২৭ জানুয়ারি থেকে প্রতিদিন ‘চিটিং মাস্টার’
jugantor
২৭ জানুয়ারি থেকে প্রতিদিন ‘চিটিং মাস্টার’

  বিনোদন প্রতিবেদক  

২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৫:১০:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

ছবি সংগৃহীত

২০১৮ সালের শেষ ভাগে আরটিভিতে প্রচার শুরু হয় সঞ্জিত সরকারের পরিচালনায় ধারাবাহিক নাটক ‘চিটিং মাষ্টার’। গত মাসে নাটকটি চারশত পর্ব প্রচার অতিক্রম করেছে।

দর্শকপ্রিয়তার কারণে ২৭ জানুয়ারি থেকে নাটকটি আরটিভিতে প্রতিদিন প্রচার হবে। নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন আনিসুর রহমান মিলন, ফারহানা মিলি, ডা. এজাজুল ইসলাম, নাফিজা জাহান, সালহা খানম নাদিয়া, নিলয় আলমগীর, মৌসুমী হামিদ, সাজু খাদেম, আল মনসুর, ফারুক আহমেদ, শামীমা তুষ্টি, মনিরা মিঠু, আ খ ম হাসান, আরফান আহমেদ প্রমুখ।

নাটকটি শুরু হয়েছিল পুরান ঢাকার সম্ভ্রান্ত এক পরিবার নিয়ে। সেই পরিবারের একজন মোবারক আলী। তিনি বেশ টাকা পয়সার মালিক। তার উত্তরায় ছয়তলা একটা বাড়ি আছে। পুরো পরিবার নিয়ে তিনি পুরান ঢাকা থেকে উত্তরার বাড়িতে এসে উঠেন।

মোবারকের দুই মেয়ে, সোনিয়া এবং জিনিয়া। সোনিয়ার সঙ্গে মোবারকের আড়তের ম্যানেজার শাহাজাদর সম্পর্ক হয়। সেই সর্ম্পর্ক জানাজানি হলে মোবারক শাহাজাদাকে ম্যানেজার পদ থেকে বরখাস্ত করে। এমনকি শাহাজাদাকে জেল পর্যন্ত খাটতে হয়।

এ কারণে পরিবারের মধ্যে বিরাট অশান্তি। এভাবেই প্রতি পর্বে গল্পের একাধিক বাঁক ও পারিবারিক জটিলতা নিয়ে হাস্যরসের ভেতর দিয়ে নাটকটির গল্প এগিয়ে যেতে থাকে।

এ নাটক প্রসঙ্গে পরিচালক সঞ্জিত সরকার বলেন, ‘ শুরুতে নাটকটির কলেবর বেশি ছিল না। কিন্তু নাটকটি ক্রমেই যখন দর্শকপ্রিয়তা পাচ্ছিল তখন চ্যানেল কতৃপক্ষ নাটকটির পর্ব সংখ্যা বৃদ্ধি করতে থাকেন। প্রতিদিন প্রচার কারণে আমাকে এখন এটির নতুন পর্ব নির্মাণ নিয়ে ব্যস্ত থাকবে। এই ব্যস্ততাকে আমি আশীর্ভাদ হিসেবেই মনে করছি।’

২৭ জানুয়ারি থেকে প্রতিদিন ‘চিটিং মাস্টার’

 বিনোদন প্রতিবেদক 
২৬ জানুয়ারি ২০২১, ০৩:১০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ছবি সংগৃহীত
ছবি সংগৃহীত

২০১৮ সালের শেষ ভাগে আরটিভিতে প্রচার শুরু হয় সঞ্জিত সরকারের পরিচালনায় ধারাবাহিক নাটক ‘চিটিং মাষ্টার’। গত মাসে নাটকটি চারশত পর্ব প্রচার অতিক্রম করেছে।

দর্শকপ্রিয়তার কারণে ২৭ জানুয়ারি থেকে নাটকটি আরটিভিতে প্রতিদিন প্রচার হবে। নাটকটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন আনিসুর রহমান মিলন, ফারহানা মিলি, ডা. এজাজুল ইসলাম, নাফিজা জাহান, সালহা খানম নাদিয়া, নিলয় আলমগীর, মৌসুমী হামিদ, সাজু খাদেম, আল মনসুর, ফারুক আহমেদ, শামীমা তুষ্টি, মনিরা মিঠু, আ খ ম হাসান, আরফান আহমেদ প্রমুখ।

নাটকটি শুরু হয়েছিল পুরান ঢাকার সম্ভ্রান্ত এক পরিবার নিয়ে। সেই পরিবারের একজন মোবারক আলী। তিনি বেশ টাকা পয়সার মালিক। তার উত্তরায় ছয়তলা একটা বাড়ি আছে। পুরো পরিবার নিয়ে তিনি পুরান ঢাকা থেকে উত্তরার বাড়িতে এসে উঠেন।

মোবারকের দুই মেয়ে, সোনিয়া এবং জিনিয়া। সোনিয়ার সঙ্গে মোবারকের আড়তের ম্যানেজার শাহাজাদর সম্পর্ক হয়। সেই সর্ম্পর্ক জানাজানি হলে মোবারক শাহাজাদাকে ম্যানেজার পদ থেকে বরখাস্ত করে। এমনকি শাহাজাদাকে জেল পর্যন্ত খাটতে হয়।

এ কারণে পরিবারের মধ্যে বিরাট অশান্তি। এভাবেই প্রতি পর্বে গল্পের একাধিক বাঁক ও পারিবারিক জটিলতা নিয়ে হাস্যরসের ভেতর দিয়ে নাটকটির গল্প এগিয়ে যেতে থাকে।

এ নাটক প্রসঙ্গে পরিচালক সঞ্জিত সরকার বলেন, ‘ শুরুতে নাটকটির কলেবর বেশি ছিল না। কিন্তু নাটকটি ক্রমেই যখন দর্শকপ্রিয়তা পাচ্ছিল তখন চ্যানেল কতৃপক্ষ নাটকটির পর্ব সংখ্যা বৃদ্ধি করতে থাকেন। প্রতিদিন প্রচার কারণে আমাকে এখন এটির নতুন পর্ব নির্মাণ নিয়ে ব্যস্ত থাকবে। এই ব্যস্ততাকে আমি আশীর্ভাদ হিসেবেই মনে করছি।’

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন