ঐশ্বরিয়া-আরাধ্যার সুস্থতায় অমিতাভের আনন্দাশ্রু
jugantor
ঐশ্বরিয়া-আরাধ্যার সুস্থতায় অমিতাভের আনন্দাশ্রু

  অনলাইন ডেস্ক  

২৮ জুলাই ২০২০, ১৬:১৬:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ঐশ্বরিয়া-আরাধ্যার সুস্থতায় অমিতাভের আনন্দাশ্রু
ছবি: সংগৃহীত

দুই সপ্তাহ পর করোনামুক্ত হয়ে বাসায় ফিরেছেন বলিউড নায়িকা ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও তার আট বছরের মেয়ে আরাধ্যা। এতে দারুণ খুশি তার শ্বশুর অমিতাভ বচ্চন। পুত্রবধূ ও নাতনি সুস্থ হয়ে ওঠায় আনন্দে চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি বলিউড শাহেনশাহ।

টুইটবার্তায় অমিতাভ বলেন, আমাদের ছোট্ট মেয়ে (আরাধ্যা) আর বউমা হাসপাতাল থেকে মুক্তি পাওয়ায় আমি চোখের পানি ধরে রাখতে পারছি না। প্রভু তোমার অপার কৃপা।

সোমবার মা-মেয়ে দুজনেরই কোভিড রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এর পরই তারা হাসপাতাল ছাড়েন। তবে এখনও হাসপাতালেই রয়েছেন অমিতাভ ও অভিষেক বচ্চন। তারা এখনও সুস্থ হতে পারেননি।

টুইটারে অভিষেক লেখেন– ক্রমাগত প্রার্থনা ও শুভকামনার জন্য আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ। চিরঋণী। ঐশ্বরিয়া ও আরাধ্যার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তাদের হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তারা এখন বাড়িতেই থাকবেন। আমি ও আমার বাবা হাসপাতালে পর্যবেক্ষণে থাকব।

১১ জুলাই করোনা পজিটিভ ধরা পড়ায় মুম্বাইয়ের নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি হন বিগ বি। তিনি নিজেই টুইটারে করোনা আক্রান্ত হওয়ার কথা জানান। পরের দিন করোনা ধরা পড়ে ঐশ্বরিয়ার।

প্রথমে তারা বাড়িতেই কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। তবে পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়। অন্যদিকে ভালো আছেন অমিতাভের স্ত্রী জয়া বচ্চন ও বাড়ির কর্মীরা।

ঐশ্বরিয়া-আরাধ্যার সুস্থতায় অমিতাভের আনন্দাশ্রু

 অনলাইন ডেস্ক 
২৮ জুলাই ২০২০, ০৪:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ঐশ্বরিয়া-আরাধ্যার সুস্থতায় অমিতাভের আনন্দাশ্রু
ছবি: সংগৃহীত

দুই সপ্তাহ পর করোনামুক্ত হয়ে বাসায় ফিরেছেন বলিউড নায়িকা ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন ও তার আট বছরের মেয়ে আরাধ্যা। এতে দারুণ খুশি তার শ্বশুর অমিতাভ বচ্চন। পুত্রবধূ ও নাতনি সুস্থ হয়ে ওঠায় আনন্দে চোখের পানি ধরে রাখতে পারেননি বলিউড শাহেনশাহ।

টুইটবার্তায় অমিতাভ বলেন, আমাদের ছোট্ট মেয়ে (আরাধ্যা) আর বউমা হাসপাতাল থেকে মুক্তি পাওয়ায় আমি চোখের পানি ধরে রাখতে পারছি না। প্রভু তোমার অপার কৃপা।

সোমবার মা-মেয়ে দুজনেরই কোভিড রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এর পরই তারা হাসপাতাল ছাড়েন। তবে এখনও হাসপাতালেই রয়েছেন অমিতাভ ও অভিষেক বচ্চন। তারা এখনও সুস্থ হতে পারেননি।

টুইটারে অভিষেক লেখেন– ক্রমাগত প্রার্থনা ও শুভকামনার জন্য আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ। চিরঋণী। ঐশ্বরিয়া ও আরাধ্যার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। তাদের হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। তারা এখন বাড়িতেই থাকবেন। আমি ও আমার বাবা হাসপাতালে পর্যবেক্ষণে থাকব।

১১ জুলাই করোনা পজিটিভ ধরা পড়ায় মুম্বাইয়ের নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি হন বিগ বি। তিনি নিজেই টুইটারে করোনা আক্রান্ত হওয়ার কথা জানান। পরের দিন করোনা ধরা পড়ে ঐশ্বরিয়ার।

প্রথমে তারা বাড়িতেই কোয়ারেন্টিনে ছিলেন। তবে পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়। অন্যদিকে ভালো আছেন অমিতাভের স্ত্রী জয়া বচ্চন ও বাড়ির কর্মীরা।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস