: মালয়, থাই, বাহাসা, জার্মান ও রাশিয়ান।

জিফাইভে রয়েছে এক লাখ ঘণ্টার অন ডিমান্ড কনটেন্ট এবং ৬০টিরও বেশি লাইভ টিভি চ্যানেল। এই একটি প্ল্যাটফর্মেই গ্রাহকরা পেয়ে যাবেন সেরা সব চলচ্চিত্র, টিভি শো, সিনেপ্লে, লাইভ টিভি এবং স্বাস্থ্য ও লাইফস্টাইল বিষয়ক কনটেন্ট। জিফাইভের অনন্য ফিচারগুলোর মধ্যে রয়েছে ১৬টি নেভিগেশনাল ল্যাঙ্গুয়েজ, কনটেন্ট ডাউনলোডের সুযোগ, নিরবচ্ছিন্ন ভিডিও দেখা ও ভয়েস সার্চের সুবিধা।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×